bangla news

পলান সরকারের চলে যাওয়া, রাজাকারের তালিকায় টিপুর নাম

শরীফ সুমন, সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৯-১২-৩১ ৯:২১:৩৫ পিএম
পলান সরকার ও গোলাম আরিফ টিপু

পলান সরকার ও গোলাম আরিফ টিপু

রাজশাহী: কনকনে শীতের কুয়াশাচ্ছন্ন রাত পেরুলেই পূর্বাকাশে দেখা দেবে নতুন বছরের সূর্য। তবে কুয়াশামোড়ানো শিশির ভেজা দুর্বাঘাসে সেই সূর্যালোকের ছোঁয়া নাও লাগতে পারে। কিন্তু ভোরের আলো ফুটুক বা কুয়াশাচ্ছন্নই থাকুক; বহু ঘটনার জন্ম দিয়ে মহাকালের পরিক্রমায় এরই মাঝে বিদায় নেবে আরও একটি বছর। দিনপঞ্জিকার শেষ পাতাটি যাবে উল্টে।

নানান কাজের ফিরিস্তি লেখা নিত্যসঙ্গী পকেট ডায়রিটা সাবেক হবে। ঝরা পল্লবের মতো গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডারের পাতা থেকে খসে পড়বে আরও একটি বছর। তবে বিগত বছরগুলোর মতো রাজশাহীতে এবার বড় ধরনের অঘটনের খবর নেই। এর পরও বছরজুড়েই আলোচনায় ছিল নানান ধরনের ঘটনা। কখনও হারানোর বেদনায় কাতর আবার কখনও অন্যায়ের বিরুদ্ধে সোচ্চার হয়ে ওঠেন রাজশাহীবাসী। তা নিয়েই পদ্মাপাড়ের মানুষগুলোর মনের গহ্বরে জমা পড়েছে স্মৃতির পলি। যোগ হয়েছে নানা প্রাপ্তি ও অপ্রাপ্তির সুখ-দুঃখ, হাসি-বেদনা আর বজ্রকণ্ঠের প্রতিবাদ।

পলান সরকারের চলে যাওয়া
হাসি আনন্দে বছর শুরুর পর ১ মার্চ বেলা ১২টার দিকে খবর আসে স্বপ্নের ফেরিয়ালা সাদা মনের মানুষ বইওয়ালা পলান সরকার আর নেই। রাজশাহীর বাঘা উপজেলা বাউশার নিজ বাড়িতে শেষনিঃশ্বাস ত্যাগ করেছেন তিনি। এ খবরে রাজশাহীসহ গোটাদেশেই শোকের ছায়া নেমে আসে। ৯৭ বছর বয়সে সবাইকে ছেড়ে চলে যান তিনি।

রাজশাহীর প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে বইপড়া আন্দোলন গড়ে তুলে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিলেন তিনি। তিনি ছিলেন আলোর বাতিঘর। সামাজিকভাবে অবদান রাখায় পলান সরকার ২০১১ সালে রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা ‘একুশে পদক’ লাভ করেন।

রুয়েট ছাত্রীকে যৌন হয়রানি
গত ১০ আগস্ট বখাটেদের হাতে যৌন হয়রানির শিকার হন রাজশাহী প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (রুয়েট) এক শিক্ষার্থী। এ ঘটনার প্রতিবাদ করায় রুয়েটের ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড ইলেকট্রনিক্স ইঞ্জিনিয়ারিং (ইইই) বিভাগের এক শিক্ষক মারধরের শিকার হন। এ নিয়ে রাজশাহীতে ব্যাপক সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। ঘটনাটির বর্ণনা দিয়ে পরে ওই ছাত্রী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিলে তা ভাইরাল হয়ে যায়।

অধ্যক্ষকে পুকুরে ফেলে দেয় ছাত্রলীগ
গত ২ নভেম্বর দুপুরে অকৃতকার্য শিক্ষার্থী ছাত্রলীগ নেতা সৌরভকে পরীক্ষা দেওয়ার সুযোগ না দেওয়ার ঘটনাকে কেন্দ্র করে রাজশাহী পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষকে লাঞ্ছিত করা হয়। ক্যাম্পাস মসজিদ থেকে জোহরের নামাজ পড়ে বের হওয়ার পর ছাত্রলীগ নেতা সৌরভ ও তার অনুসারীরা অধ্যক্ষকে টেনে-হেঁচড়ে পুকুরে ফেলে দেয়। 

এ ঘটনায় সারাদেশে সমালোচনা ঝড় বয়ে যায়। ওই রাতেই ছাত্রলীগের সাত নেতাকর্মীর নামোল্লেখসহ ৫০ জন অজ্ঞাতপরিচয় শিক্ষার্থীর নামে মামলা করেন অধ্যক্ষ। ঘটনার পর ছাত্রলীগের পলিটেনিক শাখা ইউনিটের কমিটি বাতিলসহ কার্যক্রম স্থগিত করা হয়। ছাত্রলীগ ও ইনস্টিটিউট থেকে সাময়িক বহিষ্কার হয় অভিযুক্তদের। এছাড়া আলাদাভাবে গঠিত হয় দু’টি তদন্ত কমিটি।

পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দেন কৃষক
ডিসেম্বরের শুরুতে সারা দেশের মতো রাজশাহীতেও দেখা দেয় পেঁয়াজ সংকট। পেঁয়াজের দাম লাফিয়ে উঠে যায় ২৫০ টাকা কেজিতে। এ ঘটনায় রাজশাহীর পুঠিয়া-দুর্গাপুর ও বাঘাসহ বিভিন্ন উপজেলায় চুরি আতঙ্কে দিনেও লাঠি হাতে নিয়ে পেঁয়াজ ক্ষেত পাহারা দেন কৃষক। জমিতে পেঁয়াজ চাষের পর চড়া দামের কারণে চুরির ভয়ে নির্ঘুম রাত কাটে কৃষকদের। কেবল রাত নয়, পাহারা দিতে হয় দিনেরও আলোতেও। তবে এর আগে কখনও এভাবে পেঁয়াজের ক্ষেত পাহারা দিতে হয়নি বলে জানিয়েছেন কৃষকরা।

ট্রাইব্যুনালের গোলাম আরিফ টিপুও রাজাকার!
১৫ ডিসেম্বর মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রণালয় থেকে রাজাকারসহ স্বাধীনতাবিরোধীদের তালিকা প্রকাশ করা হয়। তালিকার ৮৯ নম্বর তালিকায় (ক্রমিক নম্বর ৬০৬) নাম এসেছে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর রাজশাহীর কৃতিসন্তান অ্যাডভোকেট গোলাম আরিফ টিপুসহ পাঁচজনের! অথচ এ পাঁচজন ও তাদের পরিবারের সদস্যরা ৭১’র যুদ্ধের সময় থেকে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তি ও আদর্শের মানুষ। এ ঘটনায় নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় ওঠে রাজশাহীসহ গোটাদেশে। পরে নাম প্রত্যাহার চেয়ে তিন মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেন আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের পাবলিক প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু। এ সময় প্রশাসনে থাকা রাজাকারদের খুঁজে বের করার দাবিও জানান টিপু।

বিয়ের দাওয়াত দিতে প্রাণ ঝরে ৫ জনের
ছোটবোন মাহবুবা আক্তার রেশমীর বিয়ের দিন ছিল ২৭ ডিসেম্বর। স্ত্রী ও সাত মাস বয়সী শিশুসন্তান ছিল শ্বশুরবাড়িতে। তাই বিয়ের আয়োজনের জন্য স্ত্রী-সন্তানকে আনতে গিয়েছিলেন বেসরকারি একটি সংস্থায় কর্মরত মেজবাহ উদ্দিন মাসুদ। উদ্দেশ্য ছিল, স্ত্রী-সন্তানকে বাড়িতে আনার পাশাপাশি শ্বশুরবাড়ির লোকদেরও বোনের বিয়েতে দাওয়াত দেওয়া। এজন্য সঙ্গে নিয়ে গিয়েছিলেন মা মাহমুদা বেগমকেও। দাওয়াত ঠিকঠাক দেওয়া হলেও সবাইকে নিয়ে আর ঘরে ফেরা হয়নি মাসুদের। এর আগেই ঘাতক ট্রাক কেড়ে নেয় একই পরিবারের চার সদস্যের প্রাণ। প্রাণ যায় একই গ্রামের সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক জালাল উদ্দিনেরও।

ঋত্বিক ঘটকের পৈত্রিক আবাস ভেঙে গ্যারেজ নির্মাণ
২২ ডিসেম্বর থেকে আন্তর্জাতিক খ্যাতিসম্পন্ন চলচ্চিত্রকার ঋত্বিক ঘটকের পৈত্রিক ভিটায় বাইসাইকেল গ্যারেজের নির্মাণকাজ শুরু করে রাজশাহী হোমিওপ্যাথিক মেডিক্যাল কলেজ। ঘটনা জানাজানির পর এ নিয়ে রাজশাহীসহ গোটা দেশে সাংস্কৃতিক অঙ্গনে ক্ষোভের সৃষ্টি হয়। পরে ২৪ ডিসেম্বর সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী এটি সংরক্ষণের জন্য রাজশাহীর জেলা প্রশাসককে নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ সময়: ২১০৩ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩০, ২০১৯
এসএস/ওএইচ/

        ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন  

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

Alexa
cache_14 2019-12-31 21:21:35