bangla news

মা ও স্ত্রীকে জয় উৎসর্গ রোমেরোর

1909 |
আপডেট: ২০১৪-০৭-১০ ৮:৫০:০০ এএম

টাইব্রেকারে ডাচদের দুটি শট রুখে দিয়ে সেমিফাইনালের নায়ক বনে গেছেন আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো৷ কিন্তু পেনাল্টি শুটআউট যে অনেকটাই ভাগ্যের উপর নির্ভর করে, তা নিজেই স্বীকার করে নিলেন রোমেরো।

ঢাকা: টাইব্রেকারে ডাচদের দুটি শট রুখে দিয়ে সেমিফাইনালের নায়ক বনে গেছেন আর্জেন্টিনার গোলরক্ষক সার্জিও রোমেরো৷ কিন্তু পেনাল্টি শুটআউট যে অনেকটাই ভাগ্যের উপর নির্ভর করে, তা নিজেই স্বীকার করে নিলেন রোমেরো।

দেশের হয়ে ৫৩ ম্যাচে গোলবারের দায়িত্ব পালন করা রোমেরো বলেন, ‘পেনাল্টি অনেকটা ভাগ্যের উপর নির্ভর করে। আর এটাই বাস্তবতা। আমার আত্মবিশ্বাস ছিল আমি পারব, ঈশ্বরকে ধন্যবাদ সবকিছু ঠিক মতো হয়েছে বলে।’

২৭ বছর বয়সী এ গোলরক্ষক ডাচ তারকা রন ভ্লার এবং স্নেইডারের গোল রুখে দিয়ে আর্জেন্টিনাকে ফাইনালে তোলার জন্য ভূমিকা রেখেছেন। মোনাকের হয়ে ধারে খেলা রোমেরো আরো বলেন, ‘আমরা বেশ খুশি এবং আমরা আগামীকাল থেকে ফাইনালের জন্য প্রস্তুতি নিব। তবে আজকের দিনটি শুধু উপভোগ করতে চাই।’

গত মৌসুমে ফ্রেঞ্চ লিগ ওয়ানে মোনাকোর হয়ে বেশির ভাগ সময় সাইড বেঞ্চে সময় কাটিয়েছেন। রোমেরোকে তাই দলে রাখায় অনেকে সমালোচনা করেছিলেন আর্জেন্টাইন ফুটবল ফেডারেশনকে। এই রোমেরোর নৈপূণ্যেই এবার তারা স্বপ্নের ফাইনালে উঠেছে।

ছয় ফুট চার ইঞ্চি লম্বা রোমেরো বলেন, ‘এই জয়ে এবং ফাইনালে উঠায় আমি খুব খুশি। আমি আমার মা এবং স্ত্রীকে এই জয় উৎসর্গ করলাম।’

জার্মানির বিপক্ষে ফাইনালে রোমেরোকে আবারো আর্জেন্টাইনদের গোলবার রক্ষার দায়িত্ব নিতে হবে। এখন পর্যন্ত অপরাজিত থাকা দলটির কঠিন দায়িত্ব নিতে প্রস্তুত বলে জানান রোমেরো।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮ ঘণ্টা, ১০ জুলাই ২০১৪

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2014-07-10 08:50:00