ঢাকা, সোমবার, ২ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

শেয়ারবাজার

দরপতনে চর্তুথ দিন পার করলো শেয়ারবাজার

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৫
দরপতনে চর্তুথ দিন পার করলো শেয়ারবাজার

ঢাকা: দেশের শেয়ারবাজারে টানা দরপতন অব্যাহত রয়েছে। ব্যাংকের বিনিয়োগ সীমা নিয়ে নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর বৈঠকের খবরে বৃহস্পতিবার (২৯ অক্টোবর) লেনদেনের শরুতে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিলেও শেষ পর্যন্ত তা অব্যাহত থাকেনি।

ফলে টানা চতুর্থ দিনের মতো দরপতন ঘটেছে শেয়ারবাজারে।

সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার লেনদেন শেষে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ডিএসইএক্স সূচক কমেছে ১৪ পয়েন্ট। অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সিএসইএক্স সূচক কমেছে ২৪ পয়েন্ট।
 
সূচকের পতন ঘটলেও দুই বাজারেই এদিন লেনদেন বেড়েছে। দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হয়েছে ৪৫৬ কোটি ৪ লাখ টাকা। যা আগের দিনের তুলনায় ১৯৩ কোটি ৪৮ লাখ টাকা বেশি। আর সিএসইতে লেনদেন হয়েছে ২৬ কোটি ৫৩ লাখ টাকা। যা আগের দিনের তুলনায় ৪ কোটি ৯ লাখ টাকা বেশি।

এদিন লেনদেনের শুরুতেই উভয় বাজারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দেয়। লেনদেনের গতিও ছিলো বেশ ভালো। বাংলাদেশ ব্যাংকে শেয়ারবাজার ও অর্থিক খাতের বিভিন্ন নিয়ন্ত্রক সংস্থাগুলোর সমন্বয় সভাকে কেন্দ্র করে এ ইতিবাচক প্রভাব দেখা দেয়।

সমন্বয় সভায় শেয়ারবাজারে ব্যাংক ও ব্যাংকবহির্ভূত আর্থিক প্রতিষ্ঠান এবং এদের সহযোগী মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকার ডিলারদের বিনিয়োগ হিসাব গণনা পদ্ধতি পুনঃমূল্যায়ন বিষয়ে আলোচনা হবে বলে লেনদেনের শরুতেই শেয়ারবাজারে গুঞ্জন ছড়িয়ে পড়ে।
 
বাংলাদেশ ব্যাংক, শেয়ারবাজার নিয়ন্ত্রক বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি), বিমা খাতের নিয়ন্ত্রক বিমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষ (আইডিআরএ) এবং যৌথ মূলধনী কোম্পানিগুলোর নিবন্ধক সংস্থা আরজেএসসির কার্যক্রমে সমন্বয় রাখতে নিয়মিত এ সভার আয়োজন করা হয়।

এ সভাকে কেন্দ্র করে শুরুতে শেয়ারবাজারে ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতা দেখা দিলেও শেষ পর্যন্ত তা অব্যহত থাকেনি। সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে নেতিবাচক প্রভাব পড়তে থাকে লেনদেন ও সূচকে। আর লেনদেনের শেষ আধা ঘণ্টায় এসে সূচকের পতন ত্বরান্বিত হয়। এ সময় লেনদেন হওয়া অধিকাংশ প্রতিষ্ঠানই দর হারায়।

দিন শেষে ডিএসইতে লেনদেন হওয়া ১৫১টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও মিউচ্যুয়াল ফান্ড ইউনিট আগের দিনের তুলনায় দর হারিয়েছে। অপরদিকে দাম বেড়েছে ১১৪টির এবং অপরিবর্তীত রয়েছে ৫৪টি।

অপর বাজার সিএসইতি দেলনদেন হওয়া প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ১৩৩টি দর হারিয়েছে। অপরদিকে আগের দিনের তুলনায় দাম বেড়েছে ৬৮টির এবং অপরিবর্তীত আছে ৩৩টি।

লেনদেনের ভিত্তিতে (টাকায়) ডিএসইতে শীর্ষ দশ কোম্পানির তালিকায় রয়েছে- কেপিসিএল, স্কয়ার ফার্মা, এসপিসিএল, ইফাদ অটোস, এসিআই, লাফার্জ সুরমা সিমেন্ট, গ্রামীণফোন, বেক্সিমকো ফার্মা, বারাকা পাওয়ার ও সিঙ্গার বিডি।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৫৪ ঘণ্টা, অক্টোবর ২৯, ২০১৫
এএসএস/জেডএস

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।