ঢাকা, রবিবার, ১৭ অগ্রহায়ণ ১৪৩০, ০৩ ডিসেম্বর ২০২৩, ২০ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৫

স্বাস্থ্য

মমেকের ৫০ কোটি টাকার টেন্ডার ৬ সিন্ডিকেটে ভাগাভাগি 

ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮২৬ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩
মমেকের ৫০ কোটি টাকার টেন্ডার ৬ সিন্ডিকেটে ভাগাভাগি 

ময়মনসিংহ: র‌্যাব-পুলিশের নজিরবিহীন নিরাপত্তায় শেষ হয়েছে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ (মমেক) হাসপাতালের প্রায় ৫০ কোটি টাকার টেন্ডার কার্যক্রম। এতে ২৭টি শিডিউল দাখিল হয়েছে।

 

বৃহস্পতিবার (২১ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২টায় শিডিউল দাখিলের নির্ধারিত সময় শেষে ক্রেতাদের উপস্থিতিতে খোলা হয় টেন্ডার বক্স।    

তবে এর আগে অতি গোপনীয়তায় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, ছাত্রলীগসহ প্রভাবশালী ৬টি সিন্ডিকেটে এই টেন্ডারের কাজ ভাগাভাগি করা হয়েছে বলেও জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ট ঠিকাদাররা। আর এসবই হয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের জ্ঞাতসারে।  

এনিয়ে প্রকৃত ঠিকাদারদের মাঝে মিশ্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হলেও প্রকাশ্যে মুখ খুলছে না কেউ।  

সরেজমিনে দেখা যায়, এই টেন্ডারকে কেন্দ্র করে সকাল থেকেই হাসপাতালের পরিচালক কার্যালয়ের সামনে ও আশপাশ এলাকায় নজিরবিহীন নিরাপত্তা জোরদার করে র‌্যাব, থানা পুলিশ ও ডিবি পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য। এতে গোয়েন্দা সদস্যদের অবস্থান ছিল লক্ষণীয়।  

এ সময় পরিচালকের কার্যালয়সহ আশপাশ এলাকায় যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ, মেডিকেল ছাত্রলীগসহ সাবেক ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য। তবে কোনো ধরনের অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই টানটান উত্তেজনার মধ্য দিয়ে শেষ হয়েছে এই শিডিউল কার্যক্রম।

এর আগে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ সাংবাদিকদের বাইরে রেখে হাসপাতালের হলরুমে অংশ নেওয়া শিডিউল ক্রেতাদের নিয়ে টেন্ডার কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিকতা শেষ করেন। তবে এবিষয়ে সাংবাদিকদের আনুষ্ঠানিকভাবে কোনো তথ্য জানানো হয়নি।  

এ সময় হাসপাতালের পরিচালকসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে বার বার চেষ্টা করলেও উপস্থিত সাংবাদিকদের কোনো তথ্য জানানো হয়নি। তবে টেন্ডার কার্যক্রম শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হয়েছে বলে জানিয়েছেন হাসপাতালের উপ-পরিচালক ডা. জাকিউল ইসলাম।  

এদিকে এই টেন্ডার ইস্যুতে এক সংক্ষুব্ধ ঠিকাদার উচ্চ আদালতে একটি রিট পিটিশন দায়ের করেছেন। যার তথ্য হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের ইমেইলে পাঠানো হয়েছে বলেও জানিয়েছে সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র। তবে এবিষয়ে জানতে একাধিকবার যোগাযোগ করা হলেও হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কোন বক্তব্য জানা যায়নি।  

প্রসঙ্গত, চলতি মাসের শুরু থেকে হাসপাতালের যন্ত্রপাতি ক্রয় সংক্রান্ত প্রায় ৫০ কোটি টাকার ঠিকাদারি কাজের শিডিউল বিক্রির কার্যক্রম শুরু করে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এরপর থেকেই জেলা যুবলীগ ও মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের দুইটি পক্ষের মধ্যে বিরোধ সৃষ্টি হলে গত ১৩ সেপ্টেম্বর দুই পক্ষের মধ্যে হাতাহাতি ও সশস্ত্র মহড়ার ঘটনা ঘটে। এ সময় পুলিশের বিপুল সংখ্যক সদস্য ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করে।

বাংলাদেশ সময়: ১৮২১ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০২৩
এসএএইচ

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।