bangla news

ভয়ে কেঁদেছিলেন রুবেল!

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১১-০১-৩১ ৯:০০:৪৬ এএম

আগের দিন কেঁদে ফেলে ছিলেন রুবেল হোসেন। হাতের আঙ্গুলে চোট লাগায় ভয় হচ্ছিলো, স্বপ্নের বিশ্বকাপে খেলা বোধহয় শেষ হয়ে যায়। ফিজিও মাইকেল হেনরি অভয় দেওয়ার পরেই না স্বস্তি পেয়েছেন।

ঢাকা: আগের দিন কেঁদে ফেলে ছিলেন রুবেল হোসেন। হাতের আঙ্গুলে চোট লাগায় ভয় হচ্ছিলো, স্বপ্নের বিশ্বকাপে খেলা বোধহয় শেষ হয়ে যায়। ফিজিও মাইকেল হেনরি অভয় দেওয়ার পরেই না স্বস্তি পেয়েছেন।

তামিমের ব্যাট থেকে আসা একটি বল থামাতে গিয়ে ডান হাতের মধ্যমা আঙ্গুলে রোববার চোট পান পেসার রুবেল হোসেন। সঙ্গে সঙ্গে আঙ্গুল ফুলে যায়। ব্যথাও হয়। কিন্তু রাতে ওষুধ সেবনের পর ব্যথা কমে গেছে বলে জানালেন রুবেল।

খেলোয়াড়দের জীবনে চোট সাধারণ ঘটনা। তাই বলে কেঁদে ফেলতে হবে! উত্তরটা রুবেলের মুখেই শোনাযাক,“আসলে আমি একের পর এক চোটাক্রান্ত হচ্ছি। প্রথমে পাঁজরের পাশের পেশিতে টান পড়ে। গতবছর জিম্বাবুয়ে সফরে তো খেলতেই পারলাম না। এরপর উরুর পেশিতে টান লেগেছিলো। কোমরের চোট সারিয়ে সবে দলে ফিরেছি। এখন আবার ব্যথা পেলে ভালো লাগে বলেন? সেই জন্যই কেঁদে ফেলেছি।”

রুবেলের আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ার বেশি দিনের নয়। নিজেকে গড়ে তোলার মুহূর্তেই আঘাত হানা দিচ্ছে ক্যারিয়ারে। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে সবাই যখন দাপটের সঙ্গে খেলেছেন রুবেল তখন রিজার্ভের দর্শক। কোমরে চোট থাকায় খেলা হয়নি বেশিরভাগ ম্যাচ।

তবে রুবেলের বিশ্বকাপ খেলা নিয়ে অন্তত এই মুহূর্তে সংশয় নেই। বরং কয়েকদিনের বিশ্রামের পর অনুশীলনে কাজে দেবে। নিজের প্রথম বিশ্বকাপে উজার করে খেলার জন্য তৈরি হতে পারবেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৭৪৪ ঘন্টা, জানুয়ারি ৩১, ২০১১

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2011-01-31 09:00:46