ঢাকা, সোমবার, ১৮ আশ্বিন ১৪২৯, ০৩ অক্টোবর ২০২২, ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

অপার মহিমার রমজান

‘শাহী জিলাপি’ মন ভোলাচ্ছে রাজশাহীর

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৫৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ৪, ২০২২
‘শাহী জিলাপি’ মন ভোলাচ্ছে রাজশাহীর শাহী জিলাপির প্যাঁচে প্যাঁচে রস। ছবি: বাংলানিউজ

রাজশাহী: রমজানের ‌ইফতার ধর্মপ্রাণ রোজাদারদের জন্য আল্লাহতায়ালার অনন্য এক উপহার এবং খুশির উপলক্ষ্য। দিন শেষে ইফতার করে রোজা ভাঙার সময় সবাই তাই ইফতারে একটু স্বতন্ত্র স্বাদ নিয়ে চায়।

সাধ ও সাধ্য অনুযায়ী কমবেশি সবাই চেষ্টা করে প্রতিদিনের ইফতারে নিয়মিত খাবারের পাশাপাশি কিছু বিশেষ খাবার রাখার। তাই বেলা পড়তেই অনেকেই ঢুঁ মারেন ইফতারের বাজারগুলোতে।

আর ইফাতারে অনেকেরই প্রিয় খাবার হচ্ছে জিলাপি। তাই রাজশাহীতে এখন বেলিফুল ও শামীম সুইটস’র শাহী জিলাপির কদর তুঙ্গে। আর রোজার জিলাপি বলে কথা। তাও আবার শাহী জিলাপি। এর প্যাঁচে প্যাঁচে রস। বিশেষত দুধ, ছানা ইত্যাদি ছাড়া যে, মিষ্টিগুলো আমাদের দেশে তৈরি হয়, তার মধ্যে জিলাপি অন্যতম। আর রমজান মাসে এ জিলাপি দিয়ে মিষ্টিমুখ করতে পছন্দ করেন রোজাদার। ফলে প্রতিবছর রোজা এলেই জিলাপির কদর দ্বিগুণ বেড়ে যায়।

রাজশাহীর বেলিফুল ও শামীম সুইটসের শাহী জিলাপির বেশ কদর রয়েছে মহানগরজুড়ে। পুরো রমজানে এর চাহিদা ব্যাপক। তাই নয়, বিভিন্ন মিলাদ মাহফিলেও জিলাপির স্থান মোটামুটি পাকাপোক্ত। ওপরের অংশ শক্ত ও মচমচে ভাজা। আর ভেতরে টসটসে রসে ভরা জিলাপি। আর দুগ্ধজাত মিষ্টির চেয়েও জিলাপি দামে সস্তা হওয়ায় সবাই এর স্বাদ নিতে পারেন প্রতিদিনের ইফতারে।

আজ দ্বিতীয় রমজান সোমবার (৪ এপ্রিল)। দুপুর গড়াতেই মহানগরীর এই দুই অভিজাত মিষ্টি বিপণীতে সদ্য ভেজে তোলা চিনির রসে ডোবানো গরম-গরম জিলাপির স্বাদ নিতে ক্রেতাদের জটলা বাড়তে শুরু করে। এতে জিলাপির জনপ্রিয়তাই প্রমাণ পায়।

ইফতারে নতুন আর ভিন্ন কিছু না থাকলে কী হয়? রাজশাহীর বিভিন্ন অভিজাত মিষ্টির বিপণীও তৈরি করছে ভিন্ন স্বাদের স্পেশাল শাহী জিলাপি। এর মধ্যে শাহী জিলাপি ছাড়াও মাশকালাইয়ের তৈরি রসালো আমেত্রী মন কাড়ছে রসনা বিলাসী রোজাদারদের। ভিন্ন স্বাদের এই জিলাপিতে রোজাদারদের আগ্রহ বাড়ছে।

রাজশাহীর বেলিফুল মিষ্টি বিপণীতে শাহী জিলাপি কিনতে আসা আবেদুর রহমান বাংলানিউজকে জানান, এখানকার শাহী জিলাপি অনেক স্বাদের। তাই তো তারা প্রতিবছর রমজান এলেই ইফতারের জন্য এই বেলি ফুলের স্পেশাল শাহী জিলাপি কেনেন।

শাহী জিলাপির জন্য খ্যাত বেলিফুল মিষ্টি বিপণীর স্বত্বাধিকারী প্রদ্বীপ কুমার জানান, তাদের এ জিলাপির আইটেম কেবল রমজানভিত্তিকই। বছরের অন্য সময় এগুলো পাওয়া যায় না। আর রোজায় স্পেশাল শাহী জিলাপির বেশ কদর রয়েছে। ইফতারে তাই মিষ্টির চেয়ে জিলাপিই বিক্রি হয় বেশি। স্পেশাল আইটেম হিসেবে শাহী জিলাপি শুধু বেলি ফুলেই তৈরি করা হচ্ছে।  

এই শাহী জিলাপি বিক্রি হচ্ছে ১২০/১৪০ টাকা কেজি দরে। ইফতারের জন্য এখানকার শাহী জিলাপির কদর একটু বেশিই বলে জানান তিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৫৫৫ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৪, ২০২২
এসএস/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa