ঢাকা, শনিবার, ৭ মাঘ ১৪২৮, ২২ জানুয়ারি ২০২২, ১৮ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

জাতীয়

শিক্ষার্থীদের আন্দোলন: 'ইন্ধনের সূত্র' খুঁজতে ছাত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২১
শিক্ষার্থীদের আন্দোলন: 'ইন্ধনের সূত্র' খুঁজতে ছাত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদ

ঢাকা: রাজধানীর ধানমন্ডি ২৭ এলাকায় নিরাপদ সড়কে দাবিতে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অংশ নেওয়া এক ছাত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য মোহাম্মদপুর থানায় নেওয়া হয়েছে। ওই ছাত্রীর বাবাকেও জিজ্ঞাসাবাদ করছে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের কর্মকর্তারা।

এর আগে হাফিজুর রহমান নামে এক ছাত্রকে আন্দোলনের মাঝ থেকে আটক করে পুলিশ।

রোববার (২৮ নভেম্বর) সন্ধ্যায় ওই ছাত্রীকে মোহাম্মদপুরের বাসা থেকে থানায় নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

মোহাম্মদপুর থানার  ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল লতিফ বাংলানিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, রোববার (২৮ নভেম্বর) ধানমন্ডি ২৭ এলাকায় সকাল থেকে শিক্ষার্থীরা আন্দোলন করছিল। দুপুরের দিকে ওই ছাত্রী সেখানে শিক্ষার্থীদের মাঝে খাবার বিতরণ করে। একই সময়ে অন্য একটি ছেলে ওই ছাত্রীর কাছে বিকাশ নম্বর চায় এবং টাকা পাঠানোর কথা বলে।

তিনি বলেন, এ বিষয়টি পুলিশের গোয়েন্দা নজরদারিতে ধরা পড়ে। শিক্ষার্থীদের নিরাপদ সড়ক আন্দোলন ঘিরে অন্য কারো সংশ্লিষ্টতা বা লেনদেনের বিষয়টি রয়েছে কিনা তা খতিয়ে দেখতেই ওই ছাত্রী ও তার বাবাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় ডেকে নিয়ে আসা হয়েছে।

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনে অন্য কেউ বা গোষ্ঠীর ইন্ধন বা যোগসাজশ রয়েছে কিনা এ ব্যাপারে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) তেজগাঁও বিভাগের মোহাম্মদপুর জোনের অতিরিক্ত উপ-কমিশনার (এডিসি) মৃত্যুঞ্জয় দে সজল বলেন, রোববার ধানমন্ডি ২৭ এলাকায় নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের মাঝ থেকে হাফিজুর রহমান নামে এক ছাত্রকে আটক করা হয়েছে। তার কাছ থেকে কিছু ইনজেকশন ও জাল টাকা উদ্ধার করা হয়েছে। হাফিজুর রহমানকে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

এর আগে শনিবার (২৭ নভেম্বর) হাফিজুরকে ধানমন্ডি ২৭ এলাকায় দেখা গেছে। তখন সে শিক্ষার্থী ও পুলিশের জিজ্ঞাসাবাদে নিজেকে ডাক্তার হিসেবে পরিচয় দিয়েছিল। রোববার ঘটনাস্থল থেকে আটকের সময় আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা হাফিজুরকে ঘিরে ধরে। এ সময় হাফিজুর আন্দোলনরত এক শিক্ষার্থীকে নাম ধরে ডাকে এবং তার কাছ থেকে বার বার বিকাশ নম্বর চায়। সে ওই ছাত্রীর পূর্ব পরিচিত, নাকি তাকে ব্লাকমেইল করতে চেয়েছিল, নাকি আন্দোলন ঘিরে আটক হাফিজুরের অন্য কোনো উদ্দেশ্য ছিল- তা খতিয়ে দেখতেই ওই ছাত্রীকে থানায় ডেকে নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য যে, শনিবার ওই ছাত্রী নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনকারীদের পক্ষে ৯ দফা দাবি উত্থাপন করে বক্তব্য ও বিবৃতি পাঠ করেছিল। সেখানে বলা হয়, বাসের ধাক্কায় কিংবা চাপা পড়ে যখনই আন্দোলনে গেছে শিক্ষার্থীরা, ততোবারই আশ্বাসের বাণী শুনতে হয়েছে৷ কিছুদিন ভাল যায়। আবারও সড়কে রক্ত ঝরে। শিক্ষার্থীরা মারা যায়, ফেরে না সড়কে শৃঙ্খলা, অব্যবস্থাপনা কাটে না গণপরিবহনে। তাই কোনো আশ্বাস নয়, আর বিশ্বাসও নয়।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৫০ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৮, ২০২১
এসজেএ/এমএমজেড

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa