ঢাকা, বুধবার, ৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২২ মে ২০২৪, ১৩ জিলকদ ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

‘দেশে স্বল্প শয্যার ৬৩টি হাসপাতাল অকেজো’

সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১২৪৪ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০১৭
‘দেশে স্বল্প শয্যার ৬৩টি হাসপাতাল অকেজো’ স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম (ফাইল ফটো)

ঢাকা: সাধারণ মানুষের স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিত করতে বিভিন্ন সময়ে দেশের কয়েকটি অঞ্চলে ১০-২০ শয্যা বিশিষ্ট নির্মিত ৬৩টি হাসপাতালের অধিকাংশ এখন সেবা দিতে পারছে না।

বৃহস্পতিবার (২৬ জানুয়ারি) বিকেলে সচিবালয়ে ১০ ও ২০ শয্যাবিশিষ্ট সরকারি হাসপাতাল সংস্কার ও চালুকরণ সংক্রান্ত সভায় এ তথ্য জানানো হয়।

চিকিৎসক ও নার্স অপ্রতুলতা এবং ভবন ও যন্ত্রপাতি রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে হাসপাতালগুলো এখন অব্যবহৃত অবস্থায় পড়ে আছে।

চিকিৎসক, নার্সসহ প্রয়োজনীয় জনবল নিয়োগ দিলে অবকাঠামোগত দিক দিয়ে ব্যবহার উপযোগী কয়েকটি হাসপাতাল দ্রুত সময়ের মধ্যে চালু করা সম্ভব বলে সভায় জানানো হয়।

অকার্যকর হয়ে পড়ে থাকা ১০ ও ২০ শয্যার হাসপাতালগুলোর হালনাগাদ তথ্য সরেজমিন পরিদর্শন করে আগামী ১৫ দিনের মধ্যে জমা দিতে বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালক ও সিভিল সার্জনদের নির্দেশ দিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম।

অবকাঠামোগত দিক দিয়ে সেবা দেওয়ার উপযোগী আছে এমন ১৫টি হাসপাতাল দ্রুততম সময়ের মধ্যে চালু করার ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

এসময় হাসপাতালগুলোর সার্বিক পরিস্থিতি এবং নতুন ভাবে চালু করতে সম্ভাব্য পদ্ধতি সম্পর্কে পাওয়ার পয়েন্ট উপস্থাপন করেন মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য অর্থনীতি ইউনিটের মহাপরিচালক আসাদুল ইসলাম।

মন্ত্রী আগামী ১৫ দিনের মধ্যে সব ক’টি হাসপাতালের সমস্যা চিহ্নিত করে বর্তমান পরিস্থিতি সম্পর্কে তথ্য সংগ্রহ এবং দ্রুততম সময়ের মধ্যে ১৫টি হাসপাতাল কার্যকর করার জন্য নির্দেশ দেন।

সভায় স্বাস্থ্য সচিব সিরাজুল ইসলাম, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক অধ্যাপক  ডা. আবুল কালাম আজাদসহ মন্ত্রণালয় ও অধিদফতরের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪০ ঘণ্টা, জানুয়ারি ২৬, ২০১৭
এমএন/বিএস

 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।