ঢাকা, রবিবার, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১, ২৬ মে ২০২৪, ১৭ জিলকদ ১৪৪৫

পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য

মাগুরায় বিরল প্রজাতির গো-সাপ নদীতে অবমুক্ত

জেলা প্রতিনিধি | বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম
আপডেট: ১৮৫২ ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১১
মাগুরায় বিরল প্রজাতির গো-সাপ নদীতে অবমুক্ত

মাগুরা: মাগুরা শহরের ঢাকা রোড বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে স্থানীয় জনতা একটি বিরল প্রজাতির গো-সাপ ধরলে বনবিভাগ সেটিকে বুধবার দুপুরে স্থানীয় নবগঙ্গা নদীতে অবমুক্ত করেছে।

মাগুরা বন বিভাগের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শ্যামল কুমার মিত্র বাংলানিউজকে বলেন, ‘মঙ্গলবার রাতে নবগঙ্গা নদীর সঙ্গে সংযুক্ত একটি ড্রেন দিয়ে ৬ ফুট লম্বা ড্রাগন সাদৃশ গো-সাপটি ঢাকা রোড বাস স্ট্যান্ড এলাকায় উঠে আসে।



এ সময় উৎসুক জনতা এটিকে দড়ি দিয়ে বেঁধে আটকে ফেলে। মূল্যবান প্রজাতির এ গো-সাপ বর্তমানে বিলুপ্তপ্রায়। তাছাড়া এত বড় গো-সাপ সাধারণত তেমন একটা চোখে পড়ে না। এরা অগভীর নদীর পাড়, ঝোপজঙ্গল সম্পন্ন জলাশয়ে বিচরণ করে। জীব বৈচিত্র্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ এ গো-সাপ খাদ্য, আবাসস্থল ও বিরূপ প্রকৃতিসহ নানা কারণে হারিয়ে যেতে বসেছে। তবে, এটি সাধারণত মানুষের কোনো ক্ষতি করে না। ’

তিনি আরও বলেন, ‘বিষধর সাপ, ক্ষতিকর পোকা-মাকড় খেয়ে এরা  জীব বৈচিত্র্য রক্ষায় গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। মঙ্গলবার এলাকাবাসীর হাতে গো-সাপটি ধরা পড়ার খবর পেয়ে তাৎক্ষণিকভাবে  সেটিকে উদ্ধার করে জেলা বন বিভাগের অফিসে রাখা হয়। বুধবার দুপুরে এটিকে ঢাকা রোড বাসস্ট্যান্ড এলাকায় নবগঙ্গা নদীতে অবমুক্ত করা হয়। ’

ঢাকা রোড পারনান্দুয়ালী এলাকার বাসিন্দা বিএম সুজন বাংলানিউজকে বলেন, ‘গত কয়েকদিন ধরেই বিশাল আকৃতির এ গো-সাপটিকে নদীতে মাঝে-মধ্যে দেখা যাচ্ছিল। কুমির হতে পারে এ সন্দেহে অভিভাবকরা গত কয়েকদিন ধরে ছেলেমেয়েদের নদীতে গোসল করতেও নিষেধ করে আসছিলেন। তবে, এটি সাধারণত মানুষকে কামড় দেয় না এ কথা জানার পর এলাকায় স্বস্তি ফিরে এসেছে। ’

বাংলাদেশ সময়: ১৮৪৮  ঘণ্টা, সেপ্টেম্বর, ২০১১

বাংলানিউজটোয়েন্টিফোর.কম'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।