ঢাকা, সোমবার, ১ বৈশাখ ১৪৩১, ১৫ এপ্রিল ২০২৪, ০৫ শাওয়াল ১৪৪৫

ভারত

বর্ষাহীন কলকাতায় ক্যালেন্ডারেই আষাঢ়-শ্রাবণ

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৩৩২ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০১৯
বর্ষাহীন কলকাতায় ক্যালেন্ডারেই আষাঢ়-শ্রাবণ কলকাতার একটি রেলস্টেশন। ছবি: বাংলানিউজ

কলকাতা: বন্যায় বিধ্বস্ত গোটা আসাম রাজ্য। বৃষ্টিতে ভেসে যাচ্ছে পশ্চিমবঙ্গের উত্তরের জেলাগুলোও। কিন্তু রাজ্যের দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলোতে আষাঢ় পেরিয়ে শ্রাবণ আসলেও বৃষ্টির দেখা নেই বললেই চলে। 

সোমবার (২২ জুলাই) ছিল শ্রাবণ মাসের পাঁচ তারিখ। কলকাতার আকাশ দেখে কে বলবে, বর্ষাকাল চলছে।

দিগন্ত থেকে দিগন্ত ঝলমলে নীল আকাশ, সাদা তুলোর মতো মেঘ সঙ্গে অস্বস্তিকর গরম, যা গরমকালকেও হার মানায়। লোকমুখে একটাই প্রশ্ন, এবার বৃষ্টি কি হবে না? 

বর্ষা যে কার্যত উধাও তা অবশ্য আবহাওয়া অফিসের তথ্যে চোখ রাখলেই বোঝা যাচ্ছে। ১ জুন থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলের মধ্যে পশ্চিমবঙ্গ বর্ষার ঘাটতিতে দ্বিতীয়।

বর্ষার ঘাটতিতে স্বাভাবিক ভাবেই চাষের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। কৃষকেরা বলছেন, এ সময় থেকেই ধান চাষ শুরু হয়। বীজতলার কাজ শুরু হয়। ফলে বৃষ্টি না হলে সে কাজ ক্ষতিগ্রস্ত হবে। এ পরিস্থিতিতে চাষের কাজে একমাত্র সহায় ভূগর্ভের পানি। তবে তাতেও আশঙ্কা থাকছে। কারণ বর্ষা না হওয়ায় পশ্চিমবঙ্গের ভূগর্ভস্থ পানির স্তরও অনেকটা নেমে গেছে।  

পরিবেশ এবং আবহাওয়াবিদরা বলছেন, আবহাওয়া বদলের প্রভাবে বর্ষার চরিত্র বদলাচ্ছে।  

এ বিষয়ে কলকাতার আবহাওয়া দফতরের কর্মকর্তা গনেশ কুমার দাস বলেন, বঙ্গোপসাগরে কোনো নিম্নচাপ তৈরি হলে বর্ষা জোর পাবে। কিন্তু এবার সে পরিস্থিতিও দেখা যাচ্ছে না।

বাংলাদেশ সময়: ০৯৩২ ঘণ্টা, জুলাই ২৩, ২০১৯
ভিএস/এইচএডি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।