ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

রূপপুর প্রকল্পের মূল কাজের উদ্বোধনের প্রস্তুতি

| বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৯ ঘণ্টা, অক্টোবর ৩১, ২০১৭
রূপপুর প্রকল্পের মূল কাজের উদ্বোধনের প্রস্তুতি

ঢাকা: রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মূল নির্মাণ কাজের প্রথম পর্যায় শুরু করার জোর প্রস্তুতি চলছে। চলতি বছরের মধ্যেই প্রকল্পের মূল নির্মাণ কাজের উদ্বোধন হবে।

নভেম্বর মাসে কংক্রিট ঢালাইয়ের মাধ্যমে এ প্রকল্পের মূল পর্যায়ের কাজের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা করার সম্ভাবনা রয়েছে। তবে নভেম্বরে কোনো কারণে সম্ভব না হলে মূল কাজের উদ্বোধন হবে ডিসেম্বরে।

রাশিয়ার সার্বিক সহযোগিতা ও তত্ত্বাবধানে পাবনার ঈশ্বরদীর রূপপুরে বাংলাদেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণ হচ্ছে। দেশটির রাষ্ট্রীয় সংস্থা আণবিক শক্তি কর্পোরেশনের (রোসাটম) এর অঙ্গ প্রতিষ্ঠান এএসই গ্রুপ অব কোম্পানিজ এ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে সর্বাধুনিক ৩+ প্রজন্মের দুটি বিদ্যুৎ ইউনিট থাকবে। এর প্রতিটি ইউনিটের উৎপাদন ক্ষমতা হবে ১২,০০ মেগাওয়াট। এই বিদ্যুৎ কেন্দ্রে টানা ৬০ বছর বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যাবে।  

এছাড়া এই প্রকল্পে ভবিষ্যতে আরও দুইটি ইউনিট করার পরিকল্পনা রয়েছে। সে অনুযায়ী প্রয়োজনীয় জায়গায়ও প্রস্তুত রাখা হচ্ছে।

প্রকল্প বাস্তবায়নের তত্ত্বাবধান করছে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়। এ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট একাধিক সূত্র জানায়, দেশের প্রথম এই পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রটির মূল নির্মাণ কাজের উদ্বোধনের বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে দেখা হচ্ছে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাসহ এই প্রকল্প বাস্তবায়নের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট দেশি-বিদেশি গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের উপস্থিতি থাকবে।

রাশিয়া এই পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের অর্থায়ন, প্রযুক্তিসহ নির্মাণ কাজের সার্বিক সহযোগিতা এবং বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিচালনার জন্য এক্সপার্ট তৈরি ও প্রশিক্ষণ দিচ্ছে। এ কারণে এই প্রকল্পের মূল নির্মাণ কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে অতিথি করার জন্য অনেক আগে থেকেই চেষ্টা রয়েছে।  

তবে রাশিয়ার প্রেসিডেন্টের সময় পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন। রাশিয়া সরকারের অন্য কেউ আসতে পারবেন কি না সে বিষয়টিও বিবেচনায় রাখা হয়েছে। এ প্রকল্পের কাজের উদ্বোধন করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি কবে সময় দিতে পারবেন সে বিষয়টিও গুরুত্বপূর্ণ।

এছাড়া এই প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে রসাটমের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা এবং আইএইএ (ইন্টারন্যাশনাল অ্যাটমিক অ্যানার্জি অ্যাসোসিয়েশন) এর ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। এই প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত হয়েছে প্রতিবেশী দেশ ভারত। প্রকল্প বাস্তবায়ন এবং পরিচালনার কাজে ভারতের বিশেষজ্ঞদের পরামর্শ নেওয়া হবে। প্রকল্পের মূল কাজের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে ভারত সরকারের কোনো প্রতিনিধি এবং সে দেশের পারমাণবিক শক্তি সংস্থার ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদেরও উপস্থিত থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রললয়ের সূত্র জানায়, গুরুত্বপূর্ণ প্রতিনিধিদের উপস্থিতির বিষয়টি নিশ্চিত হলে এবং তাদের দেওয়া সম্ভাব্য সময়কে সমন্বয় করে প্রকল্পের মূল কাজের উদ্বোধনের সময় নির্ধারণ করা হবে। এ ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট দেশ ও সংস্থাগুলোর সঙ্গে যোগাযোগ অব্যাহত আছে। দ্রুততম সময়ের মধ্যেই তারিখ নির্ধারণ করা হবে। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান বর্তমানে আবুধাবিতে রয়েছেন। আগামী বৃহস্পতিবার (০২ নভেম্বর) তার ফেরার কথা রয়েছে। মন্ত্রী আসার পর বিষয়গুলো চূড়ান্ত হবে।

গত সপ্তাহে মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের মূল কাজের উদ্বোধনের বিষয়ে বাংলানিউজকে বলেন, নভেম্বরে উদ্বোধনের প্রস্তুতি রয়েছে। সে অনুযায়ী সার্বিক কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। উদ্বোধনের তারিখ নির্ধারণে অতিথিরা কখন সময় দিতে পারবেন সেটা একটা বিষয়। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রকল্পের মূল কাজের উদ্বোধন করবেন। রাশিয়া ও ভারত সরকারের প্রতিনিধি এবং রোসাটম ও আইএইএ এর গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের উপস্থিতি আমরা আশা করছি। এ বিষয়গুলো নিশ্চিত হলে তারিখ নির্ধারণ করা হবে।

বাংলাদেশ সময়: ০১৫৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ০১, ২০১৭ 
এসকে/এমজেএফ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি এর সর্বশেষ