ঢাকা, বুধবার, ২০ আশ্বিন ১৪২৯, ০৫ অক্টোবর ২০২২, ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

ফেব্রুয়ারিতে ১৬ দিনই শ্রীমঙ্গলের তাপমাত্রা ছিল সর্বনিম্ন

বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন, ডিভিশনাল সিনিয়র করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৭০৫ ঘণ্টা, মার্চ ১, ২০২১
ফেব্রুয়ারিতে ১৬ দিনই শ্রীমঙ্গলের তাপমাত্রা ছিল সর্বনিম্ন টিলাঘেরা শ্রীমঙ্গলের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য। ছবি: বিশ্বজিৎ ভট্টাচার্য বাপন

মৌলভীবাজার: ফেব্রুয়ারি মাসের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পর্যবেক্ষণে শ্রীমঙ্গলের অবস্থান ছিল ১৬ দিন। ফেব্রুয়ারি মাসের মোট ২৮টি দিনের মধ্যে অবশিষ্ট ১২টি দিনের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা দেশের অন্যান্য অঞ্চল রয়েছে।

সেসব অঞ্চলগুলো- চুয়াডাঙ্গা, তেঁতুলিয়া এবং রাজারহাট।  

চায়ের রাজধানীখ্যাত শ্রীমঙ্গল দেশের শীতপ্রধান অঞ্চল হিসেবে চিহ্নিত। সে সুবাদে এই একালা থেকে শীতের দাপট প্রভাব বিস্তার করেছিল বহুদিন অবধি। চলতি বছরের জানুয়ারিতেই দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার পরিসংখ্যানে ১০টি দিন ঠাঁই করে নিয়েছিল শ্রীমঙ্গল।

পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, চলতি বছরের ১ ফেব্রুয়ারি হাঁড়কাপানো শীত জেঁকে বসেছিল শ্রীমঙ্গল উপজেলায়। শীতযন্ত্রের পারদের হিসেবে সেই পরিসংখ্যান গিয়ে ধরা পড়ে ৫ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

তারপর থেকে পরপর ৪ দিন শীতের পরিসংখ্যান রেকর্ড করা হয়, পর্যায়ক্রমে ৫ ফেব্রুয়ারি ৭ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ৬ ফেব্রুয়ারি ৮ দশমিক ৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস, ৭ ফেব্রুয়ারি ১০ দশমিক ৫ ডি. সে, ৮ ফেব্রুয়ারি ৮ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াসে। এরপর টানা ৮দিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রার অবস্থানে ছিল শ্রীমঙ্গল। ১২ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৯ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সেই তাপমাত্রা ছিল যথাক্রমে ১২ ফেব্রুয়ারি ১০ দশমিক ৪, ১৩ ফেব্রুয়ারি ১১ দশমিক ২, ১৪ ফেব্রুয়ারি ১০ দশমিক ৫, ১৫ ফেব্রুয়ারি ১১ দশমিক ৪, ১৬ ফেব্রুয়ারি ১১ দশমিক ২, ১৭ ফেব্রুয়ারি ১০ দশমিক ৯, ১৮ ফেব্রুয়ারি ১২ দশমিক ৩ এবং ১৯ ফেব্রুয়ারি ১২ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস।
২২ ফেব্রুয়ারি, ২৩ ফেব্রুয়ারি এবং ২৬ ফেব্রুয়ারি মাসের শেষ ৩ দিন দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা শ্রীমঙ্গলে ছিল যথাক্রমে ১১ দশমিক ৫, ১১ দশমিক ৯ এবং ১৫ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াসে।

এ ব্যাপারে যোগাযোগ করা হলে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তরের আবহাওয়াবিদ আবদুল হামিদ বাংলানিউজকে বলেন, ‘দেশের পূর্বাঞ্চলের মধ্যে সবচেয়ে শীতপ্রধান অঞ্চল শ্রীমঙ্গল। ভৌগলিকগত কারণে শ্রীমঙ্গলের তাপমাত্রাটা সবসময় কম থাকে। দেখবেন যে, বৃষ্টিও এখানে বেশি হয়। এখানে পাহাড়, টিলাসহ চারপাশের জায়গাটা অপেক্ষাকৃত উঁচু রয়েছে। সেসঙ্গে মাঝেমধ্যে চা-বাগানের বিভিন্ন টিলাগুলো নিচে নেমে গেছে। ফলে ঠিকমত ক্লাউড (মেঘ) দাঁড়াতে পারে না, তাপমাত্রার প্রেসার (চাপ) যেভাবে বিন্যাস হওয়ার কথা সেভাবে হয় না। এজন্য এখানকার তাপমাত্রাটা অনুপাতিক হারে এক থাকে না। ফলে বৃহত্তর সিলেটের অন্য অঞ্চল থেকে শ্রীমঙ্গলে শীত অনুভূত হয় বেশি। ’
পর্যায়ক্রমে ফেব্রুয়ারির শেষ সপ্তাহ থেকে শ্রীমঙ্গলের সেই সর্বনিম্ন গড় তাপমাত্রা ধীরে ধীরে বাড়তে থাকবে বলেও জানান ওই আবহাওয়াবিদ।  

সোমবার (১ মার্চ) দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে নওগাঁ জেলার বদরগাছিতে, ১৬ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস আর সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে চুয়াডাঙ্গায়, ৩৬ দশমিক শূন্য ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বাংলাদেশ সময়: ১৭০০ ঘণ্টা, মার্চ ০১, ২০২১
বিবিবি/এএটি

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa