ঢাকা, রবিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৪ আগস্ট ২০২২, ১৫ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

স্কুলের মাঠে গরুর হাট বসানোর অনুমতি দিলেন প্রধান শিক্ষক!

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ৭, ২০২২
স্কুলের মাঠে গরুর হাট বসানোর অনুমতি দিলেন প্রধান শিক্ষক! স্কুলের মাঠে বসানো হয়েছে গরুর হাট। ছবি: বাংলানিউজ

লক্ষ্মীপুর: লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে অবৈধভাবে গরুর হাট বসানো হয়েছে। আসন্ন ঈদুল আজহা উপলক্ষে উপজেলা প্রশাসন খোলা মাঠে অস্থায়ীভাবে হাট বসানোর অনুমতি দিলেও সে হাট বসানো হয়েছে বিদ্যালয় মাঠে।

 যদিও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) বলছেন, স্কুলের মাঠে গরুর হাট বসানো কোনোভাবেই সম্ভব না। তবে, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফয়েজ শিকদার জানিয়েছেন, প্রতিষ্ঠানের প্রধান হিসেবে তিনি স্কুলের মাঠে হাট বসাতে অনুমতি দিয়েছেন।  

বুধবার (৬ জুলাই) সকাল ভবানীগঞ্জ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় এবং সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠজুড়ে বিক্রেতারা গরু বেঁধে রেখেছেন। দুপুরের পর থেকে স্কুলের মাঠে ক্রেতা-বিক্রেতাদের উপস্থিতিতে কোরবানির পশু কেনাবেচা জমে উঠেছে। সামনের শনিবারও দিনব্যাপী ওই মাঠে গরুর হাটের আয়োজন করা হবে বলে জানা গেছে। ওই স্কুলের গিয়ে দেখা যায়, স্কুলের মাঠে গরু হাট বসানোর জন্য মাঠের উত্তর, দক্ষিণ ও পশ্চিম পাশে বাঁশ পুঁতে তাতে গরু বাঁধা হয়েছে। স্কুলের বারান্দায় গরু বাঁধা রয়েছে। মাঠের পশ্চিম পাশে শহীদ মিনারের সঙ্গে গরু বাঁধা রয়েছে।  গরুবোঝাই হাইড্রোলিকসহ ছোট-বড় পিকআপভ্যানের চাকা দেবে স্কুলের মাঠে গর্ত সৃষ্টি হয়। পরে সেখানে বালু ফেলে গর্ত ভরাট করা হয়েছে।

গরু হাট বসানোর বিষয়ে বক্তব্য জানতে চাইলে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফয়েজ শিকদার উত্তেজিত হয়ে পড়েন।  তিনি বলেন, স্কুলের মাঠে গরু হাটের জন্য আমি অনুমতি দিয়েছি। ইউএনও কী বলেছেন, তা আমার জানার প্রয়োজন নেই। আমি প্রধান শিক্ষক, আমার ক্ষমতাবলেই স্কুলের মাঠে বাজার বসানোর অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক ও বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি নাছির উদ্দিন রাজু বলেন, স্কুলের মাঠে গরু বাজার বসানোর বিষয়ে আমি কিছু জানি না। তবে স্কুলের মাঠ ছাড়া বাজারের কাছে খোলা মাঠ নেই।

ইজারাদার আজাদ হোসেন বলেন, প্রায় ৪ লাখ টাকায় গরু বাজার ইজারা নিয়েছি। সব মিলিয়ে প্রায় ৫ লাখ টাকা খরচ হয়েছে। স্কুলের মাঠে বাজার বসাতে স্কুল কর্তৃপক্ষের কাছ থেকে লিখিতভাবে অনুমতি নেওয়া হয়েছে। লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) ইমরান হোসেন বলেন, খোলা স্কুলের মাঠে ইজারা দেওয়া হয়েছে। কোনোভাবেই স্কুলের মাঠে গরু বাজার বসানো যাবে না। প্রধান শিক্ষক কেন অনুমতি দিয়েছেন, এ নিয়ে শিক্ষা কর্মকর্তাকে ঘটনাস্থলে পাঠানো হবে।

বাংলাদেশ সময়: ১১৩৪ ঘণ্টা, জুলাই ০৭, ২০২২
এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa