ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৫ অগ্রহায়ণ ১৪৩০, ৩০ নভেম্বর ২০২৩, ১৭ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

জাতীয়

সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকরা ফিরবেন বিকেলে

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ২, ২০২৩
সেন্ট মার্টিনে আটকে পড়া পর্যটকরা ফিরবেন বিকেলে

কক্সবাজার: বৈরী আবহাওয়া কেটে যাওয়ায় দুই দিন পর শুরু হয়েছে কক্সবাজারের টেকনাফ-সেন্ট মার্টিন রুটে পর্যটকবাহী জাহাজ চলাচল।

সোমবার (২ অক্টোবর) সকালে টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে ৩৮৮ যাত্রী নিয়ে ‌‘বার আউলিয়া’ নামের একটি জাহাজ সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে ছেড়ে গেছে।

এই জাহাজে করে দ্বীপে বেড়াতে গিয়ে গত তিন দিন ধরে আটকে পড়া পর্যটকরা বিকেলে ফিরবেন বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।
 
বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট লঘুচাপের কারণে সাগর উত্তাল থাকায় গত শনিবার ও রোববার দুই দিন ওই রুটে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ছিল। এতে গত বৃহস্পতি ও শুক্রবার সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে যাওয়া দুই শতাধিক পর্যটক আটকা পড়েছিলেন।  

দীর্ঘ ৬ মাস পর ২৭ সেপ্টেম্বর বিশ্ব পর্যটন দিবস উপলক্ষে সাত দিনের জন্য জাহাজ চলাচল শুরু করা হয়। ওই দিন ৫১৭ পর্যটক নিয়ে টেকনাফের দমদমিয়া ঘাট থেকে সেন্টমার্টিনের উদ্দেশে ‘বার আউলিয়া’ নামের একটি জাহাজ চলাচল শুরু করেছিল।  

ওই জাহাজের পরিচালক হোসাইনুল ইসলাম বাহাদুর এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, আজ সকালে ৩৮৮ পর্যটক নিয়ে তাদের জাহাজ সেন্ট মার্টিনের উদ্দেশে রওনা করেছে। সব ঠিক থাকলে বিকেলে আটকে পড়া পর্যটকসহ জাহাজটি আবার টেকনাফের দমদমিয়া ঘাটে ফিরবেন।
 
তিনি জানান, বুধবার থেকে আজ পর্যন্ত প্রায় আড়াই হাজার পর্যটক সেন্ট মার্টিন ভ্রমণে গেছেন।  

টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আদনান চৌধুরী জানিয়েছেন, আবহাওয়া পরিস্থিতি অনুকূলে আসায় জাহাজ চলাচল শুরু করা হয়েছে। আটকে পড়া পর্যটকরা আজ সেন্ট মার্টিন থেকে ফিরবেন।

ইউএনও বলেন, বিশ্ব পর্যটন দিবসকে সামনে রেখে সেন্ট মার্টিনে পর্যটক যাতায়াতের জন্য ‘বার আউলিয়া’ নামের একটি জাহাজ এক সপ্তাহের জন্য অনুমোদন দেওয়া হয়েছিল। আবহাওয়া পরিস্থিতির ওপর জাহাজ চলাচল নির্ভর করবে।

এদিকে গত শুক্রবার টেকনাফ থেকে সেন্ট মার্টিন যাওয়ার পথে একটি স্পিডবোট নাইক্ষ্যংদিয়া এলাকায় উল্টে যায়। এতে সেন্ট মার্টিন ইউনিয়নের সাবেক ইউপি সদস্যের মৃত্যু হয়েছে। এ সময় ১৭ পর্যটকসহ ২৩ জনকে উদ্ধার করেছেন কোস্ট গার্ডের সদস্যরা।

বাংলাদেশ সময়: ১৩৩৫ ঘণ্টা, অক্টোবর ০২, ২০২৩
এসবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।