ঢাকা, শনিবার, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৫ মে ২০২৪, ১৬ জিলকদ ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

বড়পুকুরিয়ায় উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন সম্ভব

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪৫৩ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১৫
বড়পুকুরিয়ায় উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন সম্ভব ছবি : দেলোয়ার হোসেন বাদল / বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: দিনাজপুরের বড় পুকুরিয়ার খনি থেকে উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলনে পরিবেশের কোনো ক্ষতি হবে না। বরং জ্বালানি চাহিদার মেটানোর পাশপাশি এতে এলাকার উন্নয়নও ঘটবে।



শুক্রবার (২৮আগস্ট) রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বাংলানিউজের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রধান বক্তা ছিলেন মেলবোর্নের মোনা ইউনিভার্সিটির প্রজেক্ট অফিসার ও জ্বালানি বিশেষজ্ঞ খন্দকার সালেক সুফি।

তিনি বলেন, উন্মুক্ত পদ্ধতিতে কয়লা উত্তোলন নিয়ে নানা সমালোচনা ও বিরোধিতা আছে। কিন্তু এ পদ্ধতিতে সবচেয়ে কম খরচে বেশি কয়লা উত্তোলন সম্ভব। আর যে পরিমাণ ক্ষতির আশঙ্কা করা হচ্ছে, সেটিও অমূলক বলা যায়।

‘উত্তোলনকারী প্রতিষ্ঠান সংশ্লিষ্ট এলাকায় ব্যাপক উন্নয়ন কাজ করবে। ফলে পুরো এলাকার চেহারা বদলে যাবে। ওই এলাকার মানুষের জীবন মানেরও উন্নয়ন হবে,’ যোগ করেন খন্দকার সালেক সুফি।
 
‘এশিয়া এনার্জি হঠাও’ আন্দোলনকারীদের বিরোধিতা করে এই জ্বালানি বিশেষজ্ঞ বলেন, তাদের হঠাতে গেলে সরকারকে ব্যাপক আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে। কারণ চুক্তি বাতিল না করে তাদের কাজে বাধা দিলে আইনি মামলায় বিলিয়িন বিলিয়ন ডলার ক্ষতিপূরণ গুনতে হবে। তবে প্রয়োজনে প্রতিষ্ঠানটির সঙ্গে চুক্তি বাতিল করা যায়।

জ্বালানি বিষয়ক পাক্ষিক ‘এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ায়’ এর নির্বাহী সম্পাদক মোল্লা আমজাদ হোসেন, বড় জ্বালানি সমস্যা সমাধানে দেশীয় কয়লা ব্যবহারের বিকল্প নেই। কেননা বাইরে থেকে আমদানি করা কয়লা দিয়ে ‍উৎপাদিত বিদ্যুতের খরচ সাধারণ মানুষের নাগালের বাইরে চলে যাবে। তাই বড়পুকুরিয়া থেকে কয়লা উত্তোলনের বিকল্প নেই। আর উন্মুক্ত পদ্ধতিতেই এ খনি থেকে কয়লা তুলতে হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৪৪৫ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১৪
ইইউডি/ জেপি/টিএইচ/এমএ

** টেকনোলজি ও টেকনোলজিস্টের অভাব জ্বালানি খাতে
** প্রতি শহরের বর্জ্য থেকেই আসবে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ
** বিদ্যুৎ উৎপাদনের চ্যালেঞ্জ অর্থায়ন ও অবকাঠামো উন্নয়ন!
** কনোকো ফিলিপস অসৎ উদ্দেশ্যে বাংলাদেশে এসেছিলো

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।