ঢাকা, মঙ্গলবার, ২২ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ০৬ ডিসেম্বর ২০২২, ১১ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

আন্তর্জাতিক

জাপানের ওপর দিয়ে উ. কোরিয়ার ‘বিপজ্জনক’ ব্যালিস্টিক উৎক্ষেপণ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৬ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২২
জাপানের ওপর দিয়ে উ. কোরিয়ার ‘বিপজ্জনক’ ব্যালিস্টিক উৎক্ষেপণ

জাপানের ওপর একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণ করেছে উত্তর কোরিয়া। গত ১০ দিনের মধ্যে এটি দেশটির পঞ্চম উৎক্ষেপণ।

আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে, পাঁচ বছরের মধ্যে প্রথমবারের মতো জাপানের ওপর দিয়ে একটি ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র ছুড়েছে উত্তর কোরিয়া।

খবরে আরও বলা হয়, জাপানের উপকূলরক্ষী ও দক্ষিণ কোরিয়ার জয়েন্ট চিফস অফ স্টাফ ক্ষেপণাস্ত্রটিকে ‘বিপজ্জনক’ ব্যালিস্টিক হিসেবে শনাক্ত করেন। এটি শনাক্ত করার পর উত্তর জাপানের বাসিন্দাদের সুবিধামতো আশ্রয় নিতে সতর্কীকরণ সাইরেন বাজানো হয়েছিল। সাময়িকভাবে স্থগিত করা হয় উত্তর-পূর্ব হোক্কাইডো ও আওমোরি অঞ্চলে ট্রেন পরিষেবা। পরে ক্ষেপণাস্ত্রটি জাপানের ওপর দিয়ে উড়ে গিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে গিয়ে পড়েছে।

এর আগে ২০১৭ সালে প্রথমবারের মতো জাপানের ওপর দিয়ে ব্যালিস্টিক উৎক্ষেপণ করে উত্তর কোরিয়া। সেবার জাপানের প্রধানমন্ত্রী ফুমিও কিশিদা ঘটনাটিকে ‘বর্বর কাজ’ বলে নিন্দা করেছিলেন।

ব্যালিস্টিক উৎক্ষেপণের ঘটনায় উত্তর কোরিয়ার প্রতি কড়া প্রতিক্রিয়া জানান দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইউন সুক ইওল। এ ব্যাপারে তার কার্যালয় থেকে একটি বিবৃতিও জারি করা হয়। এতে বলা হয়, উত্তর কোরিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জোরদারসহ বিভিন্ন প্রতিরোধমূলক ব্যবস্থা চাইবে সিউল।

জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ার সরকার প্রধানগণ নিজ নিজ জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠক ডেকেছেন।

যুক্তরাষ্ট্রের দ্য ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড (এনএসসি) বলেছে, উত্তর কোরিয়ার অব্যাহত উস্কানি সহ্য করা যাবে না। তাদের এ ঘটনার চরম মূল্য দিতে হবে।

টোকিও এবং সিউলের কর্মকর্তারা বলেছেন, উ. কোরিয়ার উৎক্ষেপিত ক্ষেপণাস্ত্রটি প্রায় ১ হাজার কিলোমিটার (৬২০ মাইল) উচ্চতায় সর্বোচ্চ সাড়ে চার হাজার বা ৪ হাজার ৬০০ কিলোমিটার (২৮০০ থেকে ২৮৫০ মাইল) উড়ছিল। চীনের সীমান্তের কাছে গিয়ে প্রশান্ত মহাসাগরে পড়ার আগে এটি প্রায় ২২ মিনিট বাতাসে ভেসেছিল।

টোকিও জানিয়েছে, উত্তর কোরিয়া গর্হিত কাজ করলেও তারা এর বিপরীতে কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। দেশটির প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইয়াসুকাজু হামাদা বলেছেন, এ অবস্থায় পাল্টা আক্রমণ ক্ষমতাসহ কোনো বিকল্প উড়িয়ে দেয়া যাচ্ছে না।

জাপান সরকারের শীর্ষ মুখপাত্র হিরোকাজু মাতসুনো বলেন, উত্তর কোরিয়ার বারবার ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণসহ ধারাবাহিক পদক্ষেপগুলো জাপান ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের শান্তি-নিরাপত্তার জন্য হুমকিস্বরূপ। জাপানসহ সমগ্র আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের জন্য একটি গুরুতর চ্যালেঞ্জ তৈরি করেছে।

উত্তর কোরিয়ার এ কর্মকাণ্ডের পর যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জ্যাক সুলিভান ও পররাষ্ট্র মন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন দক্ষিণ কোরিয়া এবং জাপানে তাদের সমকক্ষদের সঙ্গে কথা বলেছেন। জাপানের ওপর দিয়ে ক্ষেপণাস্ত্র উৎক্ষেপণের বিপজ্জনক ও বেপরোয়া সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দাও জানিয়েছেন তারা।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২৮ ঘণ্টা, অক্টোবর ৪, ২০২২
এমজে

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa