ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ২৭ শ্রাবণ ১৪২৯, ১১ আগস্ট ২০২২, ১২ মহররম ১৪৪৪

ভারত

পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের রঙে রঙিন হচ্ছে কলকাতাবাসীও

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২১১৮ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২২
পদ্মা সেতুর উদ্বোধনের রঙে রঙিন হচ্ছে কলকাতাবাসীও

কলকাতা: প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আগামী শনিবার (২৫ জুন) বাংলাদেশের সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে নির্মিত পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন। সেই উৎসবের রঙ ছড়িয়ে পড়েছে গোটা বাংলাদেশে।

আর সেই রঙের আভাস পড়েছে পশ্চিমবাংলাতেও। ভারতের গণমাধ্যমগুলোর সহযোগিতায় কলকাতা কারও আর জানতে বাকি নেই বাংলাদেশের পদ্মা সেতুর বিষয়। আর সে কারণে পদ্মা সেতুর উদ্বোধন নিয়ে বাংলাদেশের সঙ্গে আগ্রহ বাড়ছে কলকাতাবাসীর মধ্যে।

আগামী শনিবার প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যখন পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করবেন তখন সেই অনুষ্ঠান সরাসরি সম্প্রচার হবে কলকাতায়। কলকাতাস্থ বাংলাদেশ ডেপুটি হাইকমিশনের উদ্যোগে স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় বাংলাদেশ গ্যালারিতে সেই সম্প্রচারের আয়োজন করেছে।

পাশাপাশি পদ্মা সেতুর উদ্বোধন নিয়ে গোটা কলকাতায় ব্যানার, হোডিংয়ে ছেয়ে গেছে। শহরের বিভিন্ন প্রান্তে ডিজিটাল ও এনালগ ব্যানার-হোডিং দেওয়া হয়েছে। ব্যানারের ক্যাপশন- বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের বাংলাদেশ বাস্তবায়নে, সম্পূর্ণ নিজস্ব অর্থায়নে, বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে, পদ্মা সেতু। নিচে দেওয়া আছে উদ্বোধনের দিনক্ষণ।  

সে কারণে ৬.১৫ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য পদ্মা সেতুর উদ্বোধন নিয়ে যথেষ্ট আগ্রহ বাড়ছে কলকাতাবাসীর মধ্যে। এর কারণ শহরবাসী ইতোমধ্যে বুঝতে পেরেছে পদ্মা সেতুর বাস্তবায়নে শুধুমাত্র বাংলাদেশের অভূতপূর্ণ উন্নতি ঘটবে না, একইসঙ্গে উন্নতি হবে ভারত তথা বিশেষ করে পশ্চিমবঙ্গে। দুদেশের যাতায়াত ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নতি হওয়ার কারণে আর্থিক উন্নতিও ঘটবে পশ্চিমবঙ্গেও। বিশেষ করে উন্নতির আঁচ এসে পড়বে কলকাতাতেও।  

পদ্মা সেতুর কারণে ঢাকা-কলকাতায় সময়ের দূরত্ব যেমন কমবে তেমন বাণিজ্যিক-সাংস্কৃতিক যোগাযোগের আরও উন্নতি ঘটবে। ৪২টি পিলারসহ মোট ২১.৬৫ মিটার প্রস্ত পদ্মা সেতুর ফলে বাংলাদেশ-ভারতের মধ্যে যোগাযোগ, অর্থনীতি-শিল্পক্ষেত্রে ব্যাপক প্রসার হবে। এ যুগান্তকারী উন্নয়নের সঙ্গে রেল ব্যবস্থা চালু হলে দুদেশের মধ্যে যোগাযোগ ব্যবস্থা আরও সহজ হবে। ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে একটা অভূতপূর্ব বাণিজ্য সম্প্রসারণের একটা নব দিগন্তের উন্মোচন হবে বলেই মনে করছে কলকাতাবাসী। তাই আগামী শনিবার মন থেকে সেই উৎসবে সামিল হয়েছে ভারতের বঙ্গবাসী।

বাংলাদেশ সময়: ২১১৭ ঘণ্টা, জুন ২৪, ২০২২
ভিএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa