ঢাকা, শনিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

খেলা

আত্মঘাতী গোলে কুপোকাত মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা

স্পোর্টস ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৪০৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ৫, ২০১৫
আত্মঘাতী গোলে কুপোকাত মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা ছবি: সংগৃহীত

ঢাকা: আগের ম্যাচে স্প্যানিস জায়ান্ট রিয়াল মাদ্রিদের পরাজয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে উঠতে মাঠে নেমেছিল আরেক স্প্যানিস জায়ান্ট বার্সেলোনা। কিন্তু সে সুযোগ মেলেনি কাতালান ক্লাবটির।

নিজেদের আত্মঘাতী গোলে পিছিয়ে পড়ে ম্যাচে ঘুরে দাঁড়াতে পারেনি মেসি-নেইমার-সুয়ারেজরা।

রিয়াল সোসিয়েদাদের ঘরের মাঠে এ দিন আতিথ্য গ্রহণ করে বার্সা। কাতালানদের কোচ লুইস এনরিক ম্যাচের শুরুর একাদশে মাঠে নামাননি আর্জেন্টাইনন তারকা লিওনেল মেসি আর ব্রাজিল তারকা নেইমারকে। এনরিক ৪-৩-৩ ফরমেটে মাঠে পাঠান ব্রাভো, মন্তোয়া, মাসচেরানো, জেরেমি ম্যাথউ, জরদি আলবা, জাভি, বাসকুয়েটস, ইনিয়েস্তা, মুনির আল হাদ্দাদি, লুইস সুয়ারেজ আর পেদ্রোকে।

ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটেই গোল পেয়ে যায় স্বাগতিক হিসেবে খেলতে নামা সোসিয়েদাদ। প্রতিপক্ষের জোড়ালো শট ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজেদের জালেই হেড করে বল জড়িয়ে দেন বার্সার ডিফেন্ডার জরদি আলবা। ফলে, ১-০ গোলের লিড পায় সোসিয়েদাদ।

ম্যাচের ৩৬তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুন করার সুযোগ পেয়েছিল সোসিয়েদাদ। রিয়াল মাদ্রিদ আর ভ্যালেন্সিয়ার সাবেক তারকা ফুটবলার ক্যানালেস একক প্রচেষ্টায় বল নিয়ে ঢুকে পড়েন বার্সার ডি বক্সে। ক্যানালেস জোড়ালো শট নিলেও তা রুখে দেন কাতালান গোলরক্ষক ক্লদিয়ো ব্রাভো। ফলে, নিশ্চিত গোলের হাত থেকে রক্ষা পায় এনরিকের বার্সা।

প্রথমার্ধের অতিরিক্ত সময় না পাওয়া দুই দলের আর কোনো গোল না হলে জরদি আলবার আত্মঘাতী গোলের সুবাদে এগিয়ে থেকে বিরতিতে যায় ডেভিড ময়েসের সোসিয়েদাদ।

বিরতির পরে বার্সার কোচ এনরিক মুনির আল হাদ্দাদিকে তুলে তার বদলি হিসেবে মাঠে নামান লিওনেল মেসিকে। আর ম্যাচের ৫৮তম মিনিটে পেদ্রোকে তুলে মাঠে পাঠান নেইমারকে। কিন্তু তাতেও গোলের দেখা পাচ্ছিলো না বার্সা। ম্যাচের ৭০ মিনিটের মাথায় সুয়ারেজ বল বাড়িয়ে দেন নেইমারকে। কিন্তু গোলবারে বল শট নেওয়ার আগেই সোসিয়েদাদের গোলরক্ষক রুল্লি তা ক্লিয়ার করেন।

৮৫ মিনিটের মাথায় সুয়ারেজ আরো একটি গোলের সুযোগ নষ্ট করেন। সোসিয়েদাদের গোলরক্ষক রুল্লিকে একা পেয়েও গোল আদায় করে নিতে পারেননি উরুগুয়ের তারকা। পরের মিনিটে সুয়ারেজের আরেকটি প্রচেষ্টা ব্যর্থ করে দেন রুল্লি। সুয়ারেজের একটি হেড রুখে দেন তিনি।

ম্যাচের বাকি সময়ে আর কোনো গোল না হলে জরদি আলবার আত্মঘাতী গোলের সুবাদে বার্সাকে হারিয়ে জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে ডেভিড ময়েসের রিয়াল সোসিয়েদাদ।

আর এ পরাজয়ের ফলে বার্সার পয়েন্টে কোনো হেরফের হয়নি। ১৭ ম্যাচে ১২ জয়, দুই ড্র আর তিনটি পরাজয় নিয়ে কাতালানদের সংগ্রহ ৩৮ পয়েন্ট। শীর্ষে থাকা রিয়াল এক ম্যাচ কম খেলে বার্সার সমান পয়েন্ট অর্জন করেছে।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৫৬ ঘণ্টা, ০৫ জানুয়ারি ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।