ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ আশ্বিন ১৪২৯, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৭ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

ভারত

'চোখ' সাহিত্য সম্মাননা পেলেন সামিয়া রহমান

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৬২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ৭, ২০১৮
'চোখ' সাহিত্য সম্মাননা পেলেন সামিয়া রহমান

কলকাতা: চোখ সাহিত্য সম্মাননা পেলেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ও নিউজ টোয়েন্টিফোরের  হেড অব কারেন্ট অ্যাফেয়ার্সের দায়িত্বপ্রাপ্ত সামিয়া রহমান।

বৃহস্পতিবার (০৬ সেপ্টেম্বর) কলকাতার বাংলা একাডেমিতে চোখ সাহিত্য পত্রিকায় উদ্যোগে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। এসময় সম্মান তুলে দেন 'চোখ' পত্রিকার সভাপতি তথা কবি ও কলকাতা দূরদর্শনের সাবেক ডিরেক্টর পঙ্কজ সাহা।

আর সামিয়া রহমানকে উত্তরীয় দিয়ে বরণ করেন বাংলাদেশ উপদূতাবাসের প্রথম সচিব মোফাকখারুল ইকবাল।

সম্মাননা নেওয়ার পর সামিয়া রহমান বলেন, এত গুণীজনদের সঙ্গে মঞ্চ ভাগ করে নিতে পেরেছি, এটা আমার কাছে গর্বের। বিশেষ করে যে মঞ্চে মমতা শঙ্করের মত ব্যক্তিত্ব আছেন। সেই মঞ্চে আমিও আছি। দিনটা আজ আমার কাছে গর্বের এবং এ পত্রিকার সম্পাদক মানিক দা কে বিশেষ করে ধন্যবাদ জানাচ্ছি, আমার মতো এক ক্ষুদ্র মানুষকে এ সম্মান দেওয়ার জন্য।  

'আমি মনে করি দেশ, দেশের মত থাকবে। রাজনীতি, রাজনীতির মত থাকবে। এগুলো আমরা বদলাতে পারবো না। কিন্তু যেখানে ভাষা এবং সংস্কৃতি এক, সেই নাড়িরটানকে আমরা কখনই অস্বীকার করতে পারি না। এটা তখনই টিকে থাকবে যখন আমাদের দুই বাংলার মধ্যে যোগাযোগ আরও বাড়বে। তিক্ততা যেটুকু হয় বা ভুল বোঝাবুঝি যে টুকু হয় আসলে আমি মনে করি সেটুকু রাজনীতিবিদদের কলমের খোচাতে হয় বা তাদের মুখের কথায় হয়। আমাদের কিন্তু মানুষে মানুষে ভালোবাসা রয়েই গেছে এবং এটা থাকবে'।

সামিয়া রহমান বলেন, তবে আমাদের দেশের অনুষ্ঠান এখানে অর্থাৎ কলকাতায় সম্প্রচার হয় না। আপনাদের সব কিছু আমরা দেখতে পাই কিন্তু আমাদের কিছুই আপনাদের দেখাতে পারি না। এটা আমার কাছে বড় আক্ষেপের। আমি মনে করি মানুষে মানুষে সুসম্পর্ক আরও সুদৃঢ় হবে তখনই যখন বেশি করে সাংস্কৃতিক যোগাযোগ বাড়বে। কিন্তু সেক্ষেত্রে আমরা কোনো কিছুই সম্প্রচার করতে পারছি না। এটা আমাদের কাছে বড় দুঃখের বিষয়। আপনাদের প্রতি আন্তরিক কৃতজ্ঞ এখানে আসতে পেরে এবং অনেক ভালোবাসা রইলো কলকাতার মানুষদের জন্য।

১৯৯৩ সাল থেকে পথ চলা শুরু চোখ পত্রিকার এবং ২০০১ সাল থেকে টানা ১৮ বছর কয়েকটি ক্যাটাগরিতে দুই বাংলার বিশিষ্টজনদের সম্মাননা দিয়ে আসছে। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য বঙ্গবন্ধু স্মারক, অন্নদাশঙ্কর স্মারক ও চোখ সাহিত্য স্মারক।  

এবারে ‘বঙ্গবন্ধু স্মারক’ সম্মাননা পেলেন প্রখ্যাত যাদুকর পিসি সরকার (জুনিয়র)। তার অনুপস্থিতে সেই স্মারক গ্রহণ করেন মেয়ে তথা বিশিষ্ট অভিনেত্রী মুমতাজ সরকার। এছাড়াও বিশেষ বঙ্গবন্ধু স্বারক -২০১৮ তুলে দেওয়া হয় অভিনেত্রী মমতা শঙ্করের হাতে। "বিজয় স্মারক" নামে একটি সম্মননা তুলে দেওয়া হয় বাংলাদেশের বিশিষ্ট বাচিক শিল্পী সীমা ইসলামের হাতে এবং যোগমায়া দে স্মৃতি-১৪২৫ নামে স্মারক প্রদান করা হয় অভিনেত্রী মুমতাজ সরকারকে।  
 
এর আগে অনুষ্ঠানের শুরুতে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান সামিয়া রহমান ও কলকাতাস্থ বাংলাদেশ দূতাবাসের প্রথম সচিব মোফাকখারুল ইকবাল ও "চোখ" পত্রিকার সম্পাদক মানিক দে সহ বিশিষ্টজনেরা। স্মারক প্রদান মধ্যে দুই বাংলার শিল্পীদের নিয়ে একটি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানেরও আয়োজন করা হয়।  

বাংলাদেশ সময়: ১২১৫ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ০৭, ২০১৮
ভিএস/এসএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa