ঢাকা, শনিবার, ৮ আষাঢ় ১৪৩১, ২২ জুন ২০২৪, ১৪ জিলহজ ১৪৪৫

জাতীয়

‘আব্বু, তোমার অনেক কষ্ট হয়েছিল তাই না’, আনারকন্যার আবেগঘন স্ট্যাটাস

নিউজ ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯১৩ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
‘আব্বু, তোমার অনেক কষ্ট হয়েছিল তাই না’, আনারকন্যার আবেগঘন স্ট্যাটাস বাবা আনোয়ারুল আজিম আনারের সঙ্গে মেয়ে ডরিন

ভারতে ঝিনাইদহ-৪ (কালীগঞ্জ উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারের খুন হওয়ার ঘটনায় মুষড়ে পড়েছেন তার মেয়ে মুমতারিন ফেরদৌস ডরিন।

নৃশংসভাবে বাবার খুন হওয়ার বিষয়টি তার মন ভেঙে চুরমার করে দিয়েছে।

সেই ব্যথার বহিঃপ্রকাশ ঘটলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুকে।  বাবাকে নিয়ে আবেগঘন স্ট্যাটাস দিয়েছেন ডরিন।

বুধবার (২২ মে) রাত ১০টায় ও আজ বৃহস্পতিবার (২৩ মে) সকাল সাড়ে ৬টার দিকে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুকে আবেগঘন দুটি পোস্ট করেন ডরিন।

প্রথম পোস্টে ডরিন লিখেছেন— ‘আব্বু তোমার অনেক কষ্ট হয়েছিল তাই না? তুমি তো আমাকে নিয়ে যেতে চেয়েছিলে, আমিই যাইনি। ভিসা ছিল না আমার। আমি তোমার কষ্টের ভাগ নিতে পারলাম না। তুমি কত কষ্ট পেয়েছ, এটা ভাবলে আমার বেঁচে থাকার ইচ্ছা শেষ। আমি তোমার এত আঘাত-ব্যথা সহ্য করতে পারি না। আল্লাহ কি নেই? এত কষ্ট দিয়ে কোনো মানুষ মানুষকে মারতে পারে বলে আমার জানা ছিল না। আমি বিচার চাই, আমি বিচার চাই। আমি ওদের লাশ দেখতে চাই নির্মমভাবে। ’

বৃহস্পতিবার সকালের পোস্টে তিনি লেখেন, ‘আমি আব্বু ডাকতে পারি না। আমি তো এতিম। তুমি কি দেখতেছো আব্বু?’

এছাড়া বুধবার বিকাল সোয়া ৩টার দিকে এক স্ট্যাটাসে ডরিন লিখেছিলেন, ‘আমি আমার বাবার হত্যার বিচার চাই। প্রধানমন্ত্রী আমাকে বলেছেন, ধৈর্য ধরো বিচার হবে। ’ 

এর আগে বুধবার দুপুরে ডিবি কার্যালয়ে গিয়ে বাবা হত্যার বিচার চেয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন ডরিন।  

তিনি বলেন, এরই মধ্যে জেনেছি যে, আমার বাবাকে হত্যা করা হয়েছে। এটা শুনেই আমি ডিবিপ্রধান হারুন আঙ্কেলের কাছে এসেছি। তারা তিনজনকে ধরেছেন। আমি মামলা করব। ডিএমপি কমিশনার, ডিবিপ্রধান ও প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আমার কথা হয়েছে। সবাই আমাকে আশ্বস্ত করেছেন। ডিবি আন্তরিকতার সঙ্গে বিষয়টি দেখছে।

ডরিন আরও বলেন, আমার বাবাকে কারা হত্যা করেছে, কেন করেছে, এর সুষ্ঠু তদন্ত চাই। আমি এর শেষ দেখতে চাই, তারা কেন বাবাকে হত্যা করেছে?

এ ঘটনায় জড়িত গ্রেপ্তারদের চেনেন কি না জানতে চাইলে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, আমি তাদের চিনি না। কিন্তু আমি তাদের চিনতে চাই।

তিনি বলেন, সর্বশেষ আমি ভিডিও কলে বাবার সঙ্গে কথা বলেছি। তিনি বলেছেন, ইন্ডিয়া যাচ্ছি, কয়েকদিন পর চলে আসব। কিন্তু আর আসেননি। আমি এই ঘটনার কোনো কিছুই জানি না। তবে আমি সব জানতে চাই। কেন মারল আমার বাবাকে। আমি হত্যাকারীদের ফাঁসি চাই।

প্রসঙ্গত, ভারতে ‘চিকিৎসা’ করাতে গিয়ে খুন হন ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনার। গোয়েন্দা সূত্র বলছে, একসময়ের বাল্যবন্ধু ও ব্যবসায়িক অংশীদার আক্তারুজ্জামান ওরফে শাহীনের পরিকল্পনায় তাকে হত্যা করা হয়েছে। হত্যাকাণ্ডে নেতৃত্বে দেন ভাড়াটে খুনি ও চরমপন্থি নেতা আমানুল্লাহ। তার সঙ্গে আরও চারজন হত্যার সঙ্গে জড়িত ছিলেন।  

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৭ ঘণ্টা, মে ২৩, ২০২৪
এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।