ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৭, ০৩ ডিসেম্বর ২০২০, ১৬ রবিউস সানি ১৪৪২

ক্রিকেট

ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত ভারতীয় ক্রিকেটাররা!

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৭ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ২৭, ২০১৫
ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত ভারতীয় ক্রিকেটাররা! শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাহী কমিটির সদস্য শামি সিলভা (বাঁয়ে)

ঢাকা: শ্রীলংকার নতুন ক্রীড়া মন্ত্রী নাভিন দিশানায়েকের কাছে চিঠি দিয়ে ভারতীয় ক্রিকেটারদের ওপর ম্যাচ ফিক্সিং তদন্ত করার অনুরোধ করেছেন শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ডের নির্বাহী কমিটির সদস্য শামি সিলভা।

চিঠিতে নতুন করে একটি তদন্ত কমিটি গঠনের আবেদন করেন সিলভা।



২০১০ সালে শ্রীলংকার ডাম্বুলায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপ চলাকালীন সময়ে ভারতীয় এক ক্রিকেটার এক নারীর সঙ্গে হোটেলে রাত যাপন করেন। ধারনা করা হয়, ওই  মহিলার সঙ্গে জুয়াড়িদের যোগাযোগ ছিল।   সিসি টিভির ফুটেজের মাধ্যমে দেখা যায় ক্রিকেটারটি ছিলেন সুরেশ রায়না। পরে বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট সেই নারীকে সুরেশ রায়নার এজেন্ট বলে পরিচয় দেন।
 
২০১০ সালে শ্রীলংকায় অনুষ্ঠিত এশিয়া কাপে ভারতীয় ক্রিকেটাররা ম্যাচ ফিক্সিংয়ে জড়িত ছিল- এমনটাই ধারণা করছেন শামি সিলভা।

সিলভা তার চিঠিতে আরো লিখেন,  ক্রীড়া মন্ত্রনালয়ের তদন্ত করা খুব জরুরি, অপ্রয়োজনীয় হস্তক্ষেপ এড়াতে তদন্তের দায়িত্ব নিরপেক্ষ ব্যক্তির ওপর ন্যস্ত করা উচিত। সর্বোচ্চ গুরু্ত্ব দিয়ে এই বিষয়টা বিবেচনায় আনা উচিত। আমি বিনীতভাবে অনুরোধ করছি, যত দ্রুত সম্ভব তদন্তের জন্যে একটি বিশেষ কমিটি নিয়োগ দেয়া হোক। ’

আইপিএল স্পট ফিক্সিং কান্ডের তদন্তে থাকা বিচারপতি মুকুল মুদগাল কমিটির নজরেও ছিলেন এই ভারতীয় ব্যাটসম্যান। ব্রিটেনের ‘ডেইলি মিরর’ পত্রিকা দাবি করেছে মুদগাল কমিটিকে সহায়তা করেনি শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ড।

পরে আবার শ্রীলংকান ক্রিকেট বোর্ড মুগদাল কমিটির সহযোগিতা চাইলে তা পায়নি লংকান বোর্ড। শ্রীলংকা ক্রিকেট বোর্ডের সিনিয়র কর্মকর্তা নিশান্ত রনতুঙ্গা জানান, ‘ভারতীয় বোর্ড আমাদের জানায় মুগদাল কমিটিকে সহযোগিতা করতে। আমরা সঙ্গে সঙ্গে তদন্ত কমিটিকে জানাই আমরা তাদের সাহায্য করার জন্য প্রস্তুত। কিন্তু তারপর তারা আর যোগাযোগ করেনি। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৫০০ ঘণ্টা, ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa