ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ মাঘ ১৪২৮, ২৭ জানুয়ারি ২০২২, ২৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

ভারত

কলকাতা বইমেলার থিম কান্ট্রি বাংলাদেশ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ২২৪৯ ঘণ্টা, নভেম্বর ১২, ২০২১
কলকাতা বইমেলার থিম কান্ট্রি বাংলাদেশ

কলকাতা: চলমান করোনা অতিমারি পর্বে এক বছর স্থগিত থাকার পর পুরনো ছন্দেই সল্টলেক সেন্ট্রাল পার্কে আয়োজিত হতে চলেছে কলকাতা বইমেলা। সম্প্রতি বইমেলার আনুষ্ঠানিক দিনক্ষণ প্রকাশ করেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

শুক্রবার (১২ নভেম্বর) সেই বইমেলার আয়োজন ঘিরে গিল্ডের পরিকল্পনা সরকারিভাবে সামনে আনা হলো। সেখানে জানানো হলো, ২০২২ সালের আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলার থিম কান্ট্রি ‘বাংলাদেশ’ই থাকছে। এ নিয়ে তিনবার কোনো দেশ কলকাতা বইমেলায় থিম কান্ট্রি হলো।

২০২০ সালে কলকাতায় শেষ বইমেলা আয়োজিত হয়েছিল। সেবার থিম কান্ট্রি ছিল রাশিয়া। তবে শেষ বইমেলায় আয়োজক কমিটির তরফে বলা হয়েছিল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের জন্মশতবর্ষ, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বোসের ১২৫তম জন্মজয়ন্তী, ভারতের স্বাধীনতার ৭৫ বছর, বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছর ও ভারত-বাংলাদেশের মৈত্রীর সুবর্ণজয়ন্তী। সে কারণে আগামী বইমেলার থিম কান্ট্রি হবে বাংলাদেশ।

যদিও এ সিদ্ধান্ত ২০২১ সালের জন্য ছিল। কিন্তু করোনার কারণে ২০২১ এ বন্ধ ছিল এ আন্তর্জাতিক বইমেলার আয়োজন। তাই ২০২২ সালের জন্য ওই সিদ্ধান্তকেই আনুষ্ঠানিকভাবে সিলমোহর দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ও বইমেলার আয়োজক পাবলিশার্স অ্যান্ড বুক সেলার্স গিল্ডের কতৃপক্ষ। সে কারণেই বাংলাদেশকে থিম করেই আগামী বছরের ৩১ জানুয়ারি থেকে ১৩ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত চলবে কলকাতা বইমেলা।

পাশাপাশি গত দেড় বছরে একাধিক শিল্পী, সাহিত্যিক, অভিনেতা ও গুণীজনকে হারিয়েছে বাংলা। সেই তালিকায় রয়েছেন সাবেক রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়, অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়, কবি শঙ্খ ঘোষ, বুদ্ধদেব গুহ, পরিচালক বুদ্ধদেব দাশগুপ্ত, সাংবাদিক অঞ্জন বন্দ্যোপাধ্যায়, মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায় প্রমুখ। তাদের স্মৃতি ও কর্মজীবনকে স্মরণ করে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে ১৪ দিনব্যাপী এ বইমেলায়। এদিনের আয়োজিত সাংবাদিক বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন গিল্ডের সভাপতি সুধাংশু শেখর দে, সম্পাদক ত্রিদিব চট্টোপাধ্যায় ও যুগ্ম সম্পাদক রাজু বর্মণসহ প্রমুখরা।

প্রতিবারের মতো আসন্ন বইমেলায় কেনাবেচার পাশাপাশি চলবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। পাশাপাশি চলবে অষ্টম কলকাতা সাহিত্য উৎসব। বাংলাদেশের পাশাপাশি বিশ্বের বিভিন্ন দেশ, ভারতের নানা রাজ্যের প্রকাশনা সংস্থা ও অন্যতম জনপ্রিয় লিটল ম্যাগাজিন স্টল থাকবে মেলা প্রাঙ্গণে। তবে আর কোন কোন দেশ এবারের বইমেলায় অংশগ্রহণ করবে তার তালিকা এখনো ঠিক করা হয়নি। তাই সব প্রকাশনা সংস্থা, প্রকাশক, পুস্তক বিক্রেতা ও লিটল ম্যাগাজিনসহ সব আবেদনপত্র আগামী ৩০ নভেম্বর জমা দিতে অনুরোধ করেছে গিল্ড কতৃপক্ষ।  

বাংলাদেশ সময়: ২২৪৬ ঘণ্টা, নভেম্বর ১২, ২০২১
ভিএস/আরবি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa