ঢাকা, বুধবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৯ মে ২০২৪, ২০ জিলকদ ১৪৪৫

অপার মহিমার রমজান

খুলনায় সড়কের পাশে বাহারি ইফতার 

মাহবুবুর রহমান মুন্না, ব্যুরো এডিটর | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৪ ঘণ্টা, এপ্রিল ৩, ২০২২
খুলনায় সড়কের পাশে বাহারি ইফতার 

খুলনা: চুলায় টগবগ করে ফুটছে তেল। তপ্ত কড়াই থেকে ছেঁকে ছেঁকে তোলা হতে থাকে বেগুনি, পিঁয়াজু, চপ, জিলাপিসহ নানা রকমের খাবার।

পাশেই টেবিল পেতে বিক্রি হচ্ছে।  

খুলনার সাতরাস্তার মোড়ের শামীম হোটেল অ্যান্ড রেস্টুরেন্ট সামনে ফুটপাতে মুখরোচক এসব খাবার কিনতে ভিড় করছেন রোজাদাররা।

হোটেলের মালিক মো. শামীম হোসেন বাংলানিউজকে বলেন, প্রতি বছরের মতো রমজানে এবারও ইফতারে বিভিন্ন মুখরোচক খাবারের আয়োজন করা হয়েছে। ইফতার তৈরির পণ্যের দাম অনেক বেশি হলেও ইফতারির খাবারের দাম বেশি করা হয়নি।

রাস্তার অপর পাশে বনফুল অ্যান্ড কোং তাদের দোকানের সামনে টেবিল পেতে বিক্রি করছে বাহারি ইফতারি। তাদের ইফতার মেনুতে রয়েছে ৩৫ রকমের খাবার। এর মধ্যে রয়েছে স্পেশাল ফিন্নি (প্রতি কেজি) ২২০টাকা, স্পেশাল ফিন্নি (৫০০ গ্রাম) ১১০ টাকা, কাপ ফিন্নি ২৫ টাকা, স্পেশাল শাহী জিলাপি (প্রতি কেজি) ১৭০ টাকা, স্পেশাল ক্রিসপি জিলাপি (প্রতি কেজি) ১৭০ টাকা, শাহী বাকরখানি (প্রতি পিচ) ১৫ টাকা, পাটি সাপ্টা পিঠা ১৬ টাকা, চিকেন সমুচা ১০ টাকা।

বনফুলের ম্যানেজার মনিরুল ইসলাম বাংলানিউজকে বলেন, চমৎকার স্বাদের সব ইফতার আইটেম দিয়ে সাজানো তিন ধরনের ইফতারির প্যাকেজ পাওয়া যাচ্ছে বনফুলে। ইফতার প্যাকেজ-১ এ রয়েছে ৯টি আইটেম, যার মূল্য ১০০ টাকা। ইফতার প্যাকেজ-২ এ রয়েছে ১১টি আইটেম, যার মূল্য ১৪০ টাকা ও ইফতার প্যাকেজ-৩ এ রয়েছে ৯টি আইটেম, যার মূল্য ১৭০ টাকা।



খুলনা মহানগরের হোটেল ক্যাসল সালামের ম্যানেজার সাইদুর রহমান সোহেল বাংলানিউজকে বলেন, বাহারি সব খাবার নিয়ে হোটেল বাউন্ডারির মধ্যে ইফতার মেলার আয়োজন করা হয়েছে। ইফতার মেলার উল্লেখযোগ্য ইফতার আইটেমের মধ্যে রয়েছে—রাশিয়ান চিকেন রোল, দৈ বড়া, হালিম, ফালুদা, টিকেন শর্মা, বিফ শর্মা, কাবাবসহ প্রায় ৫০ থেকে ৬০ ধরনের মুখরোচক সব খাবার।

হোটেল ক্যাসল সালামে ইফতারি কিনতে আসা বেসরকারি একটি বেসরকারি হাসপাতালের কর্মকর্তা মুস্তাহিদুর রহমান বাংলানিউজকে বলেন, বাসায় ফেরার পথে ইফতারি কিনতে এসেছি। এখানে নানা ধরনের ইফতার সামগ্রী রয়েছে, কোনটা কিনবো তাই ভাবছি।

রোববার পহেলা রমজানে মহানগরের বিভিন্ন সড়ক ঘুরে দেখা গেছে, বাহারি সব খাবারের সন্ধান করেছেন ভোজনরসিকরা। সড়কের পাশে নানা পদের ইফতার সামগ্রীর রমরমা বাজার। আর এখানকার ইফতার চেখে দেখতে নানান শ্রেণি-পেশার মানুষ ছুটে আসছেন। উচ্চবিত্ত থেকে শুরু করে মধ্য ও নিম্নবিত্ত সবারই ভিড় এখানে।

দুই বছর করোনার কারণে মৌসুমি ইফতার সামগ্রী বিক্রেতারা যেমন ক্ষতিগ্রস্ত তেমনি সাধারণ ক্রেতারাও ফুটপাত থেকে ইফতার সামগ্রী ক্রয় থেকে বঞ্চিত ছিলেন। কিন্তু এবার আবার জমজমাট রূপে ফিরেছে ফুটপাতে ইফতারের বেচাকেনা।

মহানগরের পাইওনিয়র মহিলা কলেজের সামনে, ডাকবাংলো মোড়, সোনালী ব্যাংক চত্বর, ফেরিঘাট মোড়, পিকচার প্যালেস মোড়, পাওয়ার হাউজ মোড়, ময়লাপোতা মোড়, শিববাড়ি মোড়, পশ্চিম রূপসা ঘাট, শান্তিধাম মোড়, বৈকালী মোড়, বয়রা মোড়, নিরালা, গল্লামারী মোড়সহ প্রতিটি ব্যস্ততম সড়কের দুই পাশেই ইফতার সামগ্রীর পসরা সাজিয়ে বিক্রি করছেন মেীসুমি ব্যবসায়ীরা। অফিস ফেরত মানুষ এসব দোকানের ক্রেতা।

বাংলাদেশ সময়: ১৬২৯ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৩, ২০২২
এমআরএম/এমজেএফ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।