ঢাকা, শনিবার, ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৪ ডিসেম্বর ২০২১, ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

ইসলাম

শীর্ষ আলেমদের আহবান

আগামীকাল দেশব্যাপী দোয়া দিবস পালন করুন

ইসলাম ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৫
আগামীকাল দেশব্যাপী দোয়া দিবস পালন করুন

৩ জানুয়ারি থেকে চলমান মাসব্যাপী দেশের রাজনৈতিক অঙ্গনে যে অস্থিরতা শুরু হয়েছে তা ক্রমাগত বেড়েই চলছে। বিরোধী জোটের অভিযোগ, সরকার ক্ষমতায় থাকতে বিরোধী পক্ষীয় রাজনৈতিক নেতা-কর্মীসহ সাধারণ মানুষকে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষার নামে নির্বিচারে গ্রেফতার ও নির্যাতন করে দমন করার চেষ্টা করছে।

সরকারের এমন কঠোর ব্যবস্থার বিরুদ্ধে কোনো কথা বলা যাচ্ছে না। অন্যদিকে সরকারের বক্তব্য হলো, লাগাতার অবরোধ-হরতালের নামে গাড়িতে পেট্রোল বোমা নিক্ষেপ করে সাধারণ জনগণকে যারা পুড়িয়ে মারছে তারা দুর্বৃত্ত, তাদের প্রতি কোনো ছাড় নেই। তাদের দমনে সরকার যেকোনো পথ অবলম্বন করতে পিছপা হবে না।

দুই দলের এমন মারমুখী অবস্থানের প্রেক্ষিতে সাধারণ মানুষ আজ দিশেহারা। গোটা দেশের মানুষ চরম উদ্বেগ ও উৎকণ্ঠায় নিমজ্জিত। দেশের অর্থনীতি ও শিক্ষা ব্যবস্থা ভেঙ্গে পড়ার দ্বারপ্রান্তে উপনীত। নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্রের দাম দিন দিন বাড়ছে।

দেশের চলমান এ সংঘাতময় পরিস্থিতি থেকে নিষ্কৃতি পাওয়ার জন্য মহান আল্লাহতায়ালার সাহায্য ও রহমত ছাড়া আমাদের আর কোনো গত্যন্তর নেই। তাই আল্লাহতায়ালার রহমত কামনার নিমিত্তে আগামীকাল (৬ ফেব্রুয়ারি, শুক্রবার) দেশের সর্বস্তরের জনগণের প্রতি নফল রোজা পালন ও মসজিদে মসজিদের বিশেষ দোয়া করার আহবান জানিয়েছেন দেশের শীর্ষস্থানীয় আলেমরা।

আল্লাহতায়ালা কোরআনে কারিমে ইরশাদ করেন, ‘জলে-স্থলে ঘটে যাওয়া সব বিপর্যয় (বিপদ-আপদ) মানুষের কৃতকর্মের ফল। ’ -সূরা আর রূম : ৪১
এই আয়াতের প্রেক্ষিতে শীর্ষ আলেমরা তাদের দেওয়া বিবৃতিতে বলেন, ‘আমরা মনে করি আমাদের গোনাহ ও অপরাধের কারণে আজকে দেশ বিপর্যয়ের মুখে। এজন্য আল্লাহতায়ালার কাছে তওবা-ইস্তেগফার ও কান্নাকাটি করে দোয়ার আমল করতে হবে। একমাত্র আল্লাহতায়ালাই পারেন আমাদেরকে এ বিপর্যয়কর অবস্থা থেকে পরিত্রাণ দিতে। তাই দেশের সর্বস্তরের মানুষের প্রতি আগামীকাল শুক্রবার দেশের সকল মসজিদ, মাদরাসা ও ঘরে ঘরে সম্মিলিত ও ব্যক্তিগতভাবে খতমে ইউনুস পাঠ (লা ইলাহা ইল্লা আনতা সুবহানাকা ইন্নী কুনতু মিনাজ জোয়ালেমীন) ও দোয়ার আয়োজন করার আহ্বান জানিয়েছেন। সেই সঙ্গে মা-বোনসহ সকল মুসলমানদের প্রতি নফল রোজা পালনেরও আহ্বান জানিয়েছেন।

বিবৃতিদাতাগণ হলেন, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের অভিভাবক পরিষদের চেয়ারম্যান শায়খুল হাদিস আল্লামা আশরাফ আলী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের আমীর প্রিন্সিপাল মাওলানা হাবীবুর রহমান, নায়েবে আমীর মাওলানা ইউসুফ আশরাফ, হাফেজ মাহমুদুল হক, মাওলানা আফজালুল রহমান, মাওলানা যোবায়ের আহমাদ আনসারী, মাওলানা ইসমাঈল নুরপুরী, মাওলানা খোরশেদ আলম কাসেমী, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মুফতি মাওলানা মাহফুজুল হক, মিরপুর জামিউল উলুম মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আবুল বাশার, জামিয়া ওয়াহিদিয়ার প্রিন্সিপাল মাওলানা জোবায়ের আহমদ, আশরাফুল মাদারিসের প্রিন্সিপাল মাওলানা ইসমাঈল হোসাইন, আদাবর মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা মাহমুদুর রহমান, বাবুস সালাম মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা আনিসুর রহমান, মিরপর দারুস সালাম মাদরাসার প্রিন্সিপাল আবদুল কাইয়ুম, মারকাজুল কোরআন মাদ্রাসার মুহতামিম মাওলানা ইলিয়াস হামিদ, আগারগাঁও মাদরাসার মুহতামিম মাওলানা নোমান মুহিববুল্লাহ, লালমাটিয়া মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ফারুক আহমাদ ও বাইতুল ফালাহ মাদরাসার প্রিন্সিপাল মাওলানা ত্বালহাসহ প্রমুখ শীর্ষ আলেম।

বাংলাদেশ সময় : ১৫১৫ ঘণ্টা, ফেব্রুয়ারি ০৫, ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa