ঢাকা, শনিবার, ১৮ আষাঢ় ১৪২৯, ০২ জুলাই ২০২২, ০১ জিলহজ ১৪৪৩

আন্তর্জাতিক

‘মাঙ্কিপক্স’ নিয়ে ৩ বছর আগেই সতর্ক করেছিল বিজ্ঞানীরা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৫৩ ঘণ্টা, মে ২২, ২০২২
‘মাঙ্কিপক্স’ নিয়ে ৩ বছর আগেই সতর্ক করেছিল বিজ্ঞানীরা ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বে ক্রমেই উদ্বেগ বাড়াচ্ছে মাঙ্কি ভাইরাস তথা মাঙ্কিপক্স। ইতোমধ্যে বেলজিয়াম, ফ্রান্স, জার্মানি, ইতালি, নেদারল্যান্ডস, পর্তুগাল, স্পেন, সুইডেন, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা ও অস্ট্রেলিয়ায় এই মাঙ্কিপক্স’ এর সংক্রমণ শনাক্ত হয়েছে।

গত ৭ মে প্রথম মাঙ্কি পক্সে আক্রান্ত রোগীর খোঁজ মেলে লন্ডনে।  

বিজ্ঞানীদের একাংশের দাবি, সময় মতো সতর্ক হলেই আটকানো যেত এই সংক্রমণ। এমনকি, ২০১৯ সালেই লন্ডনের একটি বিজ্ঞান সম্মেলনে বিজ্ঞানীরা হুঁশিয়ারিও দিয়েছিলেন, এই মাঙ্কি ভাইরাস নিয়ে।  
কিন্তু সে সময়ে কর্ণপাত করেননি কেউই। ৩ বছর পরে সেই ভবিষ্যৎবাণী ফলে যেতেই আক্ষেপ করছে বিশেষজ্ঞদের একাংশ।

 ‘কেমব্রিজ বিশ্ববিদ্যালয়’ ও ‘লন্ডন স্কুল অব ট্রপিক্যাল হাইজিন অ্যান্ড মেডিসিন’-এর বিশেষজ্ঞদের দাবি, ১৯৮০ সালের পর পৃথিবী থেকে প্রায় নির্মূল হয়ে গিয়েছে স্মল পক্স বা গুটিবসন্ত। তাই স্মল পক্সের টিকা নেওয়ার প্রবণতাও কমে এসেছে। ফলে বহু মানুষের দেহে গুটিবসন্ত প্রতিরোধ করার মতো ক্ষমতা নেই। আর সেই সুযোগেই গুটিবসন্তের এই সমগোত্রীয় মাঙ্ক পক্স আক্রমণ করছে মানবদেহকে।  

১৯৫৮ সালে প্রথম বার এই মাঙ্কি পক্স ভাইরাসের হদিশ মেলে। কঙ্গোতে ১৯৭০ সালে প্রথম বারের জন্য মানবদেহে এই ভাইরাসের সংক্রমণ চিহ্নিত ও লিপিবদ্ধ করা হয়। ব্রিটেনে ২০১৮ সালে প্রথম বার এই ভাইরাসে আক্রান্ত রোগীর খোঁজ পান বিশেষজ্ঞরা। কিন্তু সে বার এমন হারে ছড়ায়নি সংক্রমণ।  

বাংলাদেশ সময়: ১২৫০ ঘণ্টা, মে ২২, ২০২২
এসএ
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa