ঢাকা, মঙ্গলবার, ৭ চৈত্র ১৪২৯, ২১ মার্চ ২০২৩, ২৮ শাবান ১৪৪৪

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

রামু-কতুবদিয়ায় ইডটকোর সৌরবিদ্যুৎ চালিত ‘স্ট্রিট ল্যাম্প’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১৫৮ ঘণ্টা, মার্চ ২৯, ২০২২
রামু-কতুবদিয়ায় ইডটকোর সৌরবিদ্যুৎ চালিত ‘স্ট্রিট ল্যাম্প’

ঢাকা: সমন্বিত টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবা প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান ইডটকো বাংলাদেশ সম্প্রতি বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহের মাধ্যমে প্রত্যন্ত অঞ্চলের অধিবাসীদের জীবনমান উন্নয়নের লক্ষ্যে কক্সবাজারের রামু ও কুতুবদিয়াতে প্রথমবারের মতো ‘সোলার ল্যাম্প’ সামাজিক উন্নয়ন প্রকল্প উদ্বোধন করেছে।

এই সামাজিক উন্নয়ন উদ্যোগ টেকসই টেলি যোগাযোগ অবকাঠামো নির্মাণের মাধ্যমে সুবিধাবঞ্চিত কমিউনিটির জীবনযাত্রার মান উন্নয়নে ইতিবাচক পরিবর্তন নিশ্চিত করতে ইডটকোর প্রতিশ্রুতিকে আরও জোরদার করেছে।

এই প্রকল্পের আওতায় কমিউনিটির অধিবাসীদের সুবিধার্থে রাতের বেলায় রাস্তা আলোকিত রাখতে ইডটকো টাওয়ারের নিকটবর্তী স্থানে দুইটি সৌরবিদ্যুৎচালিত স্ট্রিট ল্যাম্প স্থাপন করা হয়েছে, যা প্রকল্প এলাকার ২ হাজার ৮শ’র বেশি অধিবাসীর উপকারে আসবে। ইডটকোর এই উদ্যোগের ফলে প্রকল্প সংলগ্ন এলাকার অধিবাসীরা সূর্যাস্তের পরও তাদের দৈনন্দিন ও ব্যবসায়িক কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারবেন, যা সামগ্রিকভাবে প্রকল্প এলাকার অর্থনৈতিক উন্নয়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখবে। পাশাপাশি প্রকল্পটি বাস্তবায়নের ফলে স্থানীয় বাসিন্দারা, বিশেষত নারী এবং শিশুদের রাতের বেলায় সহজে এবং স্বাচ্ছন্দ্যে রাস্তায় চলাচল করতে সুবিধা হবে এবং তাদের অধিকতর নিরাপত্তা নিশ্চিত হবে।

প্রকল্প উদ্বোধনকালে ইডটকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রিকি স্টেইন বলেন, ‘ইডটকোর টাওয়ারগুলোর নিকটবর্তী এলাকার সুবিধাবঞ্চিত মানুষদের জীবনমান উন্নয়নের কথা আমরা সবসময় অত্যন্ত গুরুত্বের সঙ্গে বিবেচনা করে থাকি। সৌরশক্তি কাজে লাগিয়ে সোলার ল্যাম্প প্রজেক্টের মতো টেকসই ও কার্যকরী সুল্যশন স্থাপনের মাধ্যমে প্রত্যন্ত এলাকাগুলোতে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহের এই উদ্যোগ নিতে পেরে আমরা আনন্দিত। আমরা সেবা দিয়ে যাচ্ছি এমন সব অঞ্চলগুলোতে ভবিষ্যত এই সামাজিক উন্নয়ন কার্যক্রম বিস্তৃতির মাধ্যমে অর্থবহ ও টেকসই পরিবর্তন আনতে আমরা প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। ’

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ইডটকো বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজিং ডিরেক্টর রিকি স্টেইন ছাড়াও কর্পোরেট অ্যাফেয়ার্স অ্যান্ড প্ল্যানিং ডিরেক্টর ইশরাত জেরিন, ইডটকো বাংলাদেশের অন্যান্য কর্মকর্তারা ও স্থানীয় কমিউনিটি এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

ইডটকো গ্রুপ টেকসই উন্নয়নের বৃহৎ উদ্দেশ্য বাস্তবায়নে তিনটি ‘কমিউনিটি পিলার’ এ গুরুত্ব দিয়ে থাকে, এগুলো- ‘টাওয়ার টু কমিউনিটি কার্যক্রম’, এর মাধ্যমে ‘ত্রাণ’ এবং ‘দুর্যোগকালীন সহায়তা’ দেওয়া হয়; ‘টাওয়ার টু পাওয়ার’ কার্যক্রম, এর মাধ্যমে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বাসস্থানে বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহ করা হয় এবং ‘টাওয়ার টু ওয়াটার’ কার্যক্রম, এর মাধ্যমে নিরাপদ পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা নিশ্চিত করা হয় এবং স্বাস্থ্যবিধি সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করা হয়। বিভিন্ন দেশে ইডটকোর টাওয়ারগুলোর নিকটবর্তী এলাকার সুবিধাবঞ্চিত ও প্রান্তিক পর্যায়ের অধিবাসীদের জীবনমানের উন্নয়ন করাই এই উদ্যোগগুলোর মূললক্ষ্য।

সৌরবিদ্যুৎ চালিত স্ট্রিট ল্যাম্প উদ্যোগ ইডটকো বাংলাদেশের ‘টাওয়ার টু পাওয়ার’ প্রকল্পের একটি অংশ। ২০১৬ সালে যাত্রা শুরুর পর থেকে প্রকল্পটি এখন পর্যন্ত বিনামূল্যে বিদ্যুৎ সরবরাহের মাধ্যমে চার হাজারেরও বেশি পরিবারের জীবনমানের উন্নয়নে ভূমিকা রেখেছে।  

বাংলাদেশ সময়: ০১৫৪ ঘণ্টা, মার্চ ২৯, ২০২২
এমআইএইচ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa