ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ মাঘ ১৪২৯, ০২ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১০ রজব ১৪৪৪

রাজনীতি

বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশি হামলার নিন্দা গণফোরামের

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০৪০ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৭, ২০২২
বিএনপি কার্যালয়ে পুলিশি হামলার নিন্দা গণফোরামের

ঢাকা: বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ধরপাকড় ও পুলিশি হামলার প্রতিবাদ ও নিন্দা জানিয়েছে মোস্তফা মহসীন মিন্টু সমর্থিত গণফোরাম। বুধবার (৭ ডিসেম্বর) গণমাধ্যমে দলটির তথ্য ও গণমাধ্যম বিষয়ক সম্পাদক মুহাম্মদ উল্লাহ মধু প্রেরিত এক বিবৃতিতে এই প্রতিবাদ জানিয়েছে তারা।

বিবৃতিতে বলা হয়, বুধবার সন্ধ্যায় মোস্তফা মোহসীন মন্টুর সভাপতিত্বে গণফোরাম নির্বাহী পরিষদের জরুরি বৈঠকে নেতৃবৃন্দ বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল-বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় নয়াপল্টনে পুলিশ হামলায় ১ জন নিহত ও অসংখ্য আহতের ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

তারা বলেন, পুলিশ যেন জনগণের প্রতিপক্ষ না হয়, তারা প্রজাতন্ত্রের কর্মচারী। তাদের কর্তব্য হলো জনগণকে সাহায্য করা, সেবা করা ও নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। কোনো দলের বা সরকারের হাতিয়ার বা লঠিয়াল হিসেবে ব্যবহার হোক তা জনগণের কাম্য নয়। বিএনপি তাদের সমাবেশের জন্য যখন  ডিএমপির সঙ্গে আলোচনা করছে, ঠিক তখনই সরকারের নির্দেশে ইচ্ছাকৃতভাবে একটা অশান্ত পরিবেশ তৈরির জন্য পুলিশ বিএনপি অফিসে প্রবেশ করে এবং অসংখ্য নেতাকর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে।

বিবৃতিতে আরও বলা হয় এর আগে পুলিশ অহেতুক প্রচুর টিয়ারগ্যাস নিক্ষেপও গুলি করে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে থেকে নেতাকর্মীদের সরানোর অপকৌশল করে। এটা অত্যন্ত নিন্দনীয় হামলা। এতে এ পর্যন্ত ১ জন নিহত ও কয়েকজন মারাত্মক আহতসহ প্রায় দুই শতাধিক নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। আজকের এই ঘটনা দুঃখজনক রাজনীতির অঙ্গনে অশনি সংকেত।

এতে আরও বলা হয়, উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে সরকার বিএনপির ১০ তারিখের সমাবেশ পণ্ড করতে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টি করছে। যেখানে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা বা আওয়ামী লীগের যে কোনো সভা-সমাবেশ পুলিশ প্রোটেকশনে হয়ে যাচ্ছে অনুমতির দরকার হয় না। সেখানে বিরোধী দল অনুমতির জন্য দৌড়াদৌড়ি করছে। ডিএমপির সঙ্গে আলোচনা করছে, এরই মধ্যে পুলিশ এসে তাদের ওপর চড়াও হচ্ছে, ন্যক্কারজনকভাবে ঝাঁপিয়ে পড়ছে।

বিবৃতিতে গণফোরাম নেতারা বলেন, যখন বিরোধীদলগুলো অবাধ, সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের মাধ্যমে  গণতন্ত্র পুনরুদ্ধার ও একটি কল্যাণমুখী রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার জন্য উদ্যোগ নিচ্ছে তখনই কর্তৃত্ববাদী সরকার পরিকল্পিতভাবে তা ধ্বংস করতে অপকর্মের আশ্রয় নিয়ে হামলা করে গণতান্ত্রিক অধিকার নস্যাৎ করছে। আমরা পুলিশ প্রশাসনকে আহ্বান জানাচ্ছি সর্বোচ্চ সহনশীল থাকতে এবং বিরোধীদলের গণতান্ত্রিক আন্দোলনে প্রতিপক্ষ না হতে। যাদেরকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে তাদের অবিলম্বে মুক্তি দেওয়া হোক। এই হামলার বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানাচ্ছি।

পাশপাশি আহতদের সুচিকিৎসার দাবি এবং নিহতের আত্মার মাগফেরাত কামনা করে তাদের পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দেওয়ার দাবি জানানো হয় বিবৃতিতে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন গণফোরামেরনির্বাহী সভাপতি অধ্যাপক ড. আবু সাইয়িদ, সাধারণ সম্পাদক সিনিয়র অ্যাড. সুব্রত চৌধুরী, নির্বাহী সভাপতি অ্যাড. এ.কে.এম. জগলুল হায়দার আফ্রিক, নির্বাহী সভাপতি অ্যাড. মহিউদ্দিন আব্দুল কাদের ও সিনিয়র যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আইয়ুব খান ফারুক।

বাংলাদেশ সময়: ২০৪০ ঘণ্টা, ৭ ডিসেম্বর, ২০২২
এমকে/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa