ঢাকা, মঙ্গলবার, ২৩ মাঘ ১৪২৯, ০৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ১৫ রজব ১৪৪৪

ভারত

মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ নির্মাতা শ্রীকান্ত গ্রেফতার 

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৮৫৭ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০১৯
মুখ্যমন্ত্রীর ঘনিষ্ঠ নির্মাতা শ্রীকান্ত গ্রেফতার  শ্রীকান্ত মোহতা।

কলকাতা: ৩০ কোটি রুপির আর্থিক তছরুপের অভিযোগ বৃহস্পতিবার (২৪ জানুয়ারি) বিখ্যাত চলচ্চিত্র নির্মাতা শ্রীকান্ত মোহতাকে গ্রেফতার করেছে সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন-সিবিআই। তছরুপ ও প্রতারণার অভিযোগসহ একাধিক ধারায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। 

সিবিআই-এর দাবি, রোজ ভ্যালি সংস্থার কর্ণধার গৌতম কুণ্ডুর সঙ্গে চুক্তির যুক্তিসঙ্গত কারণ দেখাতে পারেননি শ্রীকান্ত মোহতা। বেশ কিছু সিনেমা প্রযোজনার নাম করে গৌতম কুণ্ডুর কাছ থেকে ৩০ কোটি রুপি নিয়েছিলেন তিনি।

 

অভিযোগ রয়েছে, এই বিপুল অর্থের বিনিময়ে কোনো পরিষেবা দেয়নি শ্রীকান্তের সংস্থা। রোজ ভ্যালির কর্ণধার গৌতম কুণ্ডু সিবিআইকে জানিয়েছেন, প্রভাবশালীদের সঙ্গে যোগাযোগ তৈরি করতেই এই চুক্তি করেছিলেন শ্রীকান্ত মোহতা।  

এছাড়া সিবিআইয়ের অভিযোগ, রোজ ভ্যালির মতো চিটফান্ডের ব্যবসা বাড়ানোর জন্য সহযোগিতা করেন শ্রীকান্ত মোহতা। এরপরও প্রভাব খাটিয়ে গ্রেফতারি এড়ানোর কোনো চেষ্টাই বাদ রাখেননি শ্রীকান্ত।

বারবার ডাকলেও সিবিআইয়ের দফতরে হাজিরা দেননি তিনি। বারবার তার সঙ্গে যোগাযোগ করা হলেও সাড়া দেননি শ্রীকান্ত মোহতা। উল্টো কলকাতা পুলিশকে ডেকেও তিনি সিবিআই কর্মকর্তাদের হেনস্থা করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।  

সিবিআই সূত্র বলছে, রোজ ভ্যালি ছাড়া সারদা চিটফান্ডেও নাম উঠে এসেছে শ্রীকান্ত মোহতার। সারদার কর্ণধার সুদীপ্ত সেনের কাছ থেকেও শ্রীকান্ত মোটা অংকের টাকা নিয়েছেন। নির্দিষ্ট কিছু অনুষ্ঠানে মধ্যস্থতাকারীর ভূমিকায় সুদীপ্ত সেনের কাছ থেকে কোটি কোটি রুপি নিয়েছেন তিনি।  

রোজ ভ্যালি এবং সারদার থেকে নেওয়া রুপি কোন কোন প্রভাবশালীর কাছে গেছে এবং কার নির্দেশে নির্মাতা শ্রীকান্ত এ কাজ করেছেন- দীর্ঘদিন এ প্রশ্নের উত্তর না পেয়ে অবশেষে তাকে গ্রেফতার করেছে সিবিআই।

বছর চারেক আগে সারদা ও রোজ ভ্যালি চিটফান্ডের কর্ণধার সুদীপ্ত সেন এবং গৌতম কুণ্ডুকে হাজার হাজার কোটি রুপির তছরুপে কারণে গ্রেফতার করে সিবিআই। একই ঘটনায় অভিনেতা ও সংসদ সদস্য তাপস পাল, সুদীপ বন্দোপাধ্যায় এবং রাজ্যের পরিবহনমন্ত্রী মদন মিত্রকেও গ্রেফতার করা হয়।  

লোকসভা নির্বাচনের আগে মুখ্যমন্ত্রী ঘনিষ্ঠ চলচ্চিত্র নির্মাতাকে গ্রেফতার করায় রাজ্যের শাসক দলের কাছে যথেষ্ট অস্বস্তিকর বলে মনে করছেন রাজনৈতিক মহল। তবে এ বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের এখন কেউ কোনো প্রতিক্রিয়া দেয়নি।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৪৩ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৫, ২০১৯
ভিএস/এমএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa