ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

অপার মহিমার রমজান

মাওলানা রফিকুল আলম হামিদী

ইফতার সামনে নিয়ে দোয়া পড়লে গোনাহ মাফ হয়

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৩ ঘণ্টা, জুন ১০, ২০১৬
ইফতার সামনে নিয়ে দোয়া পড়লে গোনাহ মাফ হয় ছবি: অনিক খান - বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ময়মনসিংহ: ময়মনসিংহ নগরীর রেলওয়ে স্টেশন জামে মসজিদের পেশ ইমাম মাওলানা রফিকুল আলম হামিদী।   বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কমের সঙ্গে রমজানের আমল ও তাৎপর্য নিয়ে আলোচনায় বাংলানিউজের মুখোমুখি হয়েছিলেন।

কথা বলেছেন রমজানের বিভিন্ন প্রসঙ্গে। তার সেই কথোপথনের নির্বাচিত অংশ বাংলানিউজের পাঠকদের জন্য উপস্থাপন করা হলো। কথা বলেছেন- বাংলানিউজের স্টাফ করেসপন্ডেন্ট এম আব্দুল্লাহ আল মামুন খান

মাওলানা হামিদী বলেন, রমজানে সেহেরি থেকে শুরু করে সব আমলের পরেই দোয়া রয়েছে। বিশেষ করে ইফতার সামনে রেখে ‘ইয়া ওয়াসিয়াল ফাদ্বলি ইগফিরলি’- দোয়াটি পড়লে আল্লাহতায়ালা তার বান্দার পেছনের সব গুনাহ মাফ করে দেন এবং নিষ্পাপ বান্দা হিসেবে রমজান অতিবাহিত করার তওফিক দান করেন।

রমজান পবিত্র মাস এ কথা জানিয়ে পেশ ইমাম বলেন, রোজা মুসলমানের জন্য ফরজ ইবাদত। এটা আল্লাহর দেওয়া বিশেষ সওগাত। মুসলমান হিসেবে সবার উচিত এ মাসকে যথাযোগ্য মর্যাদায় পালন করা, এ মাসে ইবাদত-বন্দেগি বেশি বেশি করা। সকল প্রকার, অন্যায়, অপরাধ, জুলুম-নির্যাতন, অশ্লীলতা ও বেহায়পনা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখাই হলো- রমজানের পবিত্রতা।

রমজানের পবিত্রতা শুধু মিছিল ও স্লোগানের মধ্যে সীমাবদ্ধ নয়। সব ধরণের অন্যায়-অশ্লীলতা থেকে নিজেকে পরিশোধিত ও সংশোধন করতে হয় রমজান মাসে।  

রমজানে আমল-আখলাক কেমন হওয়া উচিত- জানতে চাইলে মাওলানা রফিকুল আলম হামিদী বলেন, ‘সকল প্রকার অশ্লীলতা বর্জন করে আল্লাহর প্রতি ইবাদত-বন্দেগিতে এগিয়ে যেতে হবে রমজান মাসে। লক্ষ্য রাখতে হবে, রমজানে যাতে কোনো প্রকার নফল আমলও ছুটে না যায় সেদিকে কঠোরভাবে খেয়াল রাখা দরকার।

তাহাজ্জুদ, জিকির-আজকারও যেন না ছুটে। এ মাসে কোরআন আঁকড়ে ধরতে হবে। কোরআন সহিহ-শুদ্ধ করে পড়তে হবে। এভাবে আমরা আমল-আখলাক পালন করতে পারি।

প্রতি বছর রমজান আসলে কিছু ব্যবসায়ী সিন্ডিকেট করে প্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের দাম বাড়িয়ে দেয়- এ বিষয়েও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এ আলেম। তিনি বলেন, কৃত্রিমভাবে দ্রব্যমূল্যের দাম যেন না বাড়ে সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে। সামাজিকভাবে ওই সিন্ডিকেটের বিরুদ্ধে আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে।

রমজানের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য বাস্তবায়ন করতে হলে, প্রথমে মানুষের মনে আল্লাহ ভীতিকে জাগ্রত করে তুলতে হবে। আর রোজা মানুষকে এ কাজেরই শিক্ষা দেয়। আমরা আল্লাহকে রাজি-খুশি করার জন্য রোজা রাখি। এ কথা মাথায় থাকলে কারও পক্ষে কোনো অন্যায় বা অপরাধ করা সম্ভব নয়। এজন্য সবার মনে খোদাভীতি আনতে হবে।

আল্লাহতায়ালা কোরআনে কারিমে অনেকবার বলেছেন, ‘তোমরা আল্লাহকে ভয় করো। ’ রমজানের মূল উদ্দেশ্য ‘লা আল্লাকুম তাত্তাকুন। ’ সুতরাং প্রতিটি মানুষকে মুক্তাকি হতে হবে, মনের ভেতরে আল্লাহর ভীতিকে জাগ্রত করতে হবে- বলেন এ পেশ ইমাম।

তিনি আরও বলেন, লাইলাতুল কদরের রাতে সুর্য অস্ত যাওয়ার সময় আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম একটি দোয়া পড়তেন। দোয়াটি হলো, ‘আল্লাহুমা ইন্নাকা আফুউয়ুন তুহিব্বুল আফওয়া, ফা-ফু আন্নি গাফুর। ’

রেলওয়ে স্টেশন রোড জামে মসজিদের এ ইমাম বলেন, রমজানে নফল ইবাদত করলে ফরজ ইবাদতের সমান পাওয়া যায়। আল্লাহ বলেন, রোজা মানুষ রাখে আমার জন্য।

এ জন্য আমি যত বেশি তত ফজিলত দিবো। রমজানে কোরআন তেলাওয়াত বেশি করা উচিত। বাংলায় বড় বড় মুফাসসিরদের তাফসিরও পড়া যেতে পারে।

রমজানে জাকাতের নামে যারা প্রহসন চালায়- তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ারও দাবি জানান মাওলানা রফিকুল আলম হামিদী। তিনি বলেন, ‘জাকাত নিয়ে আমাদের দেশে বড় প্রহসন হয়। আগেই খবর দেওয়া হয়। জাকাত দেওয়া হবে। কিন্তু জাকাত বিতরণের যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয় না। এটা ঠিক না। এই তো আমাদের ময়মনসিংহে গত বছরই জাকাত ট্র্যাজেডি ঘটে গেলো। এ গুলো কাম্য নয়। এগুলোকে আইনগতভাবে বন্ধ করা উচিত। সরকারিভাবেই জাকাত আদায় এবং উসুল করা উচিত।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮২২ ঘণ্টা, জুন ১০, ২০১৬
এমএএএম/এমএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa