ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৩ আষাঢ় ১৪২৯, ০৭ জুলাই ২০২২, ০৭ জিলহজ ১৪৪৩

রাজনীতি

‘শেখ হাসিনাকে সন্তুষ্ট করে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যাবে না’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৯১৮ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০২২
‘শেখ হাসিনাকে সন্তুষ্ট করে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যাবে না’

ময়মনসিংহ: বাংলাদেশে একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে সহযোগিতার জন্য গণতান্ত্রিক বিশ্বের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়। তিনি বলেন, বাংলাদেশে একটি অবাধ সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনে সহযোগিতা জন্য গণতান্ত্রিক বিশ্বের প্রতি অনুরোধ করছি।

আপনারা সহযোগিতা করুন। তবে দেশের কে সরকার থাকবে কে আসবে, তা ঠিক করবে দেশের জনগণ। আমরা প্রতিবেশীসহ গণতান্ত্রিক সকল রাষ্ট্রের সঙ্গে সম্পর্ক রাখতে চাই। তবে কারো কর্তৃত্ব মানতে রাজি না।  

ভারতকে ঈঙ্গিত করে তিনি বলেন, সৎ প্রতিবেশী সুলভ বন্ধুত্ব চাই। তবে সীমান্তে মানুষ হত্যা হবে, ফেলানির মরদেহ ঝুলবে, বিডিআর সেনা কর্মকর্তাদের হত্যা হবে, তার বিচার হবে না। এমন দাসত্ব মেনে নিতে পারবো না। লুটপাট ও লুণ্ঠনকারীদের সঙ্গে বন্ধুত্ব রাখলে বাংলাদেশের সঙ্গে বন্ধুত্ব হারাতে হবে। শেখ হাসিনাকে সন্তুষ্ট করে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক রাখা যাবে না। সিদ্ধান্ত নিন দেশের মানুষের সঙ্গে থাকবেন, না লুটপাটকারীদের সঙ্গে থাকবেন।

রোববার (১৫ মে) বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ময়মনসিংহ নগরীর হরিকিশোর রায় রোডস্থ বিএনপি কার্যালয়ের সামনের সড়কে দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, বিরোধী নেতাকর্মীদের ওপর হামলা-মামলা, গ্রেফতার ও নৈরাজ্যের প্রতিবাদে এক বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।  

গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, দেশের মেগা প্রকল্প থেকে ১০ লাখ কোটি টাকা লুটপাট করে বিদেশে পাচার করা হয়েছে। অথচ তিনি কানে শুনেন না, চোখেও দেখেন না। ফলে দেশের গুনবতি প্রধানমন্ত্রীকে বিদেশিরা আর বহন করতে পারছেন না। তারা তাকে ঘাড় থেকে নামাতে চায়।

সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক অধ্যাপক একেএম শফিকুল ইসলাম। এ সময় যৌথভাবে সভা পরিচালনা করে মহানগর বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক শেখ আমজাদ আলী, দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক জাকির হোসেন বাবলু ও উত্তর জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক মোতাহার হোসেন তালুকদার।

সভায় বিশেষ অতিথি ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক সৈয়দ এমরান সালেহ প্রিন্স ও সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকটে ওয়ারেস আলী মামুন। এছাড়াও বক্তব্য দেন দক্ষিণ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ডা. মাহাবুবুর রহমান লিটন, সাবেক সংসদ সদস্য শাহ শহীদ সারোয়ার, শাহ নূরুল কবীর শাহীন, অ্যাডভোকেট আবুল বাসার আকন্দ, দক্ষিণ জেলা বিএনপির যুগ্ম আহ্বায়ক আলমগীর মাহমুদ আলম, ফখরুদ্দিন আহম্মেদ বাচ্চু, অ্যাডভোকটে ফাত্তাহ খান, আকতারুজ্জামান বাচ্চু, শাহ শিব্বির আহমেদ ভুলু, অ্যাডভোকটে এমএ হান্নান খান, দক্ষিণ জেলা কৃষক দলের আহ্বায়ক লিটন আকন্দ প্রমুখ।

বাংলাদেশ সময়: ০৯১৩ ঘণ্টা, মে ১৬, ২০২২
এনটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa