ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৯, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ০৪ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

ভোলায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১ শিশুর মৃত্যু

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৫১৫ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০১৬
ভোলায় নিউমোনিয়ার প্রকোপ, ১ শিশুর মৃত্যু ছবি: বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম

ভোলা: ঠাণ্ডা বেড়ে যাওয়ায় ভোলায় হঠাৎ করেই বৃদ্ধি পেয়েছে নিউমোনিয়ার প্রকোপ। শীতে ঠাণ্ডাজনিত রোগে আক্রান্ত শিশুদের ভীড় বাড়ছে হাসপাতালে।

তাদের চিকিৎসা দিতে গিয়ে হিমশিম খাচ্ছেন চিকিৎসক ও নার্স।

এদিকে বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) দুপুরে নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে আরিয়ান (৬ মাস) নামে একটি শিশু চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে।

এছাড়া গত এক সপ্তাহে নিউমোনিয়া ও ঠাণ্ডাজনিত রোগে ভোলা সদর হাসপাতালে দেড় শতাধিক রোগী চিকিৎসা নিয়েছে। এখনও অনেক রোগী চিকিসাধীন। তবে পর্যাপ্ত ওষুধ সরবরাহ রয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা।

বাড়ছে শীত সেই সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বৃদ্ধি পাচ্ছে শীতজনিত রোগ-বালাই। ভোলায় শীতজনিত নানা রোগে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হচ্ছে শিশুরা।

এর মধ্যে নিউমোনিয়ার প্রকোপ অনেক বেশি। শিশুদের হাসপাতালে ভর্তি করার পরও চিকিৎসায় কোনো উন্নতি  না দেখে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন স্বজনরা।

এক শিশুর মা রহিমা বেগম বলেন, শিশু ঠাণ্ডায় আক্রান্ত হওয়াতে হাসপাতালে নিয়ে এসেছি, চিকিৎসক বলেছে নিউমোনিয়া, তাই চিকিৎসা চলছে।

বোরহানউদ্দিন থেকে আসা শারমিন আক্তার বলেন, ঠাণ্ডা লেগে সর্দি কাশি ও জ্বর হয়েছে। তাই হাসপাতালে নিয়ে এসেছি।
 
কয়েকজন রোগী অভিযোগ করেন, হাসপাতালে রোগী ভর্তি করা হলেও ঠিকমত চিকিৎসক তাদের খোঁজ খবর নিচ্ছেন না, কোনোরকম একবার এসেই ঘুরে যান।

ভোলা সদর হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, প্রতিটি বেডে শিশুদের ভীড়। এদের মধ্যে অধিকাংশই নিউমোনিয়া আক্রান্ত। নার্স আক্রান্ত শিশুদের চিকিৎসা দিচ্ছেন। তবে রোগীর তুলনায় শয্যা কম থাকায় একই বেডে গাদাগাদি করে শিশুদের থাকতে হচ্ছে।

ভোলা সদর হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স লক্ষ্মী রানী সরকার বলেন, শীত বাড়ায় রোগও বৃদ্ধি পেয়েছে। ২ জানুয়ারি থেকে ১৩ জানুয়ারি পর্যন্ত ১৩০ জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। ১৫ জানুয়ারি দুপুর পর্যন্ত হাসপাতালে ২৩ জন রোগী চিকিৎসাধীন রয়েছে। এদের সবাই ঠাণ্ডাজনিত রোগ ও নিউমোনিয়া আক্রান্ত।

এদিকে, ভোলা সদর হাসপাতালে বৃহস্পতিবার নিউমোনিয়া আক্রান্ত হয়ে আরিয়ান (৬মাস) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। নিহত আরিয়ান বোরহানউদ্দিন উপজেলার পৌর ৮ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা মো. সবুজের ছেলে।

হাসপাতাল সূত্র জানায়, গত কয়েকদিন থেকে শিশুটি নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত ছিলো। বৃহস্পতিবার শিশুটিকে বোরহানউদ্দিন থেকে মুমূর্ষু অবস্থায় ভোলা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ভর্তি করার কিছুক্ষণের মধ্যে শিশুটি মারা যায়।

শুধু সদর হসপাতাল নয়, জেলার ৭টি উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে শিশু রোগীদের ভীড় বাড়ছে।

এ ব্যাপারে ভোলার সিভিল সার্জন ডা. ফরিদ আহম্মদ বলেন, কোনো শিশু যেন নিউমোনিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মারা না যায় সেদিকে খেয়াল রাখতে হবে। তাদের চিকিৎসার জন্য নেবুলাইজার, অক্সিজেন এবং এন্টিবায়োটিক ওষুধ মজুদ রাখা হয়েছে।

অসহায় দুস্থ গরীব রোগীরা যাতে চিকিৎসা থেকে বঞ্জিত না হয়, সেদিকেও নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

বাংলাদেশ সময়: ১৫১২ ঘণ্টা, জানুয়ারি ১৫, ২০১৬
আরএ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa