ঢাকা, শনিবার, ১৪ মাঘ ১৪২৯, ২৮ জানুয়ারি ২০২৩, ০৫ রজব ১৪৪৪

অপার মহিমার রমজান

রোজার দিনগুলোতে তীব্র মাথাব্যথা!

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪১১ ঘণ্টা, এপ্রিল ৯, ২০২২
রোজার দিনগুলোতে তীব্র মাথাব্যথা!

রোজার দিনগুলোতে শেষ বিকেলে অনেকের কাছেই বেশ অস্বস্তিকর হয়ে যায়। মাথা বেশ ভারি হয়ে আসে।

আবার কখনো তীব্র মাথাব্যথা। সারাদিন রোজা রাখার কারণে এ থেকে মুক্তির জন্য ওষুধও খেতে পারেন না। আবার সেহরিতে ওষুধ খেলে এর কার্যকারীতাও বিকেলের দিকে বেশ কমে আসে।

রোজায় খুব সাধারণ একটা সমস্যা মাথাব্যথা। বেশ কিছু কারণে মাথাব্যথা হয়। বড় কারণ পানিশূন্যতা, ক্ষুধা, ঘুম ও বিশ্রাম কম হওয়া, চা-কফি পান না করা।

এ সমস্যাটি কম হবে, যদি সেহরি খাওয়া বাদ না যায়, ইফতার থেকে সেহরি পর্যন্ত পানি ও তরল বেশি করে পান করা যায়। বেশি পানি পান করলে এ সমস্যা থেকে নিস্তার পাওয়া অনেকাংশে সম্ভব। আর বেশ কিছু সতর্কতা অবলম্বন করবেন। রোদে সরাসরি যাবেন না, ছাতা ও সানগ্লাস ব্যবহার করবেন।  
পানিশূন্যতা

রোজায় সবচেয়ে বড় সমস্যা শরীরে পানির ঘাটতি। একজন সুস্থ-সবল মানুষের প্রতিদিন গড়ে ২২০০-২৮০০ মিলিলিটার পানি দরকার। অর্থাৎ প্রতিদিন দুই লিটারের কিছু বেশি থেকে তিন লিটারের কিছু কম পানি পান করা উচিত। তাই সেহরি, ইফতার অথবা রাতে যত সম্ভব পানি ও ফলের জুস বা শরবত পান করতে হবে। দিনে যেহেতু পানির ঘাটতি মেটানোর সুযোগ নেই, তাই রাতে পান করেই পানির ঘাটতি মেটাতে হবে। সারাদিনে ঘাম, প্রস্রাব ও শ্বাস-প্রশ্বাসের মাধ্যমে প্রচুর পানি শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। কিন্তু রোজা রাখায় তা আর পূরণ করা সম্ভব হয় না। বয়স্কদের এ সমস্যা বেশি হয়। আবার যারা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখার জন্য ডাই-ইউরেটিক জাতীয় ওষুধ সেবন করেন, তাদেরও এ সমস্যা হয়।

ইফতার ও সেহরির মধ্যে রাতে পানি বেশি করে পান করুন। বারবার পান করুন। যাদের ওষুধ সেবনজনিত পানিশূন্যতা হয়, তারা সংশ্লিষ্ট চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৪০০ ঘণ্টা, এপ্রিল ০৯, ২০২২
এসআইএস
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa