ঢাকা, বুধবার, ২১ আষাঢ় ১৪২৯, ০৬ জুলাই ২০২২, ০৬ জিলহজ ১৪৪৩

রাজনীতি

‘পদ্মাসেতুর ওপর দাঁড়িয়ে জনগণ আ.লীগের পতন দেখবে’

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০১৬ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২২
‘পদ্মাসেতুর ওপর দাঁড়িয়ে জনগণ আ.লীগের পতন দেখবে’

ঢাকা: পদ্মাসেতুর ওপর দাঁড়িয়ে জনগণ পূর্ণিমার চাঁদ দেখবে আওয়ামী লীগ নেতাদের এমন মন্তব্যের প্রতিক্রিয়ায় জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টির (জাগপা) সহ-সভাপতি ও রাজনৈতিক মুখপাত্র রাশেদ প্রধান বলেছেন, বিশ্ব দুর্নীতিতে নিমজ্জিত পদ্মাসেতুর কেলেঙ্কারি মাথায় নিয়ে আওয়ামী লীগের সেতু উদ্বোধনের ঢাক-ঢোল পিটানো লজ্জাজনক। তবে, পদ্মাসেতুর ওপর দাঁড়িয়ে জনগণ পূর্ণিমার চাঁদ নয়, আওয়ামী লীগের ভয়াবহ পতন দেখবে।

শুধু তাই নয়, ক্ষমতাসীনদের জন্য শ্রীলঙ্কার চেয়ে মহাবিপদ সংকেত অপেক্ষা করছে। তাই আওয়ামী লীগ লুটেরাদের বলছি, সাবধানে কথা বলুন, খালেদা জিয়াকে পদ্মায় ফেলে দেবেন! নোবেলজয়ী ড. ইউনুসকে পানিতে ডুবিয়ে তুলবেন! আপনারা শ্রীলঙ্কার রাজাপাকসের কথা এত তাড়াতাড়ি ভুলে গেলেন?  

সোমবার (২৩ মে) ঢাকা মহানগর জাগপার অস্থায়ী কার্যালয়ে যুব জাগপা আয়োজিত এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, জনগণের ট্যাক্স-খাজনার টাকায় যে, পদ্মাসেতু নির্মাণ হয়েছে সেটাকে নিজেদের (আওয়ামী লীগের) পৈত্রিক সম্পত্তি মনে করবেন না। আপনারা নিজেদের বদলানো শিখেছেন দেশ বদলানো শিখতে পারেননি। মনে রাখবেন কার ঠিকানা কোথায় হবে বলা যায় না তবে, কাশিমপুর এবং কেরানীগঞ্জের জেলখানার রাস্তা এখন খুব সোজা। সময় থাকতে মুখ সামলিয়ে কথা বলুন অন্যথায় আপনারা অচিরই গণঅভ্যুত্থানের আওয়াজ শুনতে পাবেন।

রাশেদ প্রধান আরও বলেন, দেশের বর্তমান পরিস্থিতি ভয়াবহ। দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি প্রমাণ করে দেশে শাসক নাই শোষক বসে আছে। বিভিন্ন সংস্থার তথ্য বলছে, দেশের অবশিষ্ট রিজার্ভ সামান্য। যা যেকোনো সময় ধসে পড়তে পারে। অথচ সরকারপ্রধান দেশের অর্থনৈতিক রিজার্ভের সত্যকে গোপন রেখে মিথ্যা চালিয়ে যাচ্ছেন। অবিলম্বে দেশের রিজার্ভ অর্থের পরিমাণ আগামী বাজেট ঘোষণার আগেই জনগণের সামনে প্রকাশ করুন।  

তিনি বলেন, দেশে এখন পরিবর্তন দরকার। সেজন্য নির্দলীয় সরকার ব্যবস্থ খুব জরুরি। নির্বাচন জরুরি। দেশের ৮০ শতাংশ জনগণ এখন আর আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না। ২০ দলীয় জোট প্রধান খালেদা জিয়াকে দেশের মানুষ আবারো ক্ষমতায় দেখতে চায়। আসুন সবাই ঐক্যবদ্ধ হই। জালিমের জিন্দানখানা থেকে দেশ ও গণতন্ত্র ফিরিয়ে আনি।

যুব জাগপার সভাপতি নজরুল ইসলাম বাবলুর সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সিরাজুল ইসলামের পরিচালনায় বক্তব্য রাখেন জাগপার সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ইকবাল হোসেন, প্রেসিডিয়াম সদস্য আসাদুর রহমান খান, বীর মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ শফিকুল ইসলাম, ঢাকা মহানগর জাগপার সভাপতি আরিফ হোসেন ফিরোজ, সাধারণ সম্পাদক শেখ এনায়েত আহমেদ হালিম, সহ সভাপতি মো. নাসির উদ্দিন, আশরাফুল ইসলাম হাসু, যুব জাগপার সাংগঠনিক সম্পাদক  হোসনে আরা হাসু, জাগপা ছাত্রলীগের সভাপতি আব্দুর রহমান ফারুকী, সাধারণ সম্পাদক শ্যামল চন্দ্র সরকার প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ২০১৫ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২২
এমএইচ/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa