ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৪ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

জাতীয়

ফেনীতে ব্যতিক্রমী ভর্তা উৎসব 

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
ফেনীতে ব্যতিক্রমী ভর্তা উৎসব  ছবি: বাংলানিউজ

ফেনী: ভোজন রসিক বাঙালির খাওয়া-দাওয়ার জন্য উৎসব পার্বণের অজুহাত লাগে না। ভরপেট খাবার-দাবার হলেই, সময়টাকে উৎসবে পরিণত করতে বাঙালির জুড়ি নেই।

হেমন্তের বিদায় ক্ষণে নবান্নের লগ্নে ও শীতের আগমনে প্রকৃতি সৌন্দর্যের রঙ ছড়াচ্ছে। এমনই এক সময়ে ফেনীতে অনুষ্ঠিত হলো ব্যতিক্রমী ভর্তা উৎসব।

শনিবার (২৬ নভেম্বর) শহরতলীর বিসিক শিল্প এলাকার কসুমবাগ স্টেটে এ ব্যতিক্রমী উৎসবটির আয়োজন করা হয়। উৎসবটি আয়োজন করে সার্ভিস প্রোভাইডার প্রতিষ্ঠান ইজিলাইফ ও বাঙালি খাবারের প্রতিষ্ঠান বাঙালিয়ানা।

শিম ভর্তা, শুটকি ভর্তা, রসুন ভর্তা, মরিচ ভর্তা, ডাল ভর্তা, বেগুন ভর্তা, টমেটো ভর্তা, বরবটি ভর্তা, মাছ ভর্তা, ধনেপাতা ভর্তা, কালোজিরা ভর্তা, আলু ভর্তা, পটল ভর্তা, লতি ভর্তা, কলা ভর্তাসহ ২০ অধিক পদের ভর্তা দিয়ে দুই শতাধিক মানুষের দুপুরের ভোজের আয়োজনটি আয়োজিত হয়।

আয়োজক শহিদুল মিশু জানান, বাংলা ও বাঙালির উৎসবে ভর্তার দাপট কম নয়। নানা স্বাদের ও নানা পদের ভর্তা সব সময়ই বাঙালি সংস্কৃতির অবিচ্ছেদ্য অংশ। এ বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা এ আয়োজনটি করেছি।

বাঙালিয়ানার পক্ষ থেকে বলা হয়, খাবার-দাবারে বাঙালির রয়েছে স্বতন্ত্র ঐতিহ্য। বাঙালির প্রিয় খাবারে ভর্তাই তো হতে পারে উৎসবের প্রধানতম অনুষঙ্গ। ফেনীতে আমরা এ উৎসবের আয়োজন করেছি। আশা রাখছি, প্রতি বছরই এমন একটা উৎসব আয়োজন করতে পারব।

দিনব্যাপী এ উৎসবে মিউজিক্যাল চেয়ার, চাকতি নিক্ষেপ, প্রতিভা অন্বেষণসহ বিভিন্ন আয়োজন ছিলো। অনুষ্ঠানে র‍্যাফেল ড্রতে বিজয়ীদের দেয়া হয় আকর্ষণীয় পুরষ্কার। ব্যতিক্রমী এ উৎসবে সহযোগী প্রতিষ্ঠান হিসেবে ছিলো কারমো ফোম, সাইমুম ইভেন্টস, এ ফোর ফটোগ্রাফী ও এ ফোর বি ডিজাইন, এক্সপোর্ট জোন এবং দারুচিনি।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৩৫ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৬, ২০২২
এসএইচডি/এসআইএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa