ঢাকা, সোমবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৪ রজব ১৪৪৪

ভারত

সৃজিতের ‘শাহজাহান রিজেন্সি’তে ভিন্নরকম কলকাতা

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫৪৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০১৯
সৃজিতের ‘শাহজাহান রিজেন্সি’তে ভিন্নরকম কলকাতা শাহজাহান রিজেন্সি সিনেমার একটি দৃশ্য।

কলকাতা: স্বয়ং উত্তম কুমার নয়। তবে তার অভিনীত বেশকিছু সিনেমা পরপর রিমেক করে চলেছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। আর সেই সুবাদেই মুক্তি পেল ‘শাহজাহান রিজেন্সি’। 

সাহিত্যিক শংকরের রচিত ‘চৌরঙ্গী’ উপন্যাস অবলম্বনে তৈরি হয়েছে সিনেমাটি। যদিও কয়েক দশক আগে ‘চৌরঙ্গী’ নামে একটি সিনেমা তৈরি করেছিলেন পিনাকীভূষণ মুখোপাধ্যায়।

সেখানে বিখ্যাত চরিত্র ‘স্যাটা বোসের’ ভূমিকায় দেখা গিয়েছিল উত্তম কুমারকে। তাতে অন্যান্য চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন শুভেন্দু চট্টোপাধ্যায়, বিশ্বজিৎ চট্টোপাধ্যায়, সুপ্রিয়া দেবী। ১৯৬৮ সালে মুক্তি পেয়েছিল সিনেমাটি। তৎকালীন কলকাতা হয়ে উঠেছিল ছবির প্রেক্ষাপট। আর তার ঠিক ৫১ বছর পর চলতি বছরে কিছুটা ভিন্নভাবে বর্তমান সময়ের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে দর্শকদের সামনে পরিচালক সৃজিত উপস্থাপনা করলেন ‘শাজাহান রিজেন্সি’।
 
কেমন হলো সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের শাহজাহান রিজেন্সি? ছবিতে রোজি থেকেও নেই। তবে ভীষণভাবে আছে কমলিনী। প্রথমেই যার অভিনয় সবার মনে দাগ কাটবে তিনি স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। কমলিনীর চরিত্রে স্বস্তিকা অনবদ্য। তিনি যে সুদক্ষ অভিনেত্রী তা আরও একবার প্রমাণ করলেন। ভালো লেগেছে রুদ্রনীলকেও। শাহজাহান রিজেন্সির মালিক মকরন্দ পালের চরিত্রে অঞ্জন দত্তকে সামান্য রঞ্জিত লেগেছে। আরেকটু সুন্দর টিউনিং প্রয়োজন ছিল হয়তো। তবে আভিজাত্যপূর্ণ লেগেছে ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। ছবির শেষে বলা হচ্ছে, তিনি হলেন শাহজাহান রিজেন্সির বিবেক। তবে এর উত্তর হয়তো জানেন একমাত্র পরিচালকই।
 
শ্যামের চরিত্রে আবির চট্টোপাধ্যায়কে ভালো লাগলেও এবারও উত্তম কুমারকে টপকাতে পারলেন না তিনি। এর আগে উত্তম অভিনীত ব্যোমকেশ বকশীর রিমেকে দেখা গিয়েছিল আবিরকে। তবে এ যুগের অভিনয়ের নিরিখে আবির বেশ মানানসই। মানানসই পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ও। অবাক করবে মমতা শঙ্করের অভিনয়। সেটাই হয়তো ছবির ইউএসপি। ছবিতে আলাদা মাত্রা এনেছে স্বস্তিকা এবং মমতা শঙ্করের ঝগড়ার দৃশ্যটা।
 
এবার আসা যাক পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের প্রসঙ্গে। পরপর হিট সিনেমা দেওয়ায় স্বাভাবিকভাবে দর্শকদের প্রত্যাশা অনেকখানি। তার একক করিশমায় শহরের শিক্ষিত বাঙালিকে হলমুখী করতে পারেন তিনি। সেটা অবশ্য অটোগ্রাফের সময় থেকেই দেখে আসছে দর্শক। শাহজাহান রিজেন্সিতে সৃজিতের লেন্সে ধরা পড়ল এক অন্য কলকাতা শহর। যে শহর আধুনিক, সাহসী এবং সময়ের সঙ্গে তাল মিলিয়ে এগিয়ে চলছে। পুরোনো সবকিছু ভেঙে-চুরে নতুনের প্রতিস্থাপনা হয়ে উঠেছে শাহজাহান রিজেন্সি। ছিমছাম পরিষ্কার সিনেমাটোগ্রাফি। সংলাপের ঈষৎ মারপ্যাঁচ দর্শকদের উত্তেজিত করে তুলবেই।
 
একটি পাঁচতারা হোটেলের প্রেক্ষাপটে নতুন বাঙালি সমাজের চিত্রায়ন করা কঠিন কাজ নয়, তা আবার প্রমাণ করলেন সৃজিত মুখোপাধ্যায়। তাই প্রিয়জনকে নিয়ে শাহজাহান রিজেন্সির জন্য হলমুখী হচ্ছেন দর্শকরা।  

ছবিতে অভিনয় করেছেন ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়, আবির চট্টোপাধ্যায়, রুদ্রনীল ঘোষ, অঞ্জন দত্ত, অনির্বাণ ভট্টাচার্য, স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়, অঞ্জন দত্ত, ঋত্বিকা সেন, মমতা শংকর, উষসী চক্রবর্তী, শৌরসেনী মৈত্র, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী তথা অভিনেতা বাবুল সুপ্রিয় প্রমুখ। সুর ও স্বর দিয়েছেন অনুপম, দীপাংশু, ঋতম।
 
বাংলাদেশ সময়: ১০৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০১৯
ভিএস/আরবি/

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa