ঢাকা, শুক্রবার, ১৩ মাঘ ১৪২৯, ২৭ জানুয়ারি ২০২৩, ০৪ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

বাবার মরদেহ রেখে পরীক্ষা দেওয়া জারিফ পেল জিপিএ-৫

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬৩৩ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
বাবার মরদেহ রেখে পরীক্ষা দেওয়া জারিফ পেল জিপিএ-৫

নীলফামারী: নীলফামারী সদর উপজেলায় বাড়িতে বাবার মরদেহ রেখে পরীক্ষা দিতে যাওয়া আব্দুল্লাহ মোক্তাদির জারিফ এবারের এসএসসি পরীক্ষায় জিপিএ-৫ পেয়েছেন।

সোমবার (২৮ নভেম্বর) এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশের পর রাতে এ তথ্য জানা গেছে।

জারিফ সদর উপজেলা গোড়গ্রাম ইউনিয়নের মাঝ পাড়া গ্রামের মৃত. মাহাতাব উদ্দিনের ছেলে। সে জেলা শহরের নীলফামারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগ থেকে এবারের এসএসসি পরীক্ষায় অংশ নেয়।

এলাকাবাসী জানান, চলতি বছরের ১৫ সেপ্টেম্বর ভোর রাতে জারিফের বাবা মাহাতাব উদ্দিন কিডনিজনিত রোগে মারা যান। এ সময় তার এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা চলছিল। ওই দিন সকালে তার বাংলা প্রথম পত্রের পরীক্ষা ছিল। এদিকে বাবা মারা যাওয়ার পরও তার মাথায় পরীক্ষার বিষয়টি ছিল। যখন স্বজনরা বাবার মরদেহ দাফনের প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন তখন শোকে কাতর হয়েও পরীক্ষায় অংশ নেয় জারিফ। পরীক্ষা শেষ করে বাবার মরদেহ দাফনে অংশ নেয় সে।

পরে বিষয়টি জানাজানি হলে নীলফামারীর জেলা প্রশাসকের নজরে আসে। খবরটি শুনে সদর উপজেলার গোড়গ্রাম মাঠপাড়া মাদরাসা এলাকার জারিফের নিজ বাসায় ছুটে যান জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন। এ সময় ভবিষ্যতে যেকোনো সহযোগিতার আশ্বাস দেন তিনি।

নীলফামারী সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক গোলাম রব্বানী বলেন, জারিফের এমন রেজাল্টে আমরা আনন্দিত। বাবার মরদেহ বাড়িতে রেখে পরীক্ষা দিয়েও সে এমন রেজাল্ট করেছে এতে আমরা গর্বিত। তাছাড়াও সে অনেক মেধাবী ছাত্র।

জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফীন বলেন, জারিফের রেজাল্টে আমি অনেক আনন্দিত। সে মেধাবী ছাত্র। ভবিষ্যতে ভালো কিছু করতে পারবে বলে আশা করছি। ভবিষ্যতে যে কোনো সহযোগিতায় জেলা প্রশাসন তার পাশে থাকবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৬৩২ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa