ঢাকা, শনিবার, ৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ১৮ মে ২০২৪, ০৯ জিলকদ ১৪৪৫

জাতীয়

জাজিরায় আমবাগানে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ, পরিবারের অভিযোগ ‘হত্যা’

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট  | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯০৮ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
জাজিরায় আমবাগানে যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ, পরিবারের অভিযোগ ‘হত্যা’ লতিফ মোড়ল (৩৪)

শরীয়তপুর: শরীয়তপুরের জাজিরায় আমবাগান থেকে লতিফ মোড়ল (৩৪) নামে এক যুবকের ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পরিবারের অভিযোগ, হত্যার পর তার মরদেহ গাছে ঝুলিয়ে রাখা হয়েছে।

শুক্রবার (১২ এপ্রিল) রাত ১১টার দিকে উপজেলার পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকা থেকে মরদেহটি উদ্ধার করা হয়। শনিবার (১৩ এপ্রিল) দুপুরে জাজিরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

লতিফ মোড়ল জাজিরা উপজেলার ইয়াসিন আকন কান্দি এলাকার সামসুল মোড়লের ছেলে।

স্থানীয়, স্বজন ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, লতিফ মোড়ল নামের ওই যুবকের একই এলাকার একটি মেয়ের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। আট বছর আগে মেয়েটির বিয়ে হয়ে যায়। তবে মেয়েটির সঙ্গে তার যোগাযোগ ছিল। শুক্রবার সন্ধ্যায় মেয়েটির সঙ্গে মাঝিরঘাট এলাকায় গেলে স্থানীয়রা লতিফ মোড়লকে মারধর করে ও আটকে রাখে। এ ঘটনা লতিফ মোড়লের পরিবার জানতে পারে। তবে তারা সেখানে যাওয়ার আগেই লতিফ মোড়লকে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে বলে জানানো হয়।  

এরপর থেকেই লতিফ মোড়লের মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। পরে রাত ১০টার দিকে পালেরচর ইউনিয়নের দড়ি কান্দি এলাকার একটি আমবাগানে তার ঝুলন্ত মরদেহ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেন স্থানীয়রা। খবর পেয়ে ছুটে যান পরিবারের সদস্যরাও।

লতিফ মোড়লের ভাই সজিব মোড়ল অভিযোগ করে বলেন, ওই মেয়ে বিয়ের পরও আমার ভাইকে ফোনকল দিতো। তাছাড়া মেয়ের স্বামী সালামও আমার ভাইয়ের সঙ্গে কথা বলতো। কাল সালাম ফোনকল দিয়ে আমার ভাইকে ডেকে নিয়েছে। ওরা মিলেই আমার ভাইকে মেরে গাছে ঝুলিয়ে দিয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।

এ ব্যাপারে জাজিরা থানার ওসি হাফিজুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহটি উদ্ধার করেছে পুলিশ। মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য সদর হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট এলে সব বলা যাবে।

বাংলাদেশ সময়: ১৯০৩ ঘণ্টা, এপ্রিল ১৩, ২০২৪
এইচএ/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।