ঢাকা, মঙ্গলবার, ১ ভাদ্র ১৪২৯, ১৬ আগস্ট ২০২২, ১৭ মহররম ১৪৪৪

স্বাস্থ্য

পানি ও স্যানিটেশন খাতে সরকারের বরাদ্দ বৈষম্যমূলক

স্টাফ করসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ০৩৩৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪
পানি ও স্যানিটেশন খাতে সরকারের বরাদ্দ বৈষম্যমূলক

ঢাকা: নিরাপদ পানি, স্বাস্থ্যসম্মত স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্য আচরণবিধি খাতে সরকারের বরাদ্দ বৃদ্ধি পেলেও তা বৈষম্যমূলক। রাজধানীর ঢাকাসহ দেশের বড় বড় মেট্রোপলিটন শহরে তা পক্ষপাতমূলক।

এটি গ্রাম ও শহরের মধ্যে নিরাপদ পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্য আচরণবিধি খাতের ব্যাপক বৈষম্য সৃষ্টি করেছে। এজন্য পৃথক প্রকল্প গ্রহণ করা প্রয়োজন।

মঙ্গলবার দুপুরে (২০ ডিসেম্বর) রাজধানীর সিরডাপ মিলনায়তনে বেসরকারি উন্নয়ন সংস্থা ওয়াটারএইড বাংলাদেশ ও ড্রপ আয়োজিত ‘স্থানীয় সরকার বাজেট: পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্য আচরণবিধি খাতের বরাদ্দ ও প্রত্যাশা’ শীর্ষক এক কর্মশালায় এসব কথা বলেন বক্তারা।

কর্মশালায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় প্রতিমন্ত্রী মসিউর রহমান রাঙ্গা।

কর্মশালায় বক্তারা বলেন, চলতি অর্থবছরে ঢাকা ওয়াসা ৬৯৫ কোটি থেকে এক হাজার ৫৮০ কোটি টাকা, খুলনা ওয়াসা ৩৩১ কোটি থেকে ৫২৪ কোটি টাকা, চট্রগ্রাম ওয়াসা ৬০৪ কোটি থেকে ৭৬৫ কোটি টাকা বাজেট বৃদ্ধি পেয়েছে। এটি গ্রাম ও শহেরর মধ্যে বৈষম্য সৃষ্টি করেছে।

এতে ‘জাতীয় বাজেট পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থবিধি খাত: একটি বিশ্লেষণ’ শীর্ষক ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ওয়াটার এইড বাংলাদেশের প্রধান নীতিনির্ধারক শামীম আহমদ।

তিনি বলেন, তিনটি বড় শহরে ওয়াসাকে পানি, স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্য আচরণ বিধি খাতের জন্য বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৭০ শতাংশ আর সারাদেশের জন্য মাত্র ৩০ শতাংশ।   এক্ষেত্রে হাওড়, চর পাহাড়ি এলাকা ও গ্রামের প্রত্যন্ত অঞ্চলে এ বরাদ্দের পরিমাণ খুবই নগণ্য।

 কর্মশালায় আরেকটি ধারণাপত্র উপস্থাপন করেন ড্রপ-এর প্রধান মোহাম্মদ জোবায়ের। তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের প্রতিবছর স্যানিটেশন ও স্বাস্থ্যজনিত রোগের চিকিৎসা বাবদ ২৯৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা ক্ষতি হয়। অথচ এ খাতে সররকারের বরাদ্দ অপ্রতুল।

গণমাধ্যম ব্যাক্তিত্ব মুহাম্মদ জাহাঙ্গীরের সঞ্চালনায় কর্মশালায় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, পরিকল্পনা কমিশন সদস্য অধ্যাপক ড. শামসুল আলম, স্থানীয় সরকা বিভাগের অতিরিক্ত সচিব জুয়েনে আজিজ, জনস্বাস্থ্য
প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী খালেদা আহসান, অর্থ মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব মো. এখলাছুর রহমান।

কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন ওয়াটারএইড-এর প্রতিনিধি ডা. মো. খায়রুল ইসলাম।

বাংলাদেশ সময়: ০৩৩৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০১৪

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa