ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৮ মে ২০২৪, ১৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

টোকিও ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে অংশ নিল বাংলাদেশ

ডিপ্লোম্যাটিক করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২০০৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
টোকিও ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে অংশ নিল বাংলাদেশ

ঢাকা: টোকিও ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে অংশ নিয়েছে বাংলাদেশ। ১৭-১৯ এপ্রিল তিন দিনব্যাপী এই ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৯ এপ্রিল) টোকিওর বাংলাদেশ দূতাবাস জানায়, ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড জাপানের ফ্যাশন শিল্পের জন্য সবচেয়ে বড়ো ট্রেড শো। এ বছর সারা বিশ্ব থেকে প্রায় ৮০০টি পোশাক, ব্যাগ, জুতা, টেক্সটাইল, চামড়া ও ফ্যাশন আনুষঙ্গিক উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠান মেলায় অংশগ্রহণ করেছে। বাংলাদেশ এক দশকেরও বেশি সময় ধরে টোকিও ফ্যাশন ওয়ার্ল্ডে অংশ নিচ্ছে।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের রপ্তানি উন্নয়ন ব্যুরোর (ইপিবি) বাজার উন্নয়ন উদ্যোগের আওতায় বাংলাদেশের পোশাক ও চামড়া শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ১২টি স্বনামধন্য রপ্তানিকারক প্রতিষ্ঠান এবার মেলায় অংশগ্রহণ করেছে।

জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ ১৭ এপ্রিল মেলার প্রথম দিনে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন উদ্বোধন করেন।

বাংলাদেশ দূতাবাস একই দিনে টোকিও বিগ সাইট এ ‘মেড ইন বাংলাদেশ টেক্সটাইল, চামড়া ও পাটজাত পণ্য’ শীর্ষক সেমিনারের আয়োজন করে। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্যে রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ বাংলাদেশ থেকে আরও বেশি পরিমাণে মানসম্পন্ন পণ্য আমদানির জন্য জাপানি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিদের প্রতি আহ্বান জানান।

জাপান টেক্সটাইল প্রোডাক্টস কোয়ালিটি অ্যান্ড টেকনোলজি সেন্টারের পরিচালক ও জেনারেল ম্যানেজার কেই ফুনাকি বাংলাদেশে তাদের ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতার ওপর পাওয়ার পয়েন্ট প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন। বাংলাদেশ দূতাবাসের মিনিস্টার (বাণিজ্য) ড. আরিফুল হক বাংলাদেশে জাপানি ব্যবসায়িদের জন্য ব্যবসার সম্ভাবনা এবং দূতাবাসে প্রদত্ত সেবার কথা উল্লেখ করেন। সেমিনারটি জাপান এক্সটারনাল ট্রেড অর্গানাইজেশন (জেট্রো) এবং ইউনিডো আইটিপিও টোকিওর সহায়তায় আয়োজন করা হয়।

এছাড়া ১৯ এপ্রিল সন্ধ্যায় বাংলাদেশ দূতাবাস দূতাবাসের বঙ্গবন্ধু মিলনায়তনে ব্যবসায়ী প্রতিনিধি, প্রবাসী বাংলাদেশি ব্যবসায়ী এবং দূতাবাসের কর্মকর্তাদের অংশগ্রহণে একটি মতামত বিনিময় সভা ও নেটওয়ার্কিং ইভেন্টের আয়োজন করে।

উল্লেখ্য, জাপান বাংলাদেশের রপ্তানি পণ্যের জন্য অত্যন্ত সম্ভাবনাময় বাজার। ২০২২-২৩ সালে জাপানে বাংলাদেশের রপ্তানি ছিল ১ দশমিক ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলার, যা আগের বছরের তুলনায় উল্লেখযোগ্যভাবে বেশি। মেলায়  অংশগ্রহণকারীরা আশা প্রকাশ করেন ফ্যাশন ওয়ার্ল্ড টোকিওতে বাংলাদেশের অংশগ্রহণ জাপানের বাজারের বিদ্যমান হিস্যা ধরে রাখতে এবং রপ্তানি বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

বাংলাদেশ সময়: ২০০৬ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৯, ২০২৪
টিআর/এফআর

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।