ঢাকা, শনিবার, ২৯ শ্রাবণ ১৪২৯, ১৩ আগস্ট ২০২২, ১৪ মহররম ১৪৪৪

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

হবিগঞ্জের বনাঞ্চলে মুক্ত দেড় শতাধিক প্রাণী

বদরুল আলম, ডিস্ট্রিক্ট করেসপন্ডেন্ট | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৯৫৬ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০২০
হবিগঞ্জের বনাঞ্চলে মুক্ত দেড় শতাধিক প্রাণী

হবিগঞ্জ: এক বছরে হবিগঞ্জ জেলার বনাঞ্চলগুলোতে মুক্তি পেল অসংখ্য বিপন্ন প্রাণী। এর মাঝে শুধু চুনারুঘাটের সাতছড়ি জাতীয় উদ্যোনেই অবমুক্ত করা হয়েছে প্রায় দেড়শ’ প্রাণীকে।

হবিগঞ্জ বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অধিদপ্তর গেল ১ জানুয়ারি থেকে ৩১ ডিসেম্বর পর্যন্ত সাতছড়ি জাতীয় উদ্যান ও রেমা-কালেঙ্গা অভয়ারণ্যে একশ’টি প্রাণী অবমুক্ত করে। এর মধ্যে আছে ১৪টি মেছো বাঘ, ৫৮টি বক, ছয়টি চিল, পাঁচটি লক্ষ্মী পেঁচা, তিনটি ডাহুক, একটি ঈগলসহ চারটি পাখি, দু’টি গোখরা সাপ, একটি শকুন, তিনটি তক্ষক, তিনটি বানর ও একটি গুঁইসাপ।

অন্যদিকে, সাতছড়ি উদ্যানে গত ১১ সেপ্টেম্বর শ্রীমঙ্গল বন্যপ্রাণী সেবা ফাউন্ডেশনে জন্ম নেওয়া অজগর সাপের ৩০টি বাচ্চা ও একই সঙ্গে সুস্থ হওয়া ১৪টি বিভিন্ন জাতের প্রাণী অবমুক্ত করেছে। এসবের মধ্যে আছে একটি বড় অজগর, চারটি বন বিড়াল, দু’টি লজ্জাবতী বানর, একটি মেছো বাঘ,তিনটি বাদামী বানর, দু’টি সবুজ বুড়াল সাপ ও একটি তক্ষক। বিভিন্ন স্থানে বিপদগ্রস্ত হওয়া প্রাণীগুলো উদ্ধার করে এনে চিকিৎসার পর তারা অবমুক্ত করে।

হবিগঞ্জ বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ফরেস্টার তোফায়েল আহমেদ চৌধুরী বাংলানিউজকে জানান, পথ ভুলে অথবা বিভিন্ন কারণে অনেক প্রাণী লোকালয়ে চলে যায়। সেজন্য তারা মানুষের আক্রমণের শিকার হয়। খবর পেয়ে এক বছরে তারা একশ’টি প্রাণী উদ্ধার ও পরে চিকিৎসা করে সুস্থ করে তুলে বনাঞ্চলে অবমুক্ত করা হয়েছে। এছাড়া বিভিন্ন দপ্তর প্রাণী অবমুক্ত করেছে। এর তথ্য তাদের কাছে নেই।

বাংলাদেশ সময়: ১৯৫৪ ঘণ্টা, ডিসেম্বর ৩১, ২০২০
এসআই
 

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
Alexa