ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

আইন ও আদালত

যুবকের মাথা বিচ্ছিন্ন, তিন আসামির যাবজ্জীবন

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৪১ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
যুবকের মাথা বিচ্ছিন্ন, তিন আসামির যাবজ্জীবন

কুষ্টিয়া: কুষ্টিয়ার ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) টেন্ডারকে কেন্দ্র করে যুবকের দেহ থেকে মাথা বিচ্ছিন্ন করার মামলায় তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সঙ্গে তাদের ২৫ হাজার টাকা করে জরিমানা করা হয়েছে।

 

মঙ্গলবার (২৯ নভেম্বর) দুপুরে কুষ্টিয়া জেলা ও দায়রা জজ অতিরিক্ত আদালত-১ এর বিচারক মো. তাজুল ইসলাম আসামিদের অনুপস্থিতিতে এ রায় দেন।  

দণ্ডপ্রাপ্ত হলেন কুষ্টিয়া সদর উপজেলার পশ্চিম আবদালপুর গ্রামের ইসহাক আলী মাস্টারের ছেলে বড় কালু ওরফে আলী রেজা সিদ্দিক ওরফে বুলবুল (৪৩), মৃত্তিকাপাড়ার মৃত এছেম আলীর ছেলে মনোয়ার হোসেন ওরফে মনো (৪৫) ও মাইজপাড়ার আব্দুল জলিলের ছেলে লিয়াকত (৪৫)।

আসামিরা মামলা চলাকালে বিভিন্ন সময় আদালত থেকে জামিন নিয়ে আত্মগোপন করেছেন।  

সরকারী কৌঁসুলি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী এসব তথ্য জানান।

আদালত সূত্রে জানা যায়, ২০০৯ সালের ২৭ জুন বিকেলে ঝিনাইদহের গোলকনগর গ্রামের আজিবর বিশ্বাসের ছেলে লিটন বিশ্বাস (৩০) বাড়ি থেকে বাইসাইকেল নিয়ে বের হয়ে আর ফেরেননি। পরদিন সকালে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটকের সামনে কুষ্টিয়া-ঝিনাইদহ মহাসড়কের পূর্ব পাশে তার মাথা পায় ইবি থানা পুলিশ। এ ঘটনায় পরদিন ২৮ জুন নিহতের বাবা বাদী হয়ে অজ্ঞাতনামা ব্যক্তিদের আসামি করে ইবি থানায় হত্যা মামলা করেন।

মামলার তদন্ত শেষে ২০১১ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি ইবি থানার সেই সময়ের উপপরিদর্শক (এসআই) মুজিবুর রহমান ৩০২/২০১/৩৪ পেনাল কোডের অভিযোগে ২৪ জনের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেন আদালতে।
 
আদালতে রাষ্ট্রপক্ষের পিপি অ্যাডভোকেট অনুপ কুমার নন্দী জানান, অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ হওয়ায় তিনজনকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড ও ২৫ হাজার টাকা করে অর্থদণ্ড, অনাদায়ে আরও এক বছর করে কারাদণ্ড দেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় বাকি ২২ আসামিকে বেকসুর খালাস দেওয়া হয়েছে।  

বাংলাদেশ সময়: ১৮৩৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ২৯, ২০২২
এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa