ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯, ১৯ মে ২০২২, ১৭ শাওয়াল ১৪৪৩

জাতীয়

পানির নিচে ৭০০ একর কৃষি জমি, সমাধান খুঁজছেন ইউএনও

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১১০৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২২
পানির নিচে ৭০০ একর কৃষি জমি, সমাধান খুঁজছেন ইউএনও

সাভার (ঢাকা): ঢাকার ধামরাইয়ে একটি ইউনিয়নের প্রায় ৭০০ একর কৃষি জমি জলাবদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। এ অবস্থা নিরসনের উপায় খুঁজতে সেই জমি পরিদর্শন করেছেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো আরিফুল হাসান।

রোববার (২৩ জানুয়ারি) বিকেলে পরিদর্শন শেষে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে সুতিপাড়া ইউনিয়নের শ্রীরামপুর এলাকার ৭০০ একর কৃষি জমির জলাবদ্ধতার বিষয় নিয়ে একটি পোস্ট করেন ইউএনও।  

'উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা, ধামরাই' নামের সেই পেজে পোস্টটি করা হয়। সেখানে কিছু পরিদর্শনের ছবিসহ লেখা হয়, 'সুতিপাড়া ইউনিয়নের শ্রীরামপুরে প্রায় ৭০০ একর কৃষি জমিতে সৃষ্ট জলাবদ্ধতার সমাধান খুঁজতে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা, প্রকৌশলী এবং স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ পরিদর্শন। খুব শিগগিরই ভরাট হয়ে যাওয়া খাল পুনঃখনন করে জলাবদ্ধতা নিরসনের উদ্যোগ নেওয়া হবে।
– হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী
উপজেলা নির্বাহী অফিসার।
ধামরাই, ঢাকা।

সেই পরিদর্শনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন সুতিপাড়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান রেজাউল করিম রেজা।
ইউনিয়নটির চেয়ারম্যান রেজাউল করিম রেজা জলাবদ্ধতার বিষয়ে বাংলানিউজকে বলেন, বর্তমানে আমরা চেষ্টা করছি কিভাবে জলাবদ্ধতা নিরসন করা যায়। সেখানে একটি খাল আছে সেই খালকে আমরা অনেক সময় 'মরা খাল' বলে থাকি বা শুধু 'খাল' নামে সবাই চেনে। গতবারও জলাবদ্ধতা ছিল কিন্তু আমরা ড্রেনেজ ব্যবস্থা করেছিলাম বিধায় পানি সরে গেছিলো। সেসময় কৃষকরা আবাদ (চাষ) করতে পেরেছিলো। ইউএনও মহোদয় কৃষি কর্মকর্তা এবং স্থানীয় জমির মালিকদের নিয়ে আমরা ওই জমি পরিদর্শন করেছি অতি দ্রুত এ সমস্যার সমাধানের আশ্বাস দিয়েছেন ইউএনও।  

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. আরিফুল হাসান বাংলানিউজকে বলেন, এই জলাবদ্ধতা প্রতিবছরই হয়, তবে গতবছর এখানে ব্রিজটা নিচে ছিল। স্থানীয় চেয়ারম্যানসহ সবার সহযোগিতায় ব্রিজটির পাশে কেটে দেওয়ায় জলাবদ্ধতা নিরসন হয়েছিল। কিন্তু এবার ব্রিজটি ভেঙে পড়ায় সেই পানিগুলো আটকে আছে জমিতেই। আমরা সেই স্থানটি দেখে এসেছি খুব দ্রুত পানি নিরসনে কাজ শুরু করব। কৃষকরা যেনো জমিতে চাষাবাদ করতে পারে সে ব্যবস্থা করার লক্ষ্যে কাজ করা হবে।  

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকী বাংলানিউজকে বলেন, সেই এলাকায় একটি ব্রিজ হয়েছে। মূলত ব্রিজটির জন্যই মাটি ভরাট হয়ে পানি আটকে গেছে। এই জমির পাশে আগে একটি খালের মত ছিল। যেখানে পানি যাতায়াত করতো। সেই খালটি ব্যক্তি মালিকানাধীন৷ একটি প্রকল্পের মাধ্যমে এটির সমাধান খোঁজা হচ্ছে।

বাংলাদেশ সময়: ১১০৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৪, ২০২২
এসএফ/আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa