bangla news

সেমিতে নিউজিল্যান্ড, বিদায় চোকার্স দ. আফ্রিকার

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০৩-২৫ ২:২৯:৫৫ এএম

‘চোকার্স’ দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিদায় করে সেমিফাইনালে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। বিশ্বকাপের তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে প্রোটিয়াসদের ৪৯ রানে হারায় কিউইরা।

ঢাকা: ‘চোকার্স’ দক্ষিণ আফ্রিকাকে বিদায় করে সেমিফাইনালে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। বিশ্বকাপের তৃতীয় কোয়ার্টার ফাইনালে প্রোটিয়াসদের ৪৯ রানে হারায় কিউইরা।

নিউজিল্যান্ড: ২২১/৮ (৫০ ওভার)
দক্ষিণ আফ্রিকা: ১৭২ ( ৪৩.২ ওভার)
ফল: নিউজিল্যান্ড ৪৯ রানে জয়ী

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টস জিতে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় ড্যানিয়েল ভেট্টরির দল। ব্যাট করতে নেমে শুরুতে ধাক্কা খায় কিউইরা। দ্বিতীয় ওভারের প্রথম বলেই রবিন পিটারসনের হাতে ফিরতি ক্যাচ দেন ওপেনার ব্রেন্ডন ম্যাককারাম। অন্যওপেনার মার্টিন গুপটিল হন ক্যাচ আউট। ডেল স্টেইনের বল মারতে গিয়ে বোথার হাতে ধরা পড়েন ডানহাতি এই ব্যাটসম্যান। দলের রান তখন ১৬।

পরপর দুই উইকেট হারিয়ে ব্যাটিং বিপর্যয়ে পড়ে নিউজিল্যান্ড। তৃতীয় উইকেটে রস টেলর ও জেসি রাইডারের দায়িত্বশীল ব্যাটিংয়ে প্রাথমিক বিপদ সামাল দেয় তারা। এ জুটিতে আসে ১১৪ রান।

ইমরান তাহিরের বল উড়িয়ে মারতে গিয়ে ডিপ স্কোয়ার লেগে ক্যালিসের হাতে ধরা পড়েন টেলর (৪৩)। জুটি ভাঙ্গতে রীতিমতো পরীক্ষা দিতে হয়েছে দুর্দান্ত ফর্মে থাকা প্রোটিয়াস বোলাদের। তবে প্রোটিয়াসদের ওপর তান্ডব চালিয়েছেন জেসি রাইডার। তাহিরের দ্বিতীয় শিকার হওয়ার আগে ১২১ বলে ৮৩ রান করেন এই ব্যাটসম্যান। আটটি চারের মার ছিলো তার ইনিংসে। মাঝে আরেকটি উইকেট হারায় নিউজিল্যান্ড। মর্নে মর্কেলের বলে ব্যক্তিগত ১৬ রানে বোল্ড হন স্কট স্টাইরিস।

ফিল্ডারদের চোখধাঁধানো ফিল্ডিং আর বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়েই মূলত বড় স্কোর গড়তে পারেনি নিউজিল্যান্ড। শেষপর্যন্ত কেন উইলিয়ামসনের অপরাজিত ৩৮ রানের সুবাদে আট উইকেট হারিয়ে ২২১ রান তুলতে সমর্থ হয় ভেট্টরিরা।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি দক্ষিণ আফ্রিকার। সত্যি বলতে কি, নিউজিল্যান্ডের বোলিংয়ের সামনে স্রেফ উড়ে গেছে দলটি। শুরুর ধাক্কা সামলে ম্যাচে ফেরার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন জ্যাক ক্যালিস, প্লেসিস আর স্মিথরা। কিন্তু পারেননি। তাই পরাজিত হয়েই মাঠ ছাড়ে চোকার্স খ্যাত দক্ষিণ আফ্রিকা।

প্রথম ওভারেই দুর্বার আমলাকে (৭) আউট করেন স্পিনার নাথান ম্যাককালাম। দ্বিতীয় উইকেটে ৬১ রানের জুটি পায় দক্ষিণ আফ্রিকা। জ্যাকব ওরামের বলে গ্রায়েম স্মিথ আউট হলে জুটি ভাঙ্গে। বিদায়ের আগে দুটি চারের সাহায্যে ২৮ রানে করেন বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।

অল্পের জন্য অর্ধশতক করতে পারেননি জ্যাক ক্যালিস। ব্যক্তিগত ৪৭ রানে ওরামের দ্বিতীয় শিকার হন এই অল-রাউন্ডার। ক্যালিসের বিদায়ের পরই দলীয় ১২১ মধ্যে দুই উইকেট হারায় দক্ষিণ আফ্রিকা। রানআউট হন এবি ডি ভিলিয়ার্স (৩৫) আর নাথান ম্যাককালামের বলে বোল্ড হন জেপি ডুমিনি (৩)।

এরপরই শুরু হয় ব্যাটসম্যানদের যাওয়া-আসার মিছিল। বোথা (২), পিটারসন (০), ডেল স্টেইন (৮) ও ফাফ ডু প্লেসিস (৩৬) বিদায় নিলে ১৭২ রানেই গুটিয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকা। তখনো বাকি ছিলো ৪০ বল।

৩৯ রানে চারটি উইকেট নিয়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ইনিংসে ধ্বস নামান জ্যাকব ওরাম। এছাড়া ২৪ রান খরচায় তিনটি উইকেট নেন নাথান ম্যাককালাম।  

বাংলাদেশ সময়: ২১৫৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৫, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
db 2011-03-25 02:29:55