ঢাকা, শুক্রবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৪ ডিসেম্বর ২০২০, ১৭ রবিউস সানি ১৪৪২

ক্রিকেট

শচীন আছেন শচীন নেই! | অঘোর মন্ডল, অকল্যান্ড থেকে

... | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৪২ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৫
শচীন আছেন শচীন নেই! | অঘোর মন্ডল, অকল্যান্ড থেকে

অকল্যান্ড থেকে: বিশ্বকাপের প্রচার-প্রচারণা নিয়ে অস্ট্রেলিয়ার তুলনায় এগিয়ে নিউজিল্যান্ড। সেটা অকল্যান্ড বিমান বন্দরে পা রেখেই টের পাওয়া গেলো।

বিশ্বকাপের লোগোসহ ডিজিটাল প্রচার-প্রচারণাতো আছেই, সঙ্গে অংশ নেয়া সবগুলো দেশের পতাকা দিয়ে সাজানো শহরের বিভিন্ন জায়গা। যেটা চোখে পড়েনি সিডনি, ব্রিসবেন কিংবা মেলবোর্নে! 

কিন্তু এরপরও বিশ্বকাপের উত্তাপ ছড়াতে ‘ইন্ডিয়ান উইকেন্ডার’ নামের এক পত্রিকায় বড় বড় বিজ্ঞাপন দেয়া হয়েছে শচীন টেন্ডুলকারকে ঘিরে! ‘ক্রিকেট গড কামস টু টাউন। ’ ক্রিকেটে থেকে অবসর নিলেও তিনি-ই এখনো ক্রিকেট ঈশ্বর! তাও আবার  ব্র্যাডম্যানের প্রতিবেশী দেশের বিজ্ঞাপনে! আর সেই বিজ্ঞাপনটা পত্রিকায় ছাপা হয়েছে বিশ্বকাপে যখন ব্র্যাডম্যানের দেশ মুখোমুখি হচ্ছে নিউজিল্যান্ডের। আর সেই বিজ্ঞাপনকে আরও একটু বাড়তি মাত্রা দিতে ব্র্যাডম্যানের স্বদেশী এক বোলারের উদ্ধৃতি তুলে দেয়া হয়েছে। সাবেক স্পিন কিং শেন ওয়ার্নকে উদ্ধৃত করে বলা হয়েছে, ‘শচীন টেন্ডুলকার আমার সময়ের সেরা ব্যাটসম্যান। সংশয়হীনভাবে দ্বিতীয় হচ্ছে দিনের আলো। তৃতীয় ব্রায়ান লারা!’  বিজ্ঞাপনের ভাষায় অনেক কিছু বলা যায়। কিন্তু দিন শেষে সেটা যদি অসত্য প্রমাণিত হয়, তাহলে?

আসলে বিজ্ঞাপন সবসময় বিজ্ঞাপন-ই। সেটা সত্য-অসত্যের মিশেলে! অস্ট্রেলিয়া-নিউজিল্যান্ড ম্যাচের আগের দিন অকল্যান্ডে শচীন টেন্ডুলকার আসবেন। তার সঙ্গে হোটেল ল্যাংহ্যামে ডিনার করতে কিছু টাকা খরচ করতে হবে আপনাকে। যে সুযোগ জীবনে দ্বিতীয়বার আর নাও পেতে পারেন! কিন্তু দ্বিতীয়বার কেন, প্রথমবারও সেই সুযোগ পাচ্ছেন না অকল্যান্ডবাসী। কারণ, ফোন করে জানা গেলো শচীন টেন্ডুলকার নামের কেউ অকল্যান্ডে আসেননি। তার সঙ্গে ডিনার করারও কোনো প্রশ্ন নেই! তাহলে ওই বিজ্ঞাপনাটা?

যারা দিয়েছেন তারা বিনীতভাবে বললেন, ডিনারের অনুষ্ঠানটা বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু বিজ্ঞাপনটা  চাপা হয়ে গেছে! ক্রিকেট গ্রহে বিপণনের জন্য শচীন টেন্ডুলকার এখনো বড় এক নাম। কিন্তু সেই নামের অপব্যবহার দেখে গেলো ছাপার অক্ষরে! তবে এনিয়ে তুলকালাম কিছু ঘটেনি এখানে!

কিন্তু ‘ট্র্যান্স তাসমান ব্যাটেল’ নিয়ে তুলকালাম হচ্ছে। বিবৃতির লড়াই শুরু হয়েছে ম্যাচের দিন দু’য়েক আগে থেকে। স্যার রিচার্ড হ্যাডলি যেমন নিউজিল্যান্ডের দুই নতুন বলের বোলারকে বলেছেন তাদের ওয়ানডে ইতিহাসের সেরা বোলিং জুটি হিসেবে। পাল্টা জবাব দিতে গিয়ে অস্ট্রেলিয়ার বোলিং কোচ ক্রেইগ ম্যাকডারমট দাবি করেছেন, আমাদের দলে যারা প্রথম একাদশে সুযোগ পাবে না, তারাও অনেক দলের নতুন বলের বোলারের চেয়ে অনেক ভয়াঙ্কর। ’

খোঁচাটা দিয়েছেন তিনি টিম সাউদি ৭ উইকেট নেয়ার পর তাকে নিয়ে যারা হৈচৈ করছেন তাদের! আর ম্যাচের একদিন আগে সেই টিম সাউদি প্র্যাকটিসের সময় আহত হয়েছেন এক টিমমেটের ছোড়া বলের আঘাতে। মাঠে পড়েও গিয়েছিলেন তিনি। তবে সব শেষ খবর হচ্ছে তিনি খেলবেন।

ইডেন পার্কে হাজার চল্লিশেক দর্শকের সামনে তিনি নিজের সেরাটা দিতে প্রস্তুত বলে সাংবাদিকদের জানানো হয়েছে নিউজিল্যান্ড টিম ম্যানেজমেন্টের পক্ষ থেকে। প্রস্তুত রস টেলর থেকে ব্র্যান্ডন ম্যাককালাম। উল্টো দিকে বসে নেই অস্ট্রেলিয়ানরাও। প্রথম ম্যাচের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে তাদের দ্বিতীয় ম্যাচটা ব্রিসবেনে ভেসে গেছে বৃষ্টিতে। তাই তৃতীয় ম্যাচটা বাড়তি গুরুত্ব পাচ্ছে অস্ট্রেলিয়ার কাছে। এই ম্যাচ দিয়েই অনেকদিন পরে দলে ফিরছেন অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। তার ফেরা মানে জর্জ বেইলির প্যাভিলিয়নে বসে থাকা। একাদশে জায়গা হচ্ছে না বেইলির। সেটা বেইলি নিজেও জানেন। প্র্যাকটিসে তাই লম্বা লম্বা ছক্কা মারার মহড়া দিলেন! কিন্তু ইডেন পার্কের বাউন্ডারির সাইজ যা, তা যদি বাংলাদেশের কোনো মাঠের হতো তাহলে ক্রিকেট বিশ্বে বোধহয় হৈচৈ শুরু হয়ে যেতো!  স্কোয়ার লেগ এলকা দিয়ে বল বাউন্ডারিতে পাঠাতে ৫০ মিটারও পার করতে হবে না ব্যাটসম্যানকে!

ইডেন পার্কের গ্যালারির ধারণ ক্ষমতাও মনে হলো একটু বাড়ানো হয়েছে। আশা করা হচ্ছে হাজার চল্লিশেক দর্শক খেলা দেখবেন। যাদের বেশিরভাগই গলা ফাটাবেন কিউইদের হয়ে! তবে সেই চেঁচামেচি অস্ট্রেলিয়ার উপরে কোনো প্রভাব পড়বে বলে মনে করেন না তাদের টিম ম্যানেজমেন্ট। তাদের ভাষ্য ‘অস্ট্রেলিয়ানরা ৯০ হাজার দর্শকের সামনে খেলতে অভ্যস্ত। চল্লিশ হাজার মানুষের গলার আওয়াজ তাদের কানে পৌঁছাবে না!’

তবে শচীন টেন্ডুলকারকে নিয়ে ইন্ডিয়ান উইকেন্ডার বড় আওয়াজ দিয়েও যে মিনমিনে গলায় জানালো; শচীনের অনুষ্ঠানটা বাতিল করা হয়েছে! তারা হয়তো ভুলে গেছেন শচীন আইসিসি ওয়ার্ল্ড কাপের ব্র্যান্ড অ্যাম্বেসেডরও বটে! তার ইমেজের এরকম খারাপ বিজ্ঞাপন ক্রিকেট বিশ্ব আগে কখনো দেখেছে কি?

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩০ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৫

** ব্রিলিয়ান্ট! সুপার! গ্রেট! অঘোর মন্ডল, মেলবোর্ন থেকে
** বাংলাদেশের ব্র্যান্ড সাকিব!|| অঘোর মন্ডল, মেলবোর্ন থেকে
** মিরপুর টেক্কা দিচ্ছে মেলবোর্নকে ॥ অঘোর মন্ডল, মেলবোর্ন থেকে
** অস্ট্রেলীয় ক্রিকেট সংস্কৃতি নিয়ে বাকযুদ্ধ ॥ অঘোর মন্ডল, মেলবোর্ন থেকে
** নীল-হলুদ নাকি লাল-সবুজের ঢেউ ॥ অঘোর মন্ডল, মেলবোর্ন থেকে
** চোক’ কি ক্রিকেটীয় জোক?। । অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে
** ব্রিসবেনে আক্ষেপের উল্টোপিঠে স্বস্তিও॥ অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে
** সাকিব-ই সেরা মানতে অসুবিধা কোথায়!॥ অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে
** ব্রিসবেনে আক্ষেপের উল্টোপিঠে স্বস্তিও॥ অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে
** বৃষ্টিবিলম্বিত ক্লার্কের ফেরা! না থেকেও আছেন আশরাফুল॥ ব্রিসবেন থেকে অঘোর মন্ডল
** শঙ্কার চোরা স্রোত ব্রিসবেনে॥ অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে
** ম্যাচের নায়করা ছিলেন বাইশ গজের বাইরে। । অঘোর মন্ডল, ক্যানবেরা থেকে
** ‘সি’ ফর ক্রিকেট নাকি সাইক্লোন!॥ অঘোর মন্ডল, ব্রিসবেন থেকে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa