ঢাকা, রবিবার, ১০ চৈত্র ১৪২৫, ২৪ মার্চ ২০১৯
bangla news

হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের আভাস সাকিব-তামিমদের

35 |
আপডেট: ২০১৩-১২-৩০ ৮:১৪:৫২ এএম
ছবি: (ফাইল ফটো: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম)

ছবি: (ফাইল ফটো: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম)

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মহড়া টুর্নামেন্ট বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টির ফাইনাল কাগজে কলমে সমানে সমান লড়াই হতে যাচ্ছে মঙ্গলবার।

ঢাকা: টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মহড়া টুর্নামেন্ট বিজয় দিবস টি-টোয়েন্টির ফাইনাল কাগজে কলমে সমানে সমান লড়াই হতে যাচ্ছে মঙ্গলবার। প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব ও ইউসিবি-বিসিবি একাদশ দুদলই শক্তিতে এক, তারকা ক্রিকেটারে ভরা যারা ধারাবাহিক পারফরমেন্স করে নিজ নিজ দলকে ফাইনালে তুলেছেন। আরেকটি দ্বৈরথ আছে, এটা হতে যাচ্ছে তামিম ও সাকিবের লড়াই।

চারটি দলকে নিয়ে শুরু হওয়া এই টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়েছে মাশরাফি মুর্তজার মোহামেডান স্পোর্টিং ক্লাব ও মুশফিকুর রহিমের আবাহনী লিমিটেড যারা নামে ছিল বেশ এগিয়ে। যদিও মোহামেডান শেষ পর্যন্ত লড়াই করে বাদ পড়েছে। কিন্তু আবাহনী অসহায় আত্মসমর্পণ করে বিদায় নিয়েছে।

শিরোপার লড়াইয়ে নামার আগে দুদলের পারফরমারদের নিয়ে বিচার বিশ্লেষণ করলে বোঝা যাবে কেউ কারও চেয়ে কম নয়। এক তামিম ইকবাল সঠিক সময়ে জ্বলে উঠেছিলেন মোহামেডানের বিপক্ষে। প্রথম পর্বের শেষ ম্যাচেই করেছেন টুর্নামেন্টের ব্যক্তিগত সেরা ১৩০ রান।

এই প্রতিযোগিতায় সেঞ্চুরি হয়েছে দুটি, অন্যটি তামিমদের ফাইনালের আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রাইম ব্যাংকের এনামুল হকের দখলে। তিনিও শতক পেয়েছেন মোহামেডানের বিপক্ষে। তামিম এক ম্যাচেই বাজিমাত করে এখন পর্যন্ত রানের তালিকায় সেরা, ছয় ম্যাচে একটি করে শতক ও ফিফটিতে ২৭৩ রান তার। এখানেও তার নিকটতম প্রতিপক্ষ এনামুল, সমান ম্যাচে সমান ফিফটি ও সেঞ্চুরিতে দুই রান কম এই ওপেনারের। প্রাইম ব্যাংকের আরেক তারকার উপর নির্ভর করতে পারে সাকিবরা। সাব্বির রহমান তিনটি ফিফটিতে টুর্নামেন্টের ধারাবাহিক পারফরমার।

এক্ষেত্রে বিসিবির আরেক ব্যাটসম্যান ভালোই ফর্ম ধরে রেখেছেন। মিথুন আলীর উপর ভরসা করতে পারে তারা।

বোলিংয়ের শীর্ষে বাদ পড়া মোহামেডানের দেওয়ান সাব্বির। ১১ উইকেট নিয়ে সবার উপরে থাকলেও নামতে বেশি সময় লাগবে না তার। কারণ একটি করে উইকেট কম নিয়ে তার পরে আছেন প্রাইম ব্যাংক অধিনায়ক সাকিব ও বিসিবি একাদশের হয়ে ডাবল হ্যাটট্রিক পাওয়া আল-আমিন হোসেন। এখানে পেস ও স্পিনের দ্বৈরথও দেখা যেতে পারে।

সাকিব বাহিনীর পেস আক্রমণে দারুণ ফর্ম ধরে রেখেছেন তাইজুল ইসলাম, ৯ উইকেট পেয়েছেন তিনি। আছেন ৮ উইকেট পাওয়‍া রুবেল হোসেন। তবে তামিমদের দলে স্পিনে ভরসা এনামুল হক জুনিয়র। তিনিও পেয়েছেন ৮ উইকেট।

দুদল মুখোমুখি লড়াইয়েও সমানতালে আছে। সিলেটের মাঠে তামিমদের সাত উইকেটে হারিয়েছিল সাকিবরা। কিন্তু মিরপুরে দ্বিতীয়বার পাঁচ উইকেটে জিতে শোধ তোলে বিসিবি। সর্বোচ্চ দলীয় সংগ্রহে আছে তাদের প্রতিদ্বন্দ্বিতা। দুদলই দুশ’র ঘরে রান করেছে।

সব মিলিয়ে বলা চলে মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে এদিন টানটান উত্তেজনার এক ফাইনাল হতে যাচ্ছে। যারা স্টেডিয়ামে যেতে পারবেন না তাদের সুবিধার জন্য খেলাটি সরাসরি সম্প্রচার করবে ‍বাংলাদেশ টেলিভিশন। লড়াই শুরু হবে বেলা আড়াইটায়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫৬ ঘণ্টা, ৩০ ডিসেম্বর ২০১৩
সম্পাদনা: ফাহিম হোসেন মাজনুন, নিউজরুম এডিটর

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14