ঢাকা, রবিবার, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

বিদ্যুৎ ও জ্বালানি

প্রতি শহরের বর্জ্য থেকেই আসবে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ

বাংলানিউজ টিম | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৪০৬ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১৫
প্রতি শহরের বর্জ্য থেকেই আসবে ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ ছবি: দেলোয়ার হোসেন বাদল/বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ঢাকা: বাংলাদেশে যে পরিমাণ সলিড বর্জ্য হয়, তা দিয়ে প্রতিটি বড় শহরে অন্তত ২০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব। কেবল ঢাকা শহরের বর্জ্য দিয়েই ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন হতে পারে।


 
শুক্রবার (২৮ আগস্ট) রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় বাংলানিউজের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এক সেমিনারে এ তথ্য জানান মেলবোর্ন’র মোনাস ইউনিভার্সিটির প্রজেক্ট অফিসার, জ্বালানি বিশেষজ্ঞ খন্দকার সালেক সুফি।

তিনি বলেন, নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদন করে শহরের চাহিদা মেটানো যায়। পৃথিবীর বিভিন্ন দেশেই বর্জ্য ব্যবহার করে শহরের জ্বালানি চাহিদা মেটানোর উদাহরণ আছে। সে উদাহরণকে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশেরও একই প্রযুক্তি কাজে লাগানো উচিত।

এতে করে একদিকে শহর পরিষ্কার হবে, অন্যদিকে গ্রিন টেকনোলজির মাধ্যমে পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা হবে বলেন সালেক সুফি।

জ্বালানি বিষয়ক পাক্ষিক ‘এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ায়’র নির্বাহী সম্পাদক মোল্লা আমজাদ হোসেন, জ্বালানি বিষয়ক বিটের সাংবাদিক দৈনিক সমকালের রফিকুল বাশার, ডেইলি সান’র শামীম আহমেদ, একাত্তর টিভির মোজাহেরুল হক রুমেন, সময় টিভির দেবাশীষ রায়, বাংলানিউজের হেড অব নিউজ মাহমুদ মেনন, আউটপুট এডিটর (ইংরেজি) এসএম সালাউদ্দিন আহমেদ, চিফ অব করেসপন্ডেন্ট সেরাজুল ইসলাম সিরাজ, আউটপুট এডিটর (বিজনেস) নুরনবী সিদ্দিক সুইন, অ্যাসিসট্যান্ট আউটপুট এডিটর রাইসুল ইসলাম প্রমুখ সেমিনারে অংশ নেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৪০৬ ঘণ্টা, আগস্ট ২৮, ২০১৪
ইইউডি/ জেপি/টিএইচ/জেডএস

** বিদ্যুৎ উৎপাদনের চ্যালেঞ্জ অর্থায়ন ও অবকাঠামো উন্নয়ন!
** কনোকো ফিলিপস অসৎ উদ্দেশ্যে বাংলাদেশে এসেছিলো

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।