ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

জাতীয়

‘পাকিস্তানিরাও শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায়’

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২৫ ঘণ্টা, জুলাই ১, ২০২২
‘পাকিস্তানিরাও শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায়’

সাভার (ঢাকা): পাকিস্তানিরাও তাদের দেশে শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে চায় বলে মন্তব্য করেছেন পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম।

তিনি বলেছেন, পাকিস্তানের এক নেতা পার্লামেন্টে বলেছেন শেখ হাসিনাকে পাকিস্তানে এনে দাও।

পাকিস্তানকে তিনি বাংলাদেশ বানিয়ে দিক এটাই আমাদের চাওয়া। কি বোঝায়? যে পাকি বাঙালিরা এখনো পাকিস্তানি কৃষ্টি কালচার নিয়ে রাজনীতি করে। অথচ পাকিস্তানিরা চায় শেখ হাসিনা সেখানে প্রধানমন্ত্রী হোক। তাদের পরিবর্তন হোক। আর কি চান আপনারা?

শুক্রবার (১ জুলাই) ঢাকার ধামরাইয়ে শ্রী শ্রী যশোমাধবের রথযাত্রা উপলক্ষে আয়োজিত সভায় এ কথা বলেন তিনি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম বলেন, ভারতের পার্লামেন্টে সুষমা স্বরাজ কয়েক বছর আগে বলেছেন, বাংলাদেশে গত এক দশকে ৮ শতাংশ হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। আগে ছিল ২ শতাংশ। এখন তা ১০ শতাংশ। এতে কি বোঝা যায়? মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আমলে সকলেই একসঙ্গে ধর্ম, বর্ণ নির্বিশেষে বাস করতে পারে। সুষমা স্বরাজের বক্তব্য অনুযায়ীই হিন্দু বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশ সকলের জন্য এখন নিরাপদ।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, স্বাধীনতার আগে পাকিস্তানের নাগরিকদের আয় পূর্ব পাকিস্তানের তুলনায় ৭৫ গুণ বেশি ছিল। এখন তাদের তুলনায় বাংলাদেশিদের আয় ৫০ গুণ বেশি। আমাদের মাথাপিছু আয় ২০২১ অর্থবছরে ছিল ২৫০০ ডলার। আর পাকিস্তানে ১৫৬০। অর্থাৎ পাকিস্তানকে আমরা পেছনে ফেলেছি। শুধু তাই নয়। আমরা ভারতকেও গত ২-৩ বছরে মাথাপিছু আয়ে পেছনে ফেলেছি।

বিভিন্ন খাতে উন্নয়নের কথা তুলে ধরে তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ার শিক্ষার হার বাংলাদেশে সবচেয়ে বেশি। গড় আয়ু সবচেয়ে বেশি বাংলাদেশে। মাতৃমৃত্যু সবচেয়ে কম, শিশুমৃত্যু সবচেয়ে কম। আমরা নিম্ন-মধ্যবিত্ত দেশ হয়েছি। নিম্নবিত্ত দেশ থেকে উন্নতি হয়েছে। যেটার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা হবে ২০২৬-এ। সবই হয়েছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শাসনামলে।

পূর্ববর্তী সময়ে দেশ পিছিয়ে পড়েছিল উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, গোপাল কৃষ্ণ হত্যাকাণ্ড, মানিক সাহা হত্যাকাণ্ড, আহসান উল্লাহ মাস্টার, এসএম কিবরিয়াকে হত্যা করা হয়েছে। ২০০৪-এর একুশে আগষ্ট হামলা চালানো হয়েছে। তবুও শেখ হাসিনা দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন। একটা অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়ার জন্য। আমাদের সকলের উচিত শেখ হাসিনার বাংলাদেশ গড়তে সহায়তা করা। যেন উচ্চ মধ্যবিত্ত দেশ হতে পারি। ২০৪১-এ উন্নত দেশ হবো। সেই উন্নত মানবিক ধর্মনিরপেক্ষ দেশ চাইলে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করতে হবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, আপনাদের সন্তানদের বলতে হবে তাদের জীবনের রোল মডেল হবে শেখ হাসিনা। একজন নারীর রোল মডেল হবেন শেখ হাসিনা। আপনাদের উচিত তাকে সামনে রাখা। সকলকে আশির্বাদ জানাচ্ছি। রথযাত্রা সফল হোক। আসুন সবাই মিলে ধর্ম নিরপেক্ষ মানবিক দেশ গড়ে তুলি।

শ্রী শ্রী যশোমাধব মন্দির পরিচালনা কমিটির সভাপতি মেজর জেনারেল (অব.) জীবন কানাই দাশের সভাপতিত্বে সভায় সঞ্চালনা করেন কমিটির সাধারণ সম্পাদক নন্দ গোপাল সাহা।

এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতের হাইকমিশনার শ্রী বিক্রম কে দোরাইস্বামী, বিশেষ অতিথি হিসেবে ঢাকা- ২০ আসনের এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা বেনজীর আহমদ, ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার মো. মারুফ হোসেন সরদার, ধামরাই পৌরসভার মেয়র আলহাজ্ব গোলাম কবির মোল্লাসহ আরও অনেকে।

বাংলাদেশ সময়: ২২২২ ঘণ্টা, জুলাই ০১, ২০২২
এসএফ/এমএইচএম

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa