ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৬ মাঘ ১৪২৮, ২০ জানুয়ারি ২০২২, ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

তথ্যপ্রযুক্তি

‘বিল্ড ভুটান’ কর্মসূচিতে বাংলাদেশের ‘ডিজিটাল মাস্টার’    

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০১১২ ঘণ্টা, নভেম্বর ৪, ২০২১
‘বিল্ড ভুটান’ কর্মসূচিতে বাংলাদেশের ‘ডিজিটাল মাস্টার’
 

 

ঢাকা: ‘বিল্ড ভুটান' কর্মসূচি বাস্তবায়নে বাংলাদেশ থেকে গ্রাফিক্স ডিজাইন ও মাল্টিমিডিয়া বিষয়ক মাস্টার ট্রেইনার নেওয়ার আগ্রহ প্রকাশ করেছে ভুটান। এছাড়া বাংলাদেশ থেকে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ নেওয়ারও আগ্রহ দেখিয়েছে দেশটি।


 
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বারের সঙ্গে বুধবার (৩ নভেম্বর) সচিবালয়ে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে ভুটানের রাষ্ট্রদূত রিনচেন কুয়েনতসি ভুটান সরকারের এ আগ্রহের কথা ব্যক্ত করেন।
 
সাক্ষাৎকালে তারা পারস্পরিক স্বার্থ সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়াদি, বিশেষ করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে বাংলাদেশ থেকে ইন্টারনেট ব্যান্ডউইথ আমদানি করার বিষয়ে ভুটানের প্রধানমন্ত্রীর প্রস্তাবের ধারাবাহিকতায় ব্যান্ডউইথ নেওয়ার প্রস্তাব নিয়ে আলোকপাত করেন। গত মার্চে ভুটানের প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ সফরকালে এ প্রস্তাব দিয়েছিলেন। বৈঠকে ব্যান্ডউইথের সুবিধাজনক রেট নিয়েও আলোকপাত হয়। ভুটান-ভারত-বাংলাদেশ যাতে সুবিধাজনক ট্রান্সমিশান রেট পায়, সে বিষয়টি নিয়ে আলোকপাত হয়।
 
ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বাংলাদেশ ও ভুটানের মধ্যকার বিদ্যমান চমৎকার বন্ধুপ্রতীম সম্পর্ক অত্যন্ত তাৎপর্যপূর্ণ ও ঐতিহাসিক বলে উল্লেখ করেন। তিনি মুক্তিযুদ্ধে ভুটানের সহযোগিতা এবং স্বাধীন বাংলাদেশের প্রথম স্বীকৃতি প্রদানকারী দেশ হিসেবে ভুটানের ভূমিকা তুলে ধরেন এবং ভুটানের প্রতি গভীর কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।
 
মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ ও ভুটানের ভূ-প্রকৃতি, ইতিহাস, ঐতিহ্য এবং জীবনধারা প্রায় এক ও অভিন্ন।  

তিনি দেশের ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশে বাংলাদেশের অগ্রগতি তুলে ধরে বলেন, ডিজিটাল প্রযুক্তি বিকাশে পৃথিবীর যে কয়টি দেশ এগিয়ে, বাংলাদেশ তার মধ্যে অন্যতম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দূরদৃষ্টিসম্পন্ন ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ার কর্মসূচি বিশ্বে অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছে।
 
মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা দেশের প্রতিটি ইউনিয়নে ডিজিটাল সংযোগ পৌঁছে দিয়েছি। ১৯৯৭ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা মোবাইল ফোন সাধারণের নাগালে পৌঁছে দিতে যেসব যুগান্তকারী কর্মসূচি নিয়েছেন, তারই ধারাবাহিকতায় দেশে ১৭ কোটি মোবাইল সিম ব্যবহৃত হচ্ছে। দেশের কারখানা শতকরা ৭০ ভাগ মোবাইল সেটের চাহিদা পূরণ করতে সক্ষম। আমরা ৫জি মোবাইল সেট উৎপাদন ও রপ্তানি করছি।
 
রাষ্ট্রদূত ভুটান ও বাংলাদেশের মধ্যকার ঐতিহাসিক সম্পর্ককে আগামী দিনগুলোতে অনন্য এক উচ্চতায় উপনীত করতে তার প্রচেষ্টার কথা ব্যক্ত করেন। তিনি বাংলাদেশের অব্যাহত অগ্রগতি বিশেষ করে ডিজিটাল প্রযুক্তি খাতের অগ্রগতির প্রশংসা করেন। তিনি বলেন, বাংলাদেশ শুধু ভুটানের পরীক্ষিত বন্ধুই নয়, গুরুত্বপূর্ণ বাণিজ্যিক অংশীদারও।
 
মন্ত্রী বিল্ড ভুটান কর্মসূচি বাস্তবায়নে সম্ভাব্য সব ধরনের প্রযুক্তিগত সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।
 
এসময় বিটিসিএল ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. রফিকুল মতিন, সাবমেরিন ক্যাবল কোম্পানি লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মশিউর রহমান এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পরিচালক সাবাব বিন আহমেদ উপস্থিত ছিলেন।
 
বাংলাদেশ সময়: ০১০৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ৪, ২০২১
এমআইএইচ/এসআই

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa