ঢাকা, বুধবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮, ০৮ ডিসেম্বর ২০২১, ০৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

ইসলাম

ইজতেমায় মুসল্লিদের সুবিধার্থে অজুর পানি ও নামাজের পেপার

শেখ জাহাঙ্গীর আলম, স্টাফ করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৩৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৫
ইজতেমায় মুসল্লিদের সুবিধার্থে অজুর পানি ও নামাজের পেপার ছবি : বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

বিশ্ব ইজতেমা ময়দান থেকে: টঙ্গীর তুরাগ তীরে বিশ্ব ইজতেমায় জুমার নামাজ আদায় করতে ঢাকা-গাজীপুর ও এর আশপাশের এলাকা থেকে দলে দলে অংশ নিতে আসেন লাখো লাখো ধর্মপ্রাণ মুসল্লি।
 
মুসল্লিদের অনেকেই এ দিন নামাজের মুসলা হাতে প্রবেশ করেন ইজতেমা ময়দানে।

তবে যারা নামাজের মুসলা সঙ্গে নিয়ে আসেননি তাদের উদ্দেশে ময়দানের বাইরের রাস্তায় বিক্রি হচ্ছে পুরনো খবরের কাগজ। এছাড়া, রয়েছে মুসল্লিদের সুবিধার্থে অজুর পানিও।
 
শুক্রবার (১৬ জানুয়ারি) বিশ্ব ইজতেমার দ্বিতীয় ও শেষ পর্বে আখেরি জুমার নামাজের আগে ময়দানের একটি প্রবেশ মুখে সরেজমিনে এ চিত্র দেখা যায়।
 
এ বিষয়ে পুরনো খবরের কাগজ বিক্রেতা আলামিন বাংলানিউজকে জানান, প্রতি ইজতেমায় নামাজের আগে আর মোনাজাতের দিন আমরা লোকজনের বসার জন্য পেপার বিক্রি করি। পেপার এক পৃষ্ঠা ২ টাকা মাত্র।

মানুষের উপকারেই তাদের এই ব্যবস্থা বলে জানান তিনি।
 
শুধু পুরনো খবরের কাগজ বিক্রিই নয় ময়দানের পূর্বপাশে শহীদ আহসানউল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামের দেওয়াল ঘেঁষে চলছে অজুর পানি বিক্রি। দেওয়ালের পাশে সারি সারি অজুর বদনা রাখা হয়েছে। আছে পর্যাপ্ত পানির ব্যবস্থাও। বিভিন্ন জেলা থেকে আসা মুসল্লিদের যাতে অজু করতে সমস্যা না হয়, সে জন্য তাদের এই ব্যবস্থা বলে জানান পানি বিক্রেতা রবিন। টঙ্গী স্টেশন রোডে তার বাসা।
 
রবিন বাংলানিউজকে আরও জানান, আমরা মানুষের অজুর সুবিধার জন্য এখানে পানির ব্যবস্থা করে রেখেছি। অজুর বদনা দেওয়া আছে। প্রতি বদনা পানির দাম ৫ টাকা।
 
মুসল্লিদের এখান থেকে অজু করে ময়দানে প্রবেশ করতে দেখা গেছে। মুসল্লিরা জানান, হাতের কাছে এই সুবিধা তাদের বেশ উপকারেই এসেছে।
 
বাংলাদেশ সময়: ১৫২৬ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৬, ২০১৫

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa