ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ৩০ মে ২০২৪, ২১ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

নীলফামারীতে প্রতিবন্ধী নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২২৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
নীলফামারীতে প্রতিবন্ধী নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণ, গ্রেপ্তার ৬

নীলফামারী: নীলফামারীতে এক বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।  

রোববার (১৪ এপ্রিল) গভীর রাতে সদর উপজেলার গোড়গ্রাম ইউনিয়নের হাজীগঞ্জ বাজার থেকে তাদের গ্রেপ্তার করা হয়।

 

গ্রেপ্তাররা হলেন - বড়াইবাড়ী কীর্তনীয়াপাড়া গ্রামের মো. ইব্রাহিমের ছেলে আতাউর ইসলাম (৩৫), ডুংকিটারী গ্রামের সুলতান আলীর ছেলে মো. রফিকুল ইসলাম (৪৯), গোড়গ্রাম কীর্তনীয়াপাড়া গ্রামের জমির উদ্দিনের ছেলে মো. আলী হোসেন (৪৫), ডাঙ্গাপাড়া গ্রামের হাচেন আলীর ছেলে মো. জামিয়ার রহমান (৪২), হাজীপাড়া গ্রামের কান্দুরা মামুদের ছেলে মো. সিরাজুল ইসলাম (৪৫) ও ডুংকিটারী গ্রামের মৃত হাফিজের ছেলে মো. গোলাম মোস্তফা (৪২)।

ধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনকে গ্রেপ্তারের তথ্য নিশ্চিত করেন নীলফামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম।

তিনি জানান, সোমবার (১৫ এপ্রিল) বিকেলে গ্রেপ্তারদের আদালতের মাধ্যমে জেলা কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ ও এলাকাবাসীরা জানায়, হাজীগঞ্জ বাজারে ভাসমান অবস্থায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী হালিমা নামের এক নারীকে সুকৌশলে আসামিরা অটো মেকার সিরাজুল ইসলামের দোকানের পেছনে ডেকে নিয়ে যায়। সেখানে ওই নারীর মুখ চেপে ধরে ধর্ষণ করেন তারা। পরে ওই নারীকে নির্যাতন করে বাজার থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়।

বিষয়টি গোড়গ্রাম ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. মাহবুব জজ রাতে জানতে পেরে ছয়জনকে আটক করে পুলিশে খবর দেন। রাতেই পুলিশ এসে তাদের গ্রেপ্তার করে থানায় নিয়ে আসে এবং ওই নারীকে উদ্ধার করে।

নীলফামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তানভীরুল ইসলাম জানান, হাজীগঞ্জ বাজারে ভাসমান অবস্থায় বুদ্ধি প্রতিবন্ধী নারীকে ধর্ষণের অভিযোগে ছয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ২২২৭ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৫, ২০২৪
এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।